Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০২:৩৬
বাজাজের অংশীদার বাংলাদেশের রানার
নতুন প্রযুক্তির চার গাড়ি আসছে
নিজস্ব প্রতিবেদক

বিশ্বখ্যাত ভারতীয় অটোমোবাইল কোম্পানি বাজাজের অংশীদার হলো বাংলাদেশের কোম্পানি রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড। এখন থেকে রানার স্থানীয়ভাবে বাজাজের নতুন প্রযুক্তির তিন ও চার চাকার চার ধরনের যাত্রী ও পণ্য পরিবহন গাড়ি বাজারজাত করবে।

গতকাল বিকালে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় এসব গাড়ির বাজারজাতকরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে রানার গ্রুপের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান বলেন, ২০২১ সালে বাংলাদেশকে মধ্য আয়ের দেশে উন্নীত করার যে লক্ষ্য নিয়েছে সরকার, তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমরা পরিবহন খাতেও উন্নতি করতে চাই। এ জন্য বিশ্বের সেরা অটোমোবাইল কোম্পানি বাজাজ এগিয়ে এসেছে। রানারের সঙ্গে বাজাজের এই অংশীদারিত্ব দেশের পরিবহন খাতে নতুন যুগের সূচনা করবে।

তিনি আরও বলেন, তিন চাকার যে যাত্রী পরিবহন গাড়ি বাজারে আনা হচ্ছে, এর একটি ডিজেল ও অপরটি এলপিজিতে চলবে। এসব গাড়ি সাধারণত দেশের গ্রামাঞ্চলে যেখানে সিএনজি গ্যাসের সরবরাহ নেই— সেখানে নিয়ে যেতে চাই।

বাজাজের জিএম (ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস) মনিষ শিং রাথোর বলেন, বাংলাদেশে বাজাজের তিন চাকার গাড়ির (সিএনজি) একচেটিয়া বাজার রয়েছে। জ্বালানি চাহিদার ওপর নজর রেখে এখন আমরা ডিজেল ও এলপিজি চালিত প্যাসেঞ্জার ভ্যাহিকেল বাজারজাত করছি। এ ছাড়া চার চাকার নতুন প্রযুক্তির যাত্রীবাহী কিউটও বাংলাদেশের ক্রেতাদের মন কাড়বে।

অনুষ্ঠানে নতুন গাড়ির বৈশিষ্ট্য তুলে ধরেন রানার অটোমোবাইলসের এমডি ও সিইও মুকেশ শর্মা। এ গাড়িগুলো হচ্ছে বাজাজ মেক্সিমা কার্গো (চার চাকার পণ্যবাহী গাড়ি), বাজাজ ডিজেল প্যাসেঞ্জার ভ্যাহিকেল ও বাজাজ এলপিজি প্যাসেঞ্জার ভ্যাহিকেল (তিন চাকার যাত্রীবাহী গাড়ি) এবং বাজাজ কিউট (চার চাকার যাত্রীবাহী গাড়ি)। এরমধ্যে প্রথমটির মূল্য ধরা হয়েছে ৪ লাখ ৬১ হাজার, দ্বিতীয়টি ৪ লাখ ৩১ হাজার, তৃতীয়টি ৩ লাখ ৫৫ হাজার এবং চার চাকার যাত্রিবাহী কিউটের মূল্য ৪ লাখ ৯৯ হাজার টাকা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow