Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৩৮
চট্টগ্রামে মাদ্রাসাছাত্রের মৃত্যু নিয়ে তোলপাড়
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
bd-pratidin

চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহর এলাকার একটি মাদ্রাসায় ১৩ বছরের এক ছাত্রের মৃত্যু নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। কীভাবে বা নেপথ্যে কোনো রহস্য আছে কিনা সেটা নিয়েও গুঞ্জন রয়েছে। তবে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ এ ঘটনাকে ‘আত্মহত্যা’ বললেও ছেলেটিকে হত্যা করা হয়েছে বলে সন্দেহ করছে নিহতের পরিবার। তবে সর্বশেষ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি। রবিবার রাতে হালিশহর থানার নতুন বাজার মসজিদ গলির মাহদাতুল উম্মাহ মাফিজিয়া মাদ্রাসায় শাহরিয়ার আলম নামের এক ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। শাহরিয়ার এনায়েত বাজার জুবিলী রোডের ফোম মার্কেট গলির শাহিন আলমের ছেলে।

সে উক্ত মাদ্রাসাটিতে লেখাপড়া করত।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের ডবলমুরিং জোনের সহকারী কমিশনার আশিকুর রহমান বলেন, উক্ত মাদ্রাসার হেফজখানার টয়লেটে শাহরিয়ারকে ঝুলন্ত অবস্থায় পায় মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। টয়লেটের সিলিং থেকে গলায় লুঙ্গি প্যাঁচানো অবস্থায় ঝুলছিল শাহরিয়ারের দেহ। সেটি তারই পরনের লুঙ্গি বলে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। তিনি বলেন, রবিবার রাতেই শাহরিয়ারকে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শাহরিয়ারের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তাছাড়া মাদ্রাসার পরিচালক মনির হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হালিশহর থানায় নিয়েছে পুলিশ। তবে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে আত্মহত্যা নাকি হত্যা।

ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে শাহরিয়ারের খালা সুলতানা আক্তার বলেন, ‘মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ আত্মহত্যা করেছে দাবি করলেও আমরা তা বিশ্বাস করি না। ওর শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিল। ওকে পিটিয়েছে বলে মনে হচ্ছে। এ ঘটনায় আমরা মামলা করব।’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow