Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৪৪
জামায়াত নিষিদ্ধে সময় ক্ষেপণের সুযোগ নেই
-----------মাওলানা মাসুদ
এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক

শোলাকিয়া ঈদগায়ের ইমাম মাওলানা ‘ফরিদ উদ্দীন মাসঊদ বলেছেন, ‘গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারি’তে সন্ত্রাসীরা হত্যাযজ্ঞের সময় যে আল্লাহু আকবর ধ্বনি দিয়েছে, তার সঙ্গে সত্যিকারের আল্লাহু আকবরের কোনোই সম্পর্ক নেই। সেটি হচ্ছে মাওলানা মওদুদীর ‘আল্লাহু আকবর’, যা ব্যবহার করে নিজেদের ‘মতলববাজি পূরণের ধান্দা করা হচ্ছে’।

৮ ফেব্রুয়ারি তিনি রাতে নিউইয়র্ক সিটির ওজোনপার্কে আল মদিনা পার্টি হলে প্রবাসীদের এক সমাবেশে ভাষণ দিচ্ছিলেন। মাওলানা মাসঊদ বলেন, ‘মওদুদীর অনুসারীরা ইসলাম ধর্মের অপব্যাখ্যা করে দেশ-বিদেশে শান্তির ধর্ম ইসলামকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। তাদের রুখে দিতে ধর্মপ্রাণ প্রতিটি বাংলাদেশিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে এই প্রবাসেও। ’ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে জামায়াত-শিবিরই জঙ্গিবাদে লিপ্ত। জামায়াত-শিবিরকে নিষিদ্ধ করতে কালক্ষেপণের অর্থ হবে জঙ্গিদের আরও সংঘবদ্ধ হওয়ার সুযোগ দেওয়া। ’

মাওলানা মাসঊদ বলেন, একাত্তরের ঘাতকদের বিচার অব্যাহত রাখতে আন্তর্জাতিক জনমত গঠনে যে ভূমিকা পালন করেছেন, ঠিক সেভাবে জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ করতেও প্রবাসীদের সোচ্চার থাকতে হবে। বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় পুরোপুরি প্রতিষ্ঠিত করতে চলমান পদক্ষেপকে বাস্তবায়িত করার স্বার্থেই প্রবাসীদের এ দায়িত্ব পালন করতে হবে।

কয়েক সপ্তাহ আগে যুক্তরাষ্ট্রে আসার পর মাওলানা মাসঊদ মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং জাতিসংঘের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হওয়ার পাশাপাশি জঙ্গিবাদ নির্মূলের জন্য আন্তর্জাতিক জনমত গঠনের কয়েকটি সভা-সেমিনারেও অংশ নেন। তিনি পবিত্র ধর্ম ইসলামের মাহাত্ম্য যথাযথভাবে আমেরিকান তথা ভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের সামনে উপস্থাপন এবং সত্যিকারের মুসলমানের একজনও যে জঙ্গিবাদে বিশ্বাসী নন—সেসব তথ্য বিশদ উপস্থাপন করেন।

‘বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গোটা জাতি আজ জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ’ বলেও জাতিসংঘসহ স্টেট ডিপার্টমেন্টকে অবহিত করেছেন। এসব বৈঠকে তিনি বাংলাদেশের লক্ষাধিক ইমামসহ ইসলাম-ধর্মের স্কলারদের স্বাক্ষর সংবলিত একটি স্মারকপত্রও হস্তান্তর করেছেন। মাওলানা মাসঊদকে অভিনন্দন জানিয়ে নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী বলেন, ‘দীর্ঘ ৪৫ বছর পর হলেও বাংলাদেশ যেভাবে রাজাকার মুক্ত হচ্ছে, ঠিক একই চেতনায় জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই জঙ্গি ও সন্ত্রাসমুক্তও হবে। ’ বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ‘আবদিন পরিবার’-এর উদ্যোগে বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষের উপস্থিতিতে এই সভা পরিচালনা করেন নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ চৌধুরী। সভাপতিত্ব করেন মোস্তফা আবদীন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow