Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ২০:০০ অনলাইন ভার্সন
কৃষকের বন্ধু দাঁড়াশ সাপ, দরকার বংশ বিস্তার
মো. রবিউল ইসলাম রঞ্জু:
কৃষকের বন্ধু দাঁড়াশ সাপ, দরকার বংশ বিস্তার

দাঁড়াশ সাপ, নির্বিষ প্রজাতির সাপ ও কৃষকের বন্ধু সাপ। ইঁদুর দাঁড়াশ সাপের সব থেকে প্রিয় খাদ্য বলে এই সাপের নামকরণ করা হয়েছে র‌্যাট স্নেক (Rate Snake)। একটা দাঁড়াশ সাপ প্রায় তিন বিঘা জমির ইঁদুর নিধন করতে সক্ষম বলেই এই সাপকে কৃষকের 'বন্ধু সাপ' বলা হয়। 

এ সাপ নিয়ে বিভিন্ন বেদে-সাপুড়িয়াদের ভ্রান্ত কিছু প্রচারণা রয়েছে। যেমন, দাঁড়াশ সাপের কোমরে বা লেজে কাঁটা আছে, সেই কাটা দিয়ে আঘাত করলে মানুষ মারা যায় এবং দাঁড়াশ সাপ গাভির বান থেকে দুধ চুষে খেয়ে থাকে। 

আসলে এই ধারনাগুলোর কোনো প্রকার বৈজ্ঞানিক যুক্তি বা প্রমাণ নেই। দাঁড়াশ সাপের কোমর বা লেজ নয়, শরীরের কোথাও এমন কোনো কাঁটা বা এ্যানজাইম নেই যে এ্যানজাইমের কারণে মানুষের কোনোপ্রকার ক্ষতি সাধন সম্ভব। কাজের ক্ষেত্রে আমি এই পর্যন্ত দুইবার দাঁড়াশ সাপের কামড় খেয়েছি। 

এছাড়া দাঁড়াশ সাপের গাভির বান থেকে দুধ চুষে খাওয়ার কোনো সাধ্য নেই। কারণ, সাপের জিহ্বা বিভক্ত, এজন্য সাপ কোনো কিছুই চুষে খেতে পারেনা। তথাপি ইঁদুরের হাত থেকে খাদ্যশষ্য রক্ষা করতে চাইলে অবশ্যই দাড়াজ সাপের বংশ বিস্তার ও সকল প্রকার জনসাধারণের মাঝে সঠিক তথ্য তুলে ধরা আবশ্যিক। 

দাঁড়াশ সাপ বংশ বিস্তার করতে পারলে খাদ্য শষ্যকে যেমন ইঁদুরের হাত থেকে রক্ষা করা সম্ভব ঠিক তেমনি পরিবেশের ভারসাম্য উন্নয়ন হওয়াটা স্বাভাবিক। 

আসুন আমরা সাপ হত্যা বন্ধ করি ও সাপের কামরের চিকিৎসার জন্য প্রতি জেলার সরকারি হাসপাতালে জরুরী বিভাগে যতো দ্রুত সম্ভব এন্টিভেনাম (বিশ প্রতিশেধক) পৌঁছানোর ব্যবস্থা করি। সাপ আমাদের মাঝে বেচে থাকুক চিরকাল।

মনে রাখবেন, সাপ মানেই কিন্তু বিষাক্ত নয়, সব সাপের বিষ হয় না। বেশিরভাগ প্রজাতির সাপ নির্বিষ।

লেখক: প্রধান উদ্যোক্তা, রাজবাড়ী স্নেক ফার্ম, কালুখালী, রাজবাড়ী।


বিডি প্রতিদিন/১৬ অক্টোবর ২০১৮/হিমেল

আপনার মন্তব্য

up-arrow