Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ২১ আগস্ট, ২০১৮ ২১:০৬ অনলাইন ভার্সন
উৎসবমুখর পরিবেশে স্পেনে ঈদুল আযহা উদযাপিত
বকুল খান, স্পেন
উৎসবমুখর পরিবেশে স্পেনে ঈদুল আযহা উদযাপিত
সকল ভেদাভেদ ভুলে উৎসবমুখর পরিবেশে ঈদুল আযহা উদযাপন করেছে স্পেনের প্রবাসিরা। ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে মাদ্রিদের বাংলাদেশি অধ্যুষিত লাভা-পিয়াসের কাসিনো পার্কের খোলা মাঠে। প্রায় ৭ হাজার প্রবাসীর উপস্থিতিতে গোটা এলাকা মিলনমেলায় রূপ নেয়।
 
শত ব্যস্ততার মাঝে এই একটা দিন সবাই একত্রে মিলিত হন উৎসবের আমেজে। বাংলাদেশিদের পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা কাসিনো পার্কে জড়ো হতে থাকেন সকাল থেকে। নানা দেশের নানা বর্ণের ভিন্ন ভিন্ন ভাষাভাষী মানুষ এক কাতারে শামিল হয়ে ঈদের নামাজ আদায় করেন।
 
প্রথম নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল সাড়ে ৮টা আর দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৯টায়। এদিকে, মাদ্রিদ ছাড়াও বার্সেলোনাসহ মালাগাতে পৃথক পৃথক ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
 
ঈদ জামাতে সামাজিক, রাজনৈতিক, দূতাবাসের কর্মকর্তা ছাড়াও কমিউনিটির শীর্ষ ব্যক্তিরা অংশ নেন। এর মধ্যে ছিলেন দূতাবাসের প্রধান ও মিনিস্টার হারুন আল রাশিদ, মসজিদ কমিটির সভাপতি খুরশেদ আলম মজুমদার। ঈদের দিনে নামাজে আগত মুসল্লিদের মিষ্টি বিতরণ করেন ইসলামি ফোরাম অব স্পেন। অনেক বাংলাদেশি নারীও এখানে ঈদের নামাজ আদায় করেন।
 
নামাজ ইমামতি করেন হাফেজ হাসান বিন মুহাম্মদল্লাহ। তিনি মুনাজাতে মুসলিম বিশ্বের সুখ, শান্তি এবং নিপীড়িত, নির্যাতিত মুসলমানদের জন্য দোয়া করেন।  এদিকে স্পেন নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার মাদ্রিদের বৃহৎ জামে মসজিদ ভেনতাসে অনান্য মুসলিম কূটনীতিকদের সাথে ঈদের নামাজ আদায় করেন সকাল সাড়ে ৮ টায়। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন কমার্শিয়াল কাউন্সিলার নাভিদ শফিউল্লাহ, প্রথম সচিব শরিফুল ইসলাম।
 
স্পেনের আইনে প্রকাশ্যে পশু জবাই করা যায় না। তাই মুসলমানরা শহর থেকে দূরে ফার্মগুলোতে গিয়ে গরু, খাসি, কিংবা ভেড়া কুরবানি দিয়ে থাকেন। অনেকেই মাংসের দোকানগুলোতে গিয়ে কুরবানির মাংস অর্ডার দিয়ে আনিয়ে নেন। 
 
বিডি প্রতিদিন/ফারজানা  

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow