Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৩ মার্চ, ২০১৭ ২১:২২
ভারোত্তোলনে সেরা
[মাবিয়া আক্তার সীমান্ত]
ভারোত্তোলনে সেরা

১২তম দক্ষিণ এশীয় বা এসএ গেমসে বাংলাদেশের জন্য ভারোত্তোলনে প্রথম সোনার পদক এনে দিয়েছেন মাবিয়া আক্তার সীমান্ত। ভারতের গুয়াহাটিতে অনুষ্ঠানরত এসএ গেমসে মেয়েদের ৬৩ কেজি ওজনের শ্রেণিতে সোনা জিতেছেন মিস আক্তার।

তিনি ১৯৯৯ সালে মাদারীপুর জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। মাবিয়ার বাবা হারুনুর রশিদ একজন মুদি দোকানের মালিক। ভারোত্তোলনে মাবিয়ার আসা মামা শাহাদত কাজীর হাত ধরে ২০১০ সালে। ২০১২ সালে দক্ষিণ এশীয় ভারোত্তোলন প্রতিযোগিতায় মাবিয়া একটি ব্রোঞ্জ পদক জেতেন। ২০১৩ সালের কমনওয়েলথ ভারোত্তোলন প্রতিযোগিতায় রৌপ্য পদক পান। দরিদ্র পরিবার থেকে আসায় মাবিয়া কষ্টের সঙ্গে জীবন ধারণ করেন। প্রয়োজনের অনেক কিছুই তিনি পাননি। দরিদ্রতার জন্য একসময় তার পড়াশোনা বন্ধ হয়ে যায়। তবে এশীয় গেমস থেকে এই গৌরব অর্জনের পর বর্তমানে সে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার সুযোগ পেয়েছেন। তিন ভাইবোনের মধ্যে স্বর্ণকন্যা মাবিয়া আক্তার সীমান্ত সবার ছোট। বাবা-মা, এমনকি মাবিয়াও কখনো ভাবেনি যে দেশের মানুষ তার নাম মুখে নিতেই গর্বিত হবে। সোনার মেডেল গলায় বাংলাদেশের জাতীয় সংগীতে তার অশ্রুসজল মুখ সেদিন আরও লাখো বাঙালিকে আনন্দে কাঁদিয়েছে। পরিবারের অনুপ্রেরণা আর সবার সহযোগিতায় মাবিয়া হয়ে উঠেছেন স্বর্ণকন্যা। মাবিয়ার সফলতার ঝুলিতে আছে প্রায় ৩০টি পদক। ন্যাশনাল ওমেন চ্যাম্পিয়নশিপে একাধিকবার ১ম ও ২য় হওয়ার গৌরব অর্জন করে মাবিয়া খাতুন। এ ছাড়াও মাবিয়া কমনওয়েলথ ইউথ চ্যাম্পিয়নশিপ, সাউথ এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ, এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের মতো প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে সম্মানজনক স্থান অর্জন করেন।

এই পাতার আরো খবর
সর্বাধিক পঠিত
up-arrow