Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৭ আগস্ট, ২০১৮ ০২:১৮ অনলাইন ভার্সন
নিউইয়র্ক কন্স্যুলেটের জাতীয় শোক দিবস পালন
এনআরবি নিউজ, নিউইয়র্ক থেকে
নিউইয়র্ক কন্স্যুলেটের জাতীয় শোক দিবস পালন

বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, নিউইয়র্কে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী ও  জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে। 

গত ১৫ আগস্ট সকালে কনস্যুলেট ভবনে কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা কর্তৃক জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরনের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচী শুরু হয়। এরপর বিকেলে আলোচনা সভা এবং দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। 

এদিন জাতির পিতা, তার পরিবারের শহীদ সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বর্ণাঢ্য জীবনের উপর নির্মিত একটি প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়। শোক দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রেরিত বাণী পাঠ করা হয়। 

আলোচনা সভায় বক্তারা জাতির পিতার বর্ণাঢ্য জীবন ও অর্জন সম্পর্কে আলোকপাত করেন। তারা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ‘সোনার বাংলা’ গড়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে সমবেতভাবে কাজ করে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ গড়ার আহবান জানান। আলোচনা পর্বে অন্যান্যের মধ্যে জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন বক্তব্য রাখেন। 

কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা তার স্বাগত বক্তব্যে বঙ্গবন্ধুর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং বাঙালীর প্রতিটি ন্যায়সংগত আন্দোলনে তার নেতৃত্বস্থানীয় ভূমিকার কথা তুলে ধরেন। এ প্রসঙ্গে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার “ডিজিটাল বাংলাদেশ”, “ভিশন-২০২১” এবং “ভিশন-২০৪১” গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সবাইকে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহবান জানান। 

অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, বাংলাদেশ কমিউনিটির সদস্যবৃন্দ, সাংবাদিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিগণ, কনস্যুলেট জেনারেল ও জাতিসংঘে স্থায়ী মিশনের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ ছিলেন। বিশিষ্টজনদের মধ্যে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ, সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমান এবং লুৎফুল করিম, যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডার্স ফোরামের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রাশেদ আহমেদ, যুক্তরাষ্ট্র মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আব্দুল মুকিত চৌধুরীসহ মুক্তিযোদ্ধারা, আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসার, ডেমক্র্যাটিক পাটির নেতা আব্দুস শহীদ, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি ফাহিম রেজা নূর, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নেত্রী অধ্যাপিকা রানা ফেরদৌস চৌধুরী, প্রবীন সাংবাদিক সৈয়দ মুহম্মদউল্লাহ, কম্যুনিটি লিডার শাহাদৎ হোসেন, শফিকুল ইসলাম, মাওলানা সাইফুল আলম সিদ্দিকী, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।  

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং পরিবারের অন্য শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে ও দেশের অব্যাহত সমৃদ্ধির জন্য বিশেষ দোয়া পরিচালনা করা হয়। আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দের মাঝে আপ্যায়নের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।

      

বিডি প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত তাফসীর

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow