Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২১ অক্টোবর, ২০১৬ ২১:২১
অ্যাপ
অ্যাপ

গান ভালোবাসেন না এমন মানুষ নেহাতই কম। কেউ গান গেয়ে মন ভরান, কেউবা শুনে। এবার গানপাগলদের জন্য থাকছে অ্যাপ

 

ইউটিউব, সাউন্ডক্লাউড-সহ বেশ কয়েকটা প্ল্যাটফর্মে সহজে গান আপলোডও করা যায়। কিন্তু খালি গলায় গাওয়া গান সব সময় আপলোড করার মতো হয় না। সে ক্ষেত্রে যন্ত্রানুুষঙ্গ প্রয়োজন। চিন্তা নেই, তেমন অ্যাপও রয়েছে হাতের সামনে। তাই আর দেরি না করে স্মার্টফোনকে কাজে লাগিয়ে ফেলুন।

 

>> মিউজিকস ম্যাচ অ্যাপে রয়েছে বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন গানের লিরিকের বিশাল সম্ভার। এমনকি প্লে করা গানটির সঙ্গে অটোসিংক করে লিরিক চলতে থাকবে গানের তালে তালে। এ ছাড়া ম্যানুয়ালি গানের নাম, আলবামের নাম দিয়েও আপনি খুঁজে নিতে পারেন কাঙ্ক্ষিত লিরিক।

 

>> রেকর্ডিং স্টুডিও লাইটের মাধ্যমে আপনি গান রেকর্ডিংয়ের সঙ্গে বেশকিছু ইনস্ট্রুমেন্ট ফাইল ব্যবহার করতে পারবেন। প্রত্যেকটাই এমপিথ্রি ফরম্যাটে হবে। রেকর্ডিংয়ের পরে এডিট করার সুযোগও পাবেন।

 

>> মিক্স প্যাড মিউজিক মিক্সার ফ্রি এই অ্যাপের প্রধান বৈশিষ্ট্য, মিক্স-আপ। অর্থাৎ একটা গানের সঙ্গে আরেকটা গান মিশিয়ে নেওয়া। এডিটিং তো করতেই পারবেন। এ ছাড়া কমপ্রেশন, রিভার্বের মতো বেশকিছু স্পেশাল রেকর্ডিং ইফেক্টের সুবিধাও রয়েছে।

>> আই স্কাইসফট অডিও রেকর্ডার অ্যাপের মাধ্যমে রেকর্ডিংয়ের সঙ্গে গান ডাউনলোডও করতে পারবেন। এই অ্যাপে রেডিও স্টেশন থেকে গান ডাউনলোড করার সুবিধাও রয়েছে। এক অ্যাপেই সব! এ ছাড়া যে কোনো গান সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য পেয়ে যাবেন এই অ্যাপেই।

 

>> সাউন্ড অ্যান্ড ভয়েস রেকর্ডার—এএসআর মিউজিক রেকর্ডিংয়ের অ্যাপের মাধ্যমে গান রেকর্ডিংয়ের সময় বিভিন্ন সাউন্ড ইফেক্ট ব্যবহার করতে পারবেন। থ্রিজিপি, এমপি-ফোর, এএসি-সহ বিভিন্ন ফরম্যাটেই গান তৈরি করতে পারবেন। এডিটিং-সহ আরও নানা সুবিধা তো রয়েছেই।

 

>> মিউজিক মেকার জ্যাম অ্যাপটি ভিন্ন ধাঁচের অজস্র লুপ, বিটস এবং ইন্সট্রুম্যান্ট সোর্স রয়েছে। ১০০-এরও বেশি মিউজিক স্টাইল ও ৮ চ্যানেলের মিক্সার। মজার বিষয় হলো এতে মিক্স করতে পারবেন বিভিন্ন ইফেক্ট। ভয়েস রেকর্ডিংয়ের ফিচারও রয়েছে।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত
এই পাতার আরো খবর
up-arrow