Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ১১ মার্চ, ২০১৭ ১১:২৫ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১১ মার্চ, ২০১৭ ১২:২২
ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতি
আমেরিকায় আটক বাংলাদেশি সঙ্গীতশিল্পী সম্পা জামান
এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক
আমেরিকায় আটক বাংলাদেশি সঙ্গীতশিল্পী সম্পা জামান

প্রবাসীদের গোপন তথ্য চুরি করে ক্রেডিট কার্ড তৈরির মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যাংকের প্রায় ২৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার মামলায় নিউইয়র্কে বাংলাদেশী সঙ্গীতশিল্পী সম্পা জামানসহ ৩০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  

কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি রিচার্ড এ ব্রাউন সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য প্রকাশ করেন।

তিনি আরও জানান, সংঘবদ্ধ এ জালিয়াতচক্রের নেতা বাংলাদেশি প্রবাসী মোহাম্মদ রানা। এ চক্রে বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত ও পাকিস্তানের নাগরিক আছেন।  

অভিযোগ প্রমাণিত হলে সম্পা জামান, মোহাম্মদ রানাসহ সবার সর্বোচ্চ ২৫ বছর করে কারাদণ্ড ছাড়াও মোটা অংকের জরিমানা হতে পারে বলে ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি জানিয়েছেন।  

গত এক দশকে নিউইয়র্কসহ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সিটিতে দুই শতাধিক বাংলাদেশিকে ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতি, মর্টগেজ জালিয়াতি, ব্যাংকের সঙ্গে প্রতারণাসহ বিভিন্ন ধরনের অপকর্মে লিপ্ত থাকার জন্যে জেলে নেয়া হলেও এই প্রথম জালিযাতি ও প্রতারণার অভিযোগে একজন বাংলাদেশি নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  

৪৬ বছর বয়সী সম্পা জামান থাকেন নিউইয়র্ক সিটির জ্যামাইকায় ১৮০ স্ট্রিটে। তিনি জাল ক্রেডিট কার্ডে বারবেরী, চ্যানেল, ব্লুমিংডেল নর্ডস্ট্রম, আপেল, হোম ডিপো, রেস্টুরেন্ট ডিপোসহ বিভিন্ন স্টোর থেকে স্বর্ণালংকার, ইলেক্ট্রনিক্স ইত্যাদি ক্রয় করেছেন। এরপর ঐসব দুর্বৃত্তচক্রের নেটওয়ার্কে স্বল্পমূল্যে বিক্রি করেছেন।

গ্রেফতার হওয়া অপর বাংলাদেশি প্রবাসীরা হলেন, মোহাম্মদ রানা (৪০), ইন্দারজিৎ সিং ওরফে গয়া এবং সনু (২৪), বিল্লাহ, তানভির সিধু ওরফে সানী (২৫), মহসিন খান ওরফে চাচা (৫৯), সেলিনা ওরফে পচো, সালিম রোডের মোহাম্মদ ইকবাল (৩০), মোহাম্মদ হাসান (৫২)।

জাল ক্রেডিট কার্ডসহ পরিচয়পত্র তৈরির চারটি মেশিন এবং নগদ চার লাখ ডলার, স্বর্ণের বার, চুরির অর্থে ক্রয় করা পাঁচটি গাড়ি, তিনটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ চুরি করা বহু প্রবাসীর তথ্য উদ্ধার করা হয়েছে।  

নিউইয়র্কের পুলিশ কমিশনার জেমস পি ও'নীল বলেন, এসব প্রতারক ও জালিয়াত চক্রের সদস্যদের গ্রেফতারের মধ্য দিয়ে গোটা কম্যুনিটিতে স্বস্তি এসেছে এবং যারা সব সময় নিজের গোপন তথ্য নিয়ে টেনশনে থাকেন, তারাও স্বস্তিবোধ করবেন।  

ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি ব্রাউন বলেন, গ্রেফতারকৃত ৩০ জনের মধ্যে ১৯ জনের বিরুদ্ধে ৩৮৯ ধরনের অভিযোগ করা হয়েছে। সংঘবদ্ধ অপরাধ চক্রের সদস্য হিসেবে এরা কুইন্সসহ আশপাশের এলাকায় ২০১৫ সালের এপ্রিল থেকে এ বছরের জানুয়ারির মধ্যে জাল ক্রেডিট কার্ডে প্রতারণার ঘটনাগুলো ঘটিয়েছে। সিটি ব্যাংক, ব্যাংক অব আমেরিকা, চেজ, আমেরিকা এক্সপ্রেসের সঙ্গে প্রতারণার এ ফাঁদ পাতা হয়েছিল। সম্পা জামানসহ অপর ১১ জনের বিরুদ্ধে ২৭৩ ধরনের অভিযোগ করা হয়েছে।  

১০ মার্চ শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত গ্রেফতারকৃতদের অধিকাংশই কারাগারে রয়েছেন বলে ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি অফিস থেকে জানানো হয়েছে।


বিডি প্রতিদিন/১১ মার্চ, ২০১৭/ফারজানা

আপনার মন্তব্য

up-arrow