Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:০৩
সাত দিনের মধ্যে প্রবাসীরা পাসপোর্ট পাবেন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রবাসী বাংলাদেশিরা যে কোনো মূল্যে সাত দিনের মধ্যে পাসপোর্ট পাবেন বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। গতকাল আগারগাঁও পাসপোর্ট অধিদফতরে পাসপোর্ট সেবা সপ্তাহ-২০১৭ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আগে প্রবাসীদের পাসপোর্ট পেতে তিন থেকে ছয় মাস লাগত। পাসপোর্ট তৈরির পর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ দূতাবাসগুলোয় বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় সমন্বয় করে প্রবাসীদের কাছে পাঠানো হতো। এখন আমরা আন্তর্জাতিক কুরিয়ার সার্ভিস ফেডেক্সের সঙ্গে চুক্তি করেছি। প্রবাসীদের পাসপোর্টগুলো এখন তিন দিনের মধ্যে নিজ নিজ দূতাবাসে চলে যাবে। সেখান থেকে তারা সাত দিনের মধ্যে তা পেয়ে যাবেন। মন্ত্রী বলেন, জঙ্গিদের হাতে যাতে পাসপোর্ট না যায় সে জন্য এসবি ক্লিয়ারেন্স দরকার। জঙ্গি-সন্ত্রাসীরা যাতে পাসপোর্ট না পায় সে জন্য সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী বলেন, পাসপোর্ট সেবা আরও ভালোভাবে নিশ্চিত করতে কর্মকর্তাদের বিদেশে প্রশিক্ষণ ও শূন্যপদে জনবল নিয়োগ করা দরকার। বহির্গমন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মাসুদ রেজওয়ান বলেন, পাসপোর্ট সপ্তাহ চালু করার ফলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাজে গতি এসেছে।

পাসপোর্ট সপ্তাহ-২০১৭ শুরু : এদিকে ‘পাসপোর্ট নাগরিক অধিকার, নিঃস্বার্থ সেবাই অঙ্গীকার’ স্লোগানে গতকাল থেকে রাজধানীসহ সারা দেশে শুরু হয়েছে ‘পাসপোর্ট সপ্তাহ-২০১৭’। আগামী ৩ মার্চ পর্যন্ত সাত দিন নানা আয়োজনের মাধ্যমে পালন করা হবে এ সপ্তাহ। গতকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল নিঃস্বার্থভাবে ও যত্নসহকারে দ্রুত পাসপোর্ট সেবা প্রদানে অনন্য ভূমিকা রাখায় উত্তরা পাসপোর্ট অফিসের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, সহকারী পরিচালক আজিজুল ইসলামসহ ১৪ কর্মকর্তার হাতে বহির্গমন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের ২০১৬ সালের শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তার পুরস্কার তুলে দেন। এ ছাড়া পাসপোর্ট সপ্তাহের প্রথম দিনে পাসপোর্ট অফিসের ১৮ স্টাফকেও পুরস্কৃত করা হয়। সহকারী পরিচালক আজিজুল ইসলাম বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, আমাকে যে পুরস্কৃত করা হয়েছে, তা আমার কর্মক্ষেত্রে অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে।

 

এই পাতার আরো খবর
up-arrow