Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৫৩
বরগুনার ব্লগার লিমন প্রাণভয়ে চলে গেছেন ভারতে
দীপক দেবনাথ, কলকাতা

ধর্মীয় মৌলবাদীদের হুমকির মুখে নিজের দেশ ছেড়ে ভারতে আশ্রয় নিতে হলো বাংলাদেশি ব্লগার লিমন ফকিরকে। কয়েক দিন ধরে পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলার প্রত্যন্ত এক গ্রামে রয়েছেন বরগুনার আমতলী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা লিমন (২৯)।

তিনি আমতলী কলেজের পৌরনীতি বিষয়ের ছাত্র। পড়াশোনার পাশাপাশি বিভিন্ন বই পড়া ও লেখালেখি করতেও ভালোবাসেন লিমন। ধর্মীয় গোঁড়ামি বাংলাদেশের সমাজকে অবক্ষয়ের পথে নিয়ে যাচ্ছে— এ ভাবনা থেকেই এর বিরুদ্ধে সরব হয়ে ইতিমধ্যে তিনি নিজের মত প্রকাশ করে ১০০টিরও বেশি ভিডিও ইউটিউবে ছেড়েছেন। ফেসবুকেও তিনি অসংখ্য পোস্ট করেছেন। তারই পরিণামে ৯ জানুয়ারি তার বিরুদ্ধে আমতলী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন মৌলবাদীরা। এমনকি লিমনের ফাঁসির দাবিতে মিছিলও করেন তারা। তাই গোপনে ভারতে আশ্রয় নিতে বাধ্য হন লিমন। গতকাল লিমন বলেন, ‘পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে গিয়েছিল যে আমি সেখানে থাকলে আমাকে হত্যা করা হতো। বিদেশ ভ্রমণের জন্য ভিসার আবেদন জানালে হয় সারা জীবন কারাগারে থেকে পচে মরতে হতো, না হয় খুন হতে হতো। যে কারণে বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই প্রাণের তাগিদে বাংলাদেশ ত্যাগ করেছি। ’ তবে বাংলাদেশকে সামনের দিকে অগ্রসর হতে গেলে এ দেশের উন্নতিতে ধর্মীয় গোঁড়ামিপনা থেকে মানুষকে বের হতে হবে বলে মনে করেন তিনি। কারণ মুক্তচিন্তার কোনো বিকল্প নেই। স্বাধীনভাবে মত প্রকাশের অনুমতি দেওয়া না হলে এই পরিবর্তন হবে না। তবে অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হতে পারে, দেশটির আইন অনুযায়ী তার জেল হতে পারে। যদিও সেসবের তোয়াক্কা না করে তার এখন একটাই আরজি, নিরাপত্তা চাই, আমি বাঁচতে চাই। সাংবাদিকদের মাধ্যমে ভারত সরকারের কাছে প্রাণ রক্ষার আরজিও জানিয়েছেন লিমন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow