Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:৪৮ অনলাইন ভার্সন
নাইকো দুর্নীতি মামলা: খালেদা জিয়ার আবদার কতটুকু যৌক্তিক?
মোহাম্মদ এ. আরাফাত
নাইকো দুর্নীতি মামলা: খালেদা জিয়ার আবদার কতটুকু যৌক্তিক?
মোহাম্মদ এ. আরাফাত

বৃহস্পতিবার আদালতে খালেদা জিয়া অভিযোগ তুলেছেন, ‘নাইকো দুর্নীতি মামলা শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে না চললে তার বিরুদ্ধে চলছে কেনো?’ খালেদা জিয়ার উকিল সানাউল্লা মিয়ার বরাতে টেলিভিশনের মাধ্যমে আমরা তা জানতে পারলাম। 

প্রথম আলো রিপোর্ট করেছে, ‘শুনানিতে খালেদা জিয়া বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রীও নাইকো দুর্নীতি মামলায় আসামি ছিলেন। কাজেই তাঁকেও এখানে হাজির করা উচিত।’

এই মামলার অভিযোগে বলা হয়, ক্ষমতার অপব্যবহার করে তিনটি গ্যাসক্ষেত্র পরিত্যক্ত দেখিয়ে কানাডার কোম্পানি নাইকোর হাতে ‘তুলে দেওয়ার’ মাধ্যমে আসামিরা রাষ্ট্রের প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার ক্ষতি করেছেন।

এই মামলা শেখ হাসিনা এবং খালেদা জিয়া উভয়ের বিরুদ্ধেই ছিল কিন্তু শেখ হাসিনার বিপক্ষে মামলা খারিজ হয়ে গেছে এবং খালেদা জিয়ার বিপক্ষে মামলা এখনও চলছে। কিন্তু কারণটা কি ?

কারণটা হলো, শেখ হাসিনার সরকার ১৯৯৬-২০০১ সালে নাইকোর সাথে দর কষাকষি করেছে, শেষ পর্যন্ত চুক্তি করেনি কারণ নাইকোর একটি শর্ত বাংলাদেশের স্বার্থের বিপক্ষে যাচ্ছিলো। বাংলাদেশবিরোধী শর্ত মেনে না নেয়ায় তখন নাইকোর সাথে কোন চুক্তিই সই হয়নি। 

অন্যদিকে, খালেদা জিয়ার সরকার ২০০১ সালে ক্ষমতায় এসেই নাইকোর সাথে তাদের সকল শর্ত মেনে চুক্তি সই করে ফেলে। ২০০৩ সালের ১৬ অক্টোবর নাইকো-বাপেক্স জেভিএ সই হয়। পরবর্তিতে কানাডার আদালতে প্রমানিত হয় যে, নাইকো বাংলাদেশে খালেদা জিয়ার আমলে ঘুষ দিয়ে কাজ পায়। 

হাওয়া ভবনের গিয়াস উদ্দিন আল মামুন ঘুষ নেন এবং খালেদা জিয়ার তৎকালীন জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেনকে ১ লাখ ৯০ হাজার কানাডিয়ান ডলার দামের একটি গাড়ি ও বিদেশ সফরের জন্য পাঁচ হাজার ডলার ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ ওঠে নাইকোর বিরুদ্ধে। 

দুর্নীতির মাধ্যমে নাইকোর সঙ্গে বাপেক্সের চুক্তি সম্পাদন প্রক্রিয়ায় জড়িত হিসেবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ সহ ২৬ জনের নাম আন্তর্জাতিক আদালতে (ইকসিড) উপস্থাপন করা হয়েছে।

কাজেই নাইকো সংক্রান্ত দুর্নীতির মামলা উৎস কোথায়, এটি খোঁজ নিতে গেলে খালেদা জিয়ার ১৩ হাজার ৬০০ কোটি টাকার দুর্নীতির মামলাটি খোঁজ করুন। শেখ হাসিনা দেশের স্বার্থের বিরুদ্ধে নাইকোর সাথে কোন চুক্তিই করেননি। কাজেই তার বিরুদ্ধে নাইকো সংক্রান্ত ১৩ হাজার ৬০০ কোটি টাকার মামলার হিসাব খুবই সহজ। 

শেখ হাসিনা চুক্তিই করেন নি, কাজেই মামলা খারিজ। আর খালেদা জিয়া দেশবিরোধী চুক্তি করেছিল দুর্নীতির মাধ্যমে, কাজেই খালেদা জিয়া এবার শুধু দেশে নয়, আন্তর্জাতিক ভাবেও ফেঁসে যাবেন।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত তাফসীর 

আপনার মন্তব্য

up-arrow