Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৩ জুন, ২০১৮ ১২:৩৪ অনলাইন ভার্সন
মালয়েশিয়া মাতাবেন আইয়ুব বাচ্চু, পূর্ণিমাসহ একঝাঁক তারকা
মালয়েশিয়া প্রতিনিধি:
মালয়েশিয়া মাতাবেন আইয়ুব বাচ্চু, পূর্ণিমাসহ একঝাঁক তারকা

ঈদের পর ৩০ জুন একটি কনসার্টে অংশ নিতে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর যাচ্ছেন আইয়ুব বাচ্চু, ইমরান, মিলা, ফেরদৌস, পূর্ণিমা ও আবু হেনা রনি। ঈদ উৎসব নামে এ কনসার্টকে ঘিরে ইতোমধ্যে প্রবাসীদের মাঝে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।  কুয়ালালামপুর ও এর আশপাশের বাংলাদেশী অধ্যুষিত দোকান ও বিপনী বিতানগুলো’তে শোভা পাচ্ছে রং বে রংয়ের পোস্টার ও ব্যানার।  

আয়োজক কোম্পানি এজিডি পিক্সার্চে'র ফেইসবুক পেইজে বিভিন্ন ব্যানারের পাশাপাশি ইতোমধ্যে আপলোড করা হয়েছে আইয়ুব বাচ্চু'র একটি ভিডিও চিত্র যেখানে তিনি বলছেন আসছি মালয়েশিয়ায়, দেখা হবে ৩০ জুন শনিবার কুয়ালালামপুরে। একই ধরনের ভিডিও চিত্র প্রকাশ করা হয়েছে ফেরদৌস, পূর্ণিমা ও আবু হেনা রনি'র।
এ উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার রাতে কুয়ালালামপুরের একটি রেস্টুরেন্ট এ মালয়েশিয়া কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার প্রতিনিধিদের নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলন করে আয়োজন সংস্থা এজিডি পিক্সার্চ

এজিডি পিক্সার্চে'র চেয়ারম্যান দাতু সেলিম সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে একটি কনসার্টকে ঘিরে ঘটে যাওয়া কিছু ঘটনা মালয়েশিয়ায় আমাদের ভাবমূর্তি দারুনভাবে ক্ষুণ্ণ হয়েছে। ক্ষুণ্ণ হওয়া এই ভাবমূর্তি ফিরিয়ে আনতে এজিডি পিক্সার্চ এই কনসার্টটি করার উদ্যোগ নিয়েছে।
 
তিনি আরও বলেন, ঈদ এর সময় নানা জটিলতায় অনেকেই  দেশে যেতে পারেনা। বিপুল পরিমান এই প্রবাসীদের একটু বিনোদনের সুযোগ করে দিচ্ছে এজিডি পিক্সার্চ।
  
সংবাদ সম্মলনে বলা হয়, প্রবাসে দেশের ভাবমূর্তি অক্ষুণ্ণ রাখার দায়ভার কিছুটা হলেও প্রবাসীদের উপর বর্তায়। এছাড়া এই কনসার্টে'র মাধ্যমে সমগ্র মালয়েশিয়ায় একটি বার্তা পৌঁছে দিতে চাই যে, আমরা বাংলাদেশীরাও পারি একটি কোয়ালিটিপূর্ণ প্রোগ্রাম উপহার দিতে।

সংবাদ সম্মলনে উল্লেখ করা হয়, দর্শক মাতাতে মঞ্চে থাকবেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় ব্যান্ড এলআরবি, বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় শিল্পি ইমরান, মঞ্চ কাঁপানো শিল্পি মিলা, জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌস, অভিনেত্রী পূর্ণিমা ও কমেডিয়ান আবু হেনা রনি। থাকবেন স্থানীয় শিল্পী ইয়াসমিন আজিজ ও বাংলা গানে স্থানীয় শিল্পিদের নাচ।

অনুষ্ঠানস্থলে বিকাল ৪ টা থেকে ঢুকতে পারবেন দর্শকরা। নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তায় কাজ করবে স্থানীয় সিকিউরিটি সদস্যরা (রেলা)। ভিভিআইপি, ভিআইপি, গোল্ড ও সিলভার ক্যাটাগরিতে নির্দিষ্ট সংখ্যক টিকিটের ব্যবস্থা রয়েছে। পরিবার ও মেয়েদের জন্য পৃথক বসার ব্যবস্থাও রয়েছে।  প্রথমবারের মতো মোবাইলে টিকিট কেনার সুযোগ রাখা হয়েছে। এতে করে যে কেউ ঘরে বসে টিকিট কিনতে পারবেন। 

এছাড়া ঢাকা থেকে আসা ১৯ জন শিল্পী ও কলাকুশলিকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা থেকে শুরু করে স্টেজ পারফর্ম ও বিদায় পর্যন্ত সুন্দর ও পরিকল্পিত পরিকল্পনা রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাঙালি ও বাংলাদেশের এ সংস্কৃতি বিশ্বব্যাপি তুলে ধরার লক্ষে এজিডি পিক্সার্চ কাজ করছে। এজিডি পিক্সার্চ মূলত মালয়েশিয়ায় একটি প্রোডাকশান হাউজ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার লক্ষে এগুচ্ছে। 

সকলের সার্বিক সহযোগীতায় এজিডি পিক্সার্চ এসডিএনবিএইচডি একটি সুন্দর, গোছালো ও জমকালো কনসার্ট উপহার দিতে চায় বলে সংবাদ সম্মলনে দাবি করা হয়।


বিডি প্রতিদিন/১৩ জুন ২০১৮/হিমেল

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow