Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৪১
ইভ টিজিংয়ে প্রতিবাদের জের
মুক্তিযোদ্ধা দম্পতিকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দিল বখাটেরা
নরসিংদী প্রতিনিধি

ইভ টিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় বখাটেরা এক মুক্তিযোদ্ধা দম্পতিকে পিটিয়ে হাত ভেঙে হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে নরসিংদীর বেলাবতে।

আহতরা হলেন মুক্তিযোদ্ধা সুলতান উদ্দীন (৭০) ও তার স্ত্রী রাজিয়া খাতুন (৫৫)। তাদের বেলাব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার ব্যাপারে তাদের ছেলে সুমন মিয়া বেলাব থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। জানা গেছে, গত মঙ্গলবার বিকালে বেলাব উপজেলার চরউজিলাব ইউনিয়নের চরউজিলাব পশ্চিম পাড়া গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত মুক্তিযোদ্ধা দম্পতি জানান, ওইদিন নাতনি স্কুলছাত্রী কাকলী, হ্যাপী ও সুরভীকে নিয়ে তারা বাড়ির পাশের বাগানে যান। তখন পাশের দেওয়ানেরচর ছলিম বাড়ি গ্রামের মুক্তার মিয়ার বখাটে ছেলে অলি, সাদেক মিয়ার ছেলে বাছেদ, হারিছুলের ছেলে জাহেদুল ও আবু মিয়ার ছেলে আলাউদ্দীন দাদি রাজিয়ার সামনে নাতনিদের কুপ্রস্তাব দেয়।

বখাটেরা তার নাতনিদের গালাগাল করতে থাকে। এর প্রতিবাদ করলে বখাটেরা দাদি রাজিয়া খাতুনকে (৫৫) বাঁশ দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে একটি হাত ভেঙে দেয়। তাকে রক্ষায় সুলতান উদ্দীন এগিয়ে এলে তাকেও পিটিয়ে হাত ভেঙে দেয়।

সুলতান উদ্দীন বলেন, ছেলেগুলো প্রায়ই নেশাগ্রস্ত অবস্থায় বাড়ির পাশে এসে জুয়া খেলে। ঘটনার দিন তার স্কুল পড়ুয়া নাতনিদের উত্ত্যক্ত করে। প্রতিবাদ করাতেই তারা আমাদের ওপর হামলে পড়ে। তারা বাঁশ দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে হাত ভেঙে দিয়েছে।

বেলাব উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ আলী সাফি বলেন, বখাটেদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি। এ ব্যাপারে তদন্ত কর্মকর্তা বেলাব থানার এসআই ইলিয়াস মিয়া বলেন, বখাটেদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

up-arrow