Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বুধবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:১১
কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় বিদ্যুৎ মেলা
উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী
জিন্নাতুন নূর
bd-pratidin

‘অনির্বাণ আগামী’— এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ। আর এ উপলক্ষে রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় আগামী ৬ থেকে ৮ সেপ্টেম্বর বিদ্যুৎ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই মেলার উদ্বোধন করবেন। গ্রাহকদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে কর্মোদ্দীপনা তৈরির লক্ষ্যে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ পালন করা হলেও এবার মেলায় তারুণ্যের মেধাশক্তির বিকাশ ও কর্মসংস্থানের ব্যতিক্রমী আয়োজন করা হয়েছে।  মূলত এই আয়োজনে তরুণ প্রজন্মের কাছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের সাফল্য তুলে ধরতে এবং তাদের সৃজনশীল চিন্তাশক্তিকে এ খাতে কাজে লাগাতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় একগুচ্ছ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এর মধ্যে আছে ক্যারিয়ার সামিট, এনার্জি হ্যাকাথন, সেমিনারের মতো কর্মসূচি। বিশেষ করে হ্যাকাথন কর্মসূচিতে শিল্প খাতের বিশেষজ্ঞ মহল এবং গবেষকদের উপস্থিতিতে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত নিয়ে তাদের নতুন চিন্তাভাবনা আদান-প্রদানের সুযোগ পাবে। দেশে ২য় বারের মতো অনুষ্ঠিত হ্যাকাথনে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান খোঁজার প্রত্যাশায় ২৪ ঘণ্টার অধিক সময় নিয়ে নির্বাচিত টিমগুলো নিয়ে পুরো আয়োজনটি অনুষ্ঠিত হবে। দেশবরেণ্য প্রকৌশলী, গবেষক, আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ ও সংশ্লিষ্ট খাতের সবাইকে নিয়ে এই হ্যাকাথন অনুষ্ঠিত হবে। এখানে সংশ্লিষ্ট খাতের উন্নয়নে নতুন আইডিয়া খোঁজার পাশাপাশি থাকবে বিভিন্ন টেকনিক্যাল সেমিনার, কর্মশালা, বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য। একই সঙ্গে বিজয়ী দলগুলোর জন্য থাকবে সিড ফান্ড ও সার্টিফিকেট। আর আইডিয়া বাস্তবায়নে থাকবে সরকারি সহযোগিতা। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানসমূহের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ আর মেধাবী টিমগুলোর জন্য থাকবে সার্টিফিকেট ও সম্মাননা। আগামী ৬ সেপ্টেম্বর বিকাল ৩টায় হ্যাকাথন শুরু হবে আর শেষ হবে ৭ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৬টায়। এই হ্যাকাথনে অংশ নিবে প্রায় ৫শ অংশগ্রহণকারী। এর পাশাপাশি প্রথমবারের মতো দেশে অনুষ্ঠিত হবে পাওয়ার অ্যান্ড এনার্জি ক্যারিয়ার সামিট ২০১৮। এতে ২০টির অধিক পদে স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানের প্রকৌশলীদের চাকরি পাওয়ার সুযোগ থাকবে। বিশেষ করে তড়িৎ প্রকৌশল, যন্ত্র কৌশল এবং পুরকৌশলের সদ্য পাসকৃত শিক্ষার্থীসহ চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা চাকরির জন্য আবেদন করার সুযোগ পাবেন। চাকরির পাশাপাশি আরও থাকবে নানা ধরনের ক্যারিয়ার গাইডলাইন ও ইন্ডাস্ট্রি এক্সপোজারের সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন সেশন। যেখানে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ব্যক্তিরা বক্তব্য রাখবেন। 

দেশের শীর্ষ প্রতিষ্ঠানগুলো ফুলটাইম ও পার্টটাইম চাকরি এবং ইন্টার্নশিপের সুযোগ নিয়ে ক্যারিয়ার সামিটে উপস্থিত থাকবে। এ ছাড়া সামিটে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীরা পাবেন ওয়াক-ইন ইন্টারভিউ, গ্রুমিং সেশন, লাইভ ইন্টারভিউ ও স্কিল ডেভেলপমেন্টের সুযোগ। মূলত ছয়টি ভিন্ন সেশন নিয়ে পুরো ইভেন্টটি সাজানো হয়েছে। 

এ ছাড়া বিদ্যুৎ মেলার সেমিনারে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ প্রমুখসহ অন্যরা বক্তব্য রাখবেন।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্তরা জানান, এই খাতের আওতাধীন বিভিন্ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে কর্মোদ্দীপনা তৈরি এবং বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে সম্পৃক্ত করতেই দেশব্যাপী জাতীয় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সপ্তাহ পালন করা হয়। এ উপলক্ষে উপজেলা পর্যায় থেকে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে নানা কর্মসূচি পালন করা হবে। এ জন্য ৬ সেপ্টেম্বর কেন্দ্রীয় পর্যায়ে বিদ্যুৎ সপ্তাহের উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ করা হবে। ৭ সেপ্টেম্বর সেমিনারের আয়োজন এবং ৬ থেকে ৯ সেপ্টেম্বর গ্রাহকদের মধ্যে লিফলেট বিতরণ ও বিদ্যুৎ মেলার আয়োজন করা হচ্ছে। জানা যায়, কনভেনশন সিটির হল-২,৩ এবং ৪-এ বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়সহ বেসরকারি খাতের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য এরই মধ্যে স্টল বরাদ্দ শেষ হয়েছে। এখন চলছে মেলা আয়োজনের প্রস্তুতি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow