Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৩ মার্চ, ২০১৭ ২১:১১
বাংলাদেশির হাতে ব্রেক থ্রু পুরস্কার
[সেলিম শাহরিয়ার ও দীপঙ্কর তালুকদার]
বাংলাদেশির হাতে ব্রেক থ্রু পুরস্কার

বিশ্বজুড়ে বাংলাদেশিদের সাফল্যের গল্প প্রতিদিনই লেখা হচ্ছে। সেই সাফল্যের গল্পে আরও একটি অধ্যায় যোগ করেছেন সেলিম শাহরিয়ার আর দীপঙ্কর তালুকদার।

তিন মিলিয়ন ডলারের পদার্থবিজ্ঞানের ব্রেক থ্রু পুরস্কার পাচ্ছে মহাকর্ষ তরঙ্গ টিম। আর সেখানেই আমাদের দেশের দুই বিজ্ঞানীর নাম তারকার মতোই জ্বলজ্বল করছে। অসাধারণ বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারের জন্য বিশেষ এই পুরস্কার পান গবেষকরা। একটি নির্বাচন কমিটি এই পুরস্কারের জন্য মনোনীত করে। বিজ্ঞানী আইনস্টাইন ১০০ বছর আগে যে মহাকর্ষীয় তরঙ্গের কথা বলেছিলেন, তা শনাক্ত করার জন্য বিশেষ এই পুরস্কার পাচ্ছেন লেজার ইন্টারফেরোমিটার গ্র্যাভিটেশনাল-ওয়েভ অবজারভেটরি বা লাইগোর প্রতিষ্ঠাতা রোনাল্ড ডব্লিউ পি ড্রিভার, কিপ এস থ্রোন, রেইনার ওয়েসিসসহ এই আবিষ্কারের সঙ্গে যুক্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ১ হাজার ১২ জন বিজ্ঞানী। দুই ব্ল্যাকহোলের (কৃষ্ণগহ্বর) মিলনের ফলে সৃষ্ট মহাকর্ষ তরঙ্গ ধরা পড়েছে বিজ্ঞানীদের যন্ত্রে, ১০০ বছর আগে যার কথা বলেছিলেন আইনস্টাইন। ২০০৭ থেকে দীপঙ্কর মহাকর্ষ তরঙ্গ গবেষণা শুরু করেন। লাইগো সায়েন্টিফিক কোলাবরেশনের সদস্য হন ২০০৮ সালে। এ মুহূর্তে তিনি অরিগন বিশ্ববিদ্যালয়ে লাইগো সায়েন্টিফিক কোলাবরেশনের হয়ে কাজ করছেন। ১০ বছর ধরে সেলিম কাজ করছেন লাইগোর তরঙ্গ শনাক্তকারী যন্ত্রের সংবেদনশীলতা ও ব্যান্ডউইথ বাড়ানোর জন্য। লাইগো (এলআইজিও) মানে হলো লেজার ইন্টারফেরোমিটার গ্র্যাভিটেশনাল-ওয়েভ অবজারভেটরি। সেলিম বলেছিলেন, ‘আইনস্টাইন যখন এই ধারণা দেন, তখন এটা ছিল কল্পনারও অতীত যে আমরা এত সূক্ষ্ম পরিমাপ করতে পারব। এতই সূক্ষ্ম যে এটা মাপার কথা কল্পনা করাও কঠিন ব্যাপার। ’

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow