Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:০৩
প্রথম মহাকাশ সংকেত উেসর সন্ধান
শনিবারের সকাল ডেস্ক
প্রথম মহাকাশ সংকেত  উেসর সন্ধান

গত বছর গবেষকরা বিশ্বের সবচেয়ে বড় রেডিও টেলিস্কোপ ব্যবহার করে দেখতে পান, আকাশের কিছু নির্দিষ্ট স্থান থেকে এই শব্দ ভেসে আসছে...

 

প্রতিনিয়তই মহাকাশ গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।   এবার সে ধারাবাহিকতায় নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে।

মহাকাশ থেকে প্রায়ই ভেসে আসে নানা রহস্যময় তরঙ্গ। কেউ কেউ দাবি করে এসব তরঙ্গ এলিয়েনদের পাঠানো সংকেত। আবার অনেক বিজ্ঞানী এতে ভিন্ন মত পোষণ করেন। মহাকাশে নানা গ্রহাণুর আন্তসংঘর্ষে সৃষ্টি হয় এসব তরঙ্গ। এমনটাও দাবি করেন অনেকেই। কিন্তু রহস্য রহস্যই থেকে যায়। এসব তরঙ্গের সত্যি উৎস মানুষের অজানাই থেকে যায়। তবে এবার প্রথমবারের মতো এমন এক তরঙ্গের উৎস উদঘাটন করতে পেরেছেন বিজ্ঞানীরা। ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া ইউনিভার্সিটির জ্যোতির্বিজ্ঞানী ডানকান লরিমার জানান, ‘প্রথমবারের মতো মহাকাশের অন্য কোনো উৎস থেকে রেডিও তরঙ্গের উৎস সম্পর্কে সন্ধান পাওয়া গেল। এটি একটি যুগান্তকারী আবিষ্কার। ’ ২৫০ কোটি আলোকবর্ষ দূরের একটি বামন আকৃতির ছায়াপথ থেকে ভেসে আসছে রহস্যময় এই তরঙ্গ। রেডিও তরঙ্গের হিসেবে এর দৈর্ঘ্য মিলি সেকেন্ড। ন্যাচার অ্যান্ড অ্যাস্ট্রোফিজিক্যাল জার্নালে এমন তথ্যই প্রকাশ পেয়েছে।

 

পৃথিবীর সময়ের হিসাবে প্রথমবারের মতো ২০০৭ সালে এই ধরনের রেডিও তরঙ্গের সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল। তবে বিজ্ঞানীরা সেই সময় মাত্র ১৮ সেকেন্ডের জন্য এর সংকেত রেকর্ড করতে পেরেছিলেন। তবে কোথা থেকে কীভাবে এই তরঙ্গ ভেসে আসছিল সে সম্পর্কে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেননি তখন কোনো মহাকাশ বিজ্ঞানী। মনে হচ্ছিল সম্পূর্ণ মহাকাশ থেকেই তরঙ্গ ভেসে আসছে। এই রেডিও তরঙ্গ ভেসে আসাকে জ্যোতির্বিদ্যার নতুন দিগন্ত খুলে যাওয়ার সঙ্গে তুলনা করছেন বিজ্ঞানীরা। অনেক বিজ্ঞানীর ধারণা, দূরবর্তী কোনো নক্ষত্রপুঞ্জ বিস্ফোরিত হয়ে এই তরঙ্গ ভেসে আসছে। অবশ্য কোনো কোনো বিজ্ঞানী জোর গলায় বলার চেষ্টা করছেন যে আমাদের ছায়াপথেই এই আওয়াজের উৎপত্তি। প্রকৃত ঘটনা  প্রথমবার ২০০৭ সালে যে তরঙ্গ পাওয়া গিয়েছিল সেটিকেও অনেকে দুটি বড় নক্ষত্রের সংঘর্ষের শব্দ বলে মনে করেছিলেন। তারপর এ তরঙ্গের উৎস খুঁজে যাওয়া যায়নি কখনো। গত বছর গবেষকরা বিশ্বের সবচেয়ে বড় রেডিও টেলিস্কোপ ব্যবহার করে দেখতে পান, আকাশের কিছু নির্দিষ্ট স্থান থেকে এই শব্দ ভেসে আসছে। কিন্তু আসলে এই তরঙ্গের উৎপত্তি কোথায় তা জানা যায়নি। বিজ্ঞানীদের ধারণা প্রায় আড়াইশ কোটি আলোকবর্ষ দূরের একটি ভিন্ন ছায়াপথ থেকে তরঙ্গটি ভেসে আসছে। আবার নিজের ভাবনা-কল্পনাতে ছড়িয়ে দিয়ে অনেকের ধারণা এটি কোনো উন্নত প্রযুক্তি সম্পন্ন এলিয়েনদের সংকেত!

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow