Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ৪ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ জুন, ২০১৬ ২২:২৬
আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানে ইন্টার্নশিপ করতে চাইলে

ইন্টার্নশিপ হয় মূলত ১০-১৪ সপ্তাহ ধরে। সেই সময়  মোটামুটি একজন ফুল-টাইম কর্মকর্তার মতই কাজ দেওয়া হয় ইন্টার্নদের।

এসব প্রতিষ্ঠানে ইন্টার্নশিপের আবেদন প্রসঙ্গে বৃষ্টি শিকদার জানান, ‘গুগল, ফেসবুক, মাইক্রোসফটের মতন আরও অনেক আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানেই ইন্টার্নশিপের সুযোগ রয়েছে। ইন্টার্নদের একজন করে ম্যানেজার আর একজন মেন্টর থাকে। ম্যানেজার কাজ দেন, আর মেন্টর সেই কাজটা করতে সাহায্য করেন।   ইন্টার্নশিপের প্রস্তুতি প্রথম বর্ষ থেকেই শুরু করা যায়। গুগল আর মাইক্রোসফটে প্রথম এবং দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের জন্য আলাদা ইন্টার্নশিপ আছে, যা তুলনামূলকভাবে অনেক সহজ পাওয়া যায়। তা ছাড়া যে কোনো বর্ষে থাকতেই একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ইন্টার্নশিপের জন্য আবেদন করতে পারে। বেশির ভাগ আন্তর্জাতিক ইন্টার্নশিপ হয় মে-সেপ্টেম্বরের দিকে। তবে গুগল এবং আরও কিছু কোম্পানিতে বছরজুড়েই ইন্টার্ন নেওয়া হয়। ইন্টার্নশিপের জন্য আবেদন করতে হবে অনলাইনে। মাইক্রোসফট, গুগল, ফেসবুকের মতো বড় কোম্পানিরা আমেরিকার বাইরে থেকে অনেক ইন্টার্ন নেয়। অতএব, যোগ্যতা থাকলে বাংলাদেশে থেকেও ইন্টার্নশিপ করা সম্ভব। ইন্টার্নশিপের অনলাইন আবেদনের পরে ইন্টারভিউ হয়। সেখানে অ্যালগরিথম এবং মাঝে মাঝে সিস্টেমের প্রশ্ন করা হয়। অ্যালগরিথমে ভালো হওয়াটা খুবই জরুরি।    আমার সাজেশন, বেশি বেশি করে আল্গরিথম শিখা আর পড়া। ইন্টার্নশিপে খুবই ভালো বেতন দেওয়া হয়। ১২ সপ্তাহের ইন্টার্নশিপের জন্য ১২-৩৫ হাজার ডলার পর্যন্ত বেতন দেয় কোম্পানিরা। বাংলাদেশ থেকে অন্য কোনো দেশ এ ইন্টার্নশিপ করার সুযোগ পেলে ভিসার দায়িত্ব কোম্পানি নেবে।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow