Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ২৩:২৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:৩৩
পরিচ্ছন্ন, উদ্যমী মন্ত্রীসভার যাত্রা শুভ হোক
আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন:
পরিচ্ছন্ন, উদ্যমী মন্ত্রীসভার যাত্রা শুভ হোক
ফাইল ছবি

সকল জল্পনা কল্পনার অবসান করে অনেক হেভিওয়েটদের বাদ দিয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাটির গন্ধ গায়ে মাখা এক ঝাঁক পরিচ্ছন্ন নেতাদের নিয়ে নতুন মন্ত্রীসভার যাত্রা শুরু করলেন। টানা তৃতীয় মেয়াদে হ্যাটট্রিক প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যার কাছে জনপ্রত্যাশা বেড়ে আকাশচুম্বি হয়েছে। কোটা আন্দোলন, পরিবহন সেক্টর নিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ইত্যাদি নিয়ে প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক শক্তি নতুন প্রজন্মকে শেখ হাসিনা বিমুখ করার প্রাণান্তকর ষড়যন্ত্র করেছে। কিন্তু বিশ্বসেরা রাজনীতিবিদ শেখ হাসিনার প্রজ্ঞা, বিচক্ষণতা সকল ষড়যন্ত্র বোল্ড আউট করেছে। নতুন প্রজন্ম শেখ হাসিনায় বিশ্বাস স্থাপন করেছে। নতুন প্রজন্মের সিংহভাগ ভোটার প্রার্থী দেখে নয়, নৌকায় ভোট দিয়েছে শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা জ্ঞাপন করে।

'পাকিস্তান আমলই ভালো ছিল' চেতনায় বিশ্বাসী অর্বাচীন সারমেয় পুত্রগণের সংখ্যা ক্রমশ কমে আসছে। যত দিন যাবে তত বেশি শেখ হাসিনায় বিশ্বাসী প্রজন্ম গড়ে উঠবে সার্বভৌম ও সক্ষম বাংলাদেশে।

জয় বাংলা, জিতবে এবার নৌকা, শেখ হাসিনার সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন- গানের বিটের যে উন্মাদনা শিশু-কিশোরদের মাঝে দেখেছি তাতে আমার বিশ্বাস, তাদের ভোটাধিকার থাকলে নৌকা শিশুদের  ৯৫ শতাংশ ভোট পেত। দু'চোখ ভরা রঙিন স্বপ্ন নিয়ে নতুন প্রজন্মের ভোটাররা নৌকায় ভোট দিয়েছে।

এই নির্বাচনোত্তরকালে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনাকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। তার কাঁধে যে গতবারের চেয়ে মানুষের স্বপ্নের ভার বেড়েছে সেটি অনুভব করছি। নতুন মন্ত্রীসভার তালিকা দেখে পরিস্কার হলাম, তিনি গুরুভার সম্পর্কে অত্যন্ত সচেতন এবং মানুষের স্বপ্ন পূরণে দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ।

গায়ে মাটির সোঁদা গন্ধওয়ালা এক ঝাঁক মন্ত্রী তার নতুন টিমে। কারো বিরুদ্ধে দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার, অহমিকার অভিযোগ নেই। বঙ্গবন্ধু কন্যার হাতে গড়া এই রাজনীতিকগণের দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, অহমিকা করার মানসিকতাও নেই, সাহসও হবে না। এমন একটি পরিচ্ছন্ন টিম প্রয়োজন ছিল উন্নয়ন ও সুশাসনের জন্য।

নতুন প্রজন্মের প্রত্যাশা, জাতির পিতার কন্যা তাদের জন্য একটি উন্নত, সমৃদ্ধ, নিরাপদ, দুর্নীতিমুক্ত, কর্মমুখর, কল্যাণ রাষ্ট্র এবং নৈতিক মূল্যবোধ সম্পন্ন পরমতসহিষ্ণু জ্ঞান ভিত্তিক সমাজ উপহার দেবেন। নব প্রজন্মের এই প্রত্যাশা পরিপূর্ণভাবে ধারণ করে পৃথিবীর এই সময়ের দৃঢ়তম ও অকুতোভয় প্রধানমন্ত্রী তাঁর নব যাত্রার সূচনা করলেন।

নতুন মন্ত্রী সভার সদস্যবৃন্দ, সকল সংসদ সদস্য এবং আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দকে উপলব্ধি করতে হবে যে সাম্প্রতিক ইতিহাসে জনগণ আমাদের সর্বোচ্চ পরিমাণ ভোট দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ এখন এভারেস্টের চূড়ায় অবস্থান করছে। এর উপরে কেবলই মহাশূণ্য। উপরে ওঠার আর জায়গা নেই। কিন্তু নীচে নামাও যাবে না। পর্বত শৃঙ্গেই দীর্ঘকাল অবস্থান করতে হবে। বিশ্বসেরা রাষ্ট্রনায়ক, ভিশনারী ও সাহসীতম সিনিয়র পলিটিশিয়ান শেখ হাসিনার সক্ষমতা রয়েছে তার দল ও সরকারকে দীর্ঘদিন স্বীয় অবস্থানে অক্ষুণ রাখবার। কিন্তু তার কোন মন্ত্রী, এমপি বা নেতার আচরণ, কর্মকান্ড যেন জনপ্রত্যাশার বিপরীতমুখী না হয়। মনে রাখতে হবে, সংসদীয় গণতন্ত্র মানে টিম ওয়ার্ক। টিমের যে কোন সদস্যের স্ক্ষলণ পুরো টিমকে আঘাত করবে।

জনগণের প্রত্যাশা, শেখ হাসিনার টিমের সদস্যরা তার মত করে দরদ দিয়ে মাটি ও মানুষকে ভালোবাসতে চেষ্টা করবে। তার মত অপরকে সম্মান ও শ্রদ্ধা করবে। কর্মে হবে আপোষহীন, অকুতোভয়, কঠোর ও নিষ্ঠাবান, আচরণে হবে পরিপূর্ণ বিনয়ী জনসেবক। আমার বিশ্বাস, মহান প্রধানমন্ত্রীর নতুন টিম সর্বক্ষণ টিম- লিডারকে অনুসরণ করে দেশ এগিয়ে নেবে জাতির পিতার স্বপ্নের প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ড বিনির্মাণের পথে।

অজস্র শুভ কামনা পরিচ্ছন্ন ও উদ্যমী নতুন মন্ত্রী সভার জন্য।

লেখক: সংসদ সদস্য ও সাংগঠনিক সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল

আপনার মন্তব্য

up-arrow