Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০৯
লাইটারেজ শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহার
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

বর্ধিত বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবিতে লাইটার জাহাজ শ্রমিকদের একাংশের ডাকা কর্মবিরতি চার দিন পর অবশেষে প্রত্যাহার করা হয়েছে। গতকাল রাজধানী ঢাকার শ্রম পরিচালকের দফতরে লাইটার জাহাজ মালিক প্রতিনিধি ও শ্রমিক নেতাদের মধ্যে এক বৈঠক শেষে টানা চার দিন ধরে চলা কর্মবিরতি প্রত্যাহারের এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে গতকাল বেলা পৌনে ৩টার দিকে কর্মবিরতি প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন লাইটার জাহাজ শ্রমিক ইউনিয়নের একাংশের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাহাদাত হোসেন। তিনি বলেন, বৈঠকে মালিকপক্ষ শ্রমিকদের বর্ধিত বেতন-ভাতার বকেয়া অংশ ফেব্রুয়ারির মধ্যে পুরোপুরি পরিশোধের আশ্বাস দিয়েছে। এজন্য কর্মবিরতি প্রত্যাহার করা হয়েছে। এর আগে বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবিতে লাইটার জাহাজ শ্রমিকদের একাংশ শনিবার সকালে এ কর্মবিরতি শুরু করে। সরকারের নতুন গেজেট অনুসারে গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর থেকে বর্ধিত বেতন-ভাতা দেওয়ার কথা থাকলেও সব জাহাজ মালিক তা না দেওয়ায় কর্মবিরতিতে যান শ্রমিকরা।

জানা যায়, চট্টগ্রাম থেকে সারা দেশে চলাচলকারী প্রায় দেড় হাজার লাইটার জাহাজ রয়েছে। এসব জাহাজের মালিক প্রায় ৮০০ জন। এগুলোসহ সারা দেশের সব নৌরুট মিলিয়ে প্রায় ৬ হাজার লাইটার জাহাজ চলাচল করে। চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে থাকা মাদার ভেসেল (বড় আকারের জাহাজ), কর্ণফুলী নদীর ১৬টি ঘাট এবং বিভিন্ন জেটি থেকে লাইটার জাহাজে করে পণ্য পরিবহন করা হয়।

লাইটার জাহাজ মালিকদের পাঁচটি সংগঠন রয়েছে। এর মধ্যে দুটি ট্যাংকার, একটি কোস্টার, একটি কার্গো ও একটি খুলনা এলাকার লাইটার মালিকদের সংগঠন।

up-arrow