Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩১
বগুড়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুজন নিহত
প্রতিদিন ডেস্ক

বগুড়ার কাহালু উপজেলার পল্লীতে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া টেকনাফে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে নিহত একজনের লাশ পাওয়া গেছে।

বগুড়া থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক জানিয়েছেন, কাহালুতে বন্দুকযুদ্ধে নিহতরা হলেন দুপচাঁচিয়া উপজেলার তালোড়ার শাবলা এলাকার মৃত আবদুস সাত্তারের ছেলে দুলাল (৪৫) ও নন্দীগ্রাম উপজেলার থালতা মাঝগ্রাম এলাকার বছির উদ্দিনের ছেলে ইব্রাহিম (৪২)। এ সময় দুজনকে আটকও করা হয়। তারা হলেন মোজাম ও ইয়াকুব। পুলিশ বলছে, নিহত ও আটকরা ডাকাত দলের সদস্য। কাহালু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, গতকাল রাত ২টার দিকে উপজেলার পাঁচপীর মাজার এলাকার ফকিরপাড়ায় ডাকাত দলের সদস্যরা ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে পুলিশ অভিযানে যায়। ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে দুই ডাকাত আহত হয়। চিকিৎসার জন্য তাদের বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে পাঠালে সেখানে ভোর ৪টার দিকে দুলাল ও ইব্রাহিম মারা যায়। ঘটনাস্থল থেকে অপর দুই ডাকাতকে আহত অবস্থায় আটক করা হয়েছে। ডাকাতদের হেফাজতে থাকা একটি বিদেশি পিস্তল ও পাঁচ রাউন্ড গুলি, ম্যাগাজিনসহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। তারা আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি জানিয়েছেন, টেকনাফ স্থলবন্দর সংলগ্ন কেরুণতলী চাড়িয়ং পাহাড়ি এলাকা থেকে সুলতান আহামদ বাদশা (৫০) নামে একজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের মৌলভীবাজার এলাকার মৃত অছিউর রহমানের ছেলে। গতকাল ভোরে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। টেকনাফ মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার কাঞ্চন কান্তি দাস জানান, ভোরে গোলাগুলির খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরে খোঁজাখুঁজির পর টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের টেকনাফ স্থলবন্দরের বিপরীতে কেরুণতলী চাড়িয়ং পাহাড়ি এলাকায় একজনের মৃতদেহ পাওয়া যায়। এ সময় ১০ প্যাকেট ইয়াবা, দুটি জিনসিন সিরাপ ও একটি দেশীয় অস্ত্র পাওয়া যায়। থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল মজিদ জানান, ভোরে দুই ইয়াবা ব্যবসায়ী গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনার খবর পেয়ে থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে একজনকে পড়ে থাকতে দেখে। তাকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ওসি বলেন, নিহত বাদশা চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে টেকনাফ মডেল থানায় ১৫টি মামলা রয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow