Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৫২
ফারুক হত্যা মামলা
এমপি রানা হাজির হননি, অভিযোগ গঠন শুনানি ফের পেছাল
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলে আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলার অন্যতম আসামি টাঙ্গইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানাকে গতকাল আদালতে হাজির না করায় অভিযোগ গঠনের শুনানি আবারও পিছিয়েছে। এ নিয়ে তিনবার অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছাল।

টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি মনিরুল ইসলাম খান জানান, প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-১ আদালতে গতকাল শুনানি গঠনের তারিখ ধার্য ছিল। কিন্তু এমপি রানা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকায় কাশিমপুর কারা কর্তৃপক্ষ তাকে হাজির করতে পারেনি। তাই আদালত অভিযোগ গঠনের জন্য ১৫ মার্চ নতুন দিন ধার্য করেছে। ২২ মাস পলাতক থাকার পর আমানুর রহমান খান রানা এমপি গত ১৮ সেপ্টেম্বর এ আদালতেই আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়। পরে বেশ কয়েক দফা উচ্চ ও নিম্ন আদালতে আবেদন করেও জামিন পাননি তিনি।

২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি রাতে জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমেদের গুলিবিদ্ধ লাশ টাঙ্গাইলে তার কলেজপাড়া বাসার সামনে পাওয়া যায়। ঘটনার তিন দিন পর ফারুকের স্ত্রী নাহার আহমেদ টাঙ্গাইল সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। ২০১৪ সালের আগস্টে এ মামলার আসামি আনিসুল ইসলাম ওরফে রাজা ও মোহাম্মদ আলী গ্রেফতার হন।

আদালতে তাদের স্বীকারোক্তিতে এমপি রানা ও তার তিন ভাইয়ের জড়িত থাকার বিষয়টি জানা যায়। এর পরই রানা ও তার ভাইয়েরা আত্মগোপন করেন। তার অন্য তিন ভাই টাঙ্গাইল পৌরসভার সাবেক মেয়র সহিদুর রহমান খান মুক্তি, ব্যবসায়ী নেতা জাহিদুর রহমান খান কাঁকন ও সাবেক ছাত্রনেতা সানিয়াত খান বাপ্পা বর্তমানে পলাতক।

গত বছর ৩ ফেব্রুয়ারি রানা, মুক্তি, কাঁকন, বাপ্পাসহ ১৪ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়। ৬ এপ্রিল আদালত মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ করে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow