Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৬ জুন, ২০১৬ ২৩:৩৪
তামিমের সেঞ্চুরিতে সুপার লিগে আবাহনী
ক্রীড়া প্রতিবেদক
তামিমের সেঞ্চুরিতে সুপার লিগে আবাহনী
তামিমকে অভিনন্দন জানাতে ছুটে এলেন নাজমুল হাসান শান্ত —বাংলাদেশ প্রতিদিন

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের চলতি আসরে প্রথম থেকেই দারুণ ব্যাট করছিলেন জাতীয় দলের ড্যাসিং ওপেনার তামিম ইকবাল। চার চারটা হাফসেঞ্চুরিও ছিল। কিন্তু সেঞ্চুরি পাচ্ছিলেন না। গতকাল ক্রিকেট কোচিং স্কুলের বিরুদ্ধে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে অপরাজিত সেঞ্চুরি করেছেন আবাহনীর অধিনায়ক। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে তামিমের হার না মানা ১০৫ রানে সুবাদে ৯ উইকেটের বড় জয় পেয়েছে আবাহনী। জয় পেয়েছেন প্রাইম ব্যাংকও। প্রাইম দোলেশ্বরকে তারা ডার্কওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ৭ উইকেটে হারিয়েছে। দুই কলাবাগানের মধ্যকার ম্যাচটির ফলাফল হয়নি। মাশরাফির কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের বিরুদ্ধে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৩৫ রানেই ৪ উইকেট হারায় কলাবাগান ক্রিকেট একাডেমি। ১৪.২ ওভার খেলা হওয়ার পর মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত আর খেলা মাঠে গড়ায়নি। খেলার বাকি অংশ আজ হবে। গতকাল একাডেমির পতন ঘটা চার উইকেটের মধ্যে দুটি-ই নিয়েছেন মাশরাফি। এ পর্যন্ত লিগে তার উইকেট সংখ্যা হয়ে গেল ২২টি। আজ আর মাত্র দুটি উইকেট পেলেই হয়ে যাবেন সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি বোলার। তবে মাশরাফির কাছে নিজের উইকেট শিকারের চেয়ে দলের জয় অনেক বড়। সুপার লিগে যেতে হলে তার দলকে জিততে হবে বড় ব্যবধানে।

বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠে গতকাল আবাহনীর বিরুদ্ধে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ২০৫ রান করে সিসিএস। ৯৫ রান আসে অধিনায়ক রাজিন সালেহর ব্যাট থেকে। ৫০ রান করেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। ৩৫ রানে তিন উইকেট নেন সাকিব আল হাসান। ২০৬ রানের সহজ টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে আবাহনী এক উইকেট হারিয়ে ১২ ওভারে ৬২ রান করার পর বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। পরে যখন খেলা শুরু হয় তখন আবাহনী লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৫ ওভারে ১৬৮ রান। আর কোনো উইকেট না হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় আবাহনী। তামিম ৮৬ বলে করেন অপরাজিত ১০৫। বাউন্ডারি ১১টি, ছক্কা ৪টি। এছাড়া শান্ত ৭০ বলে খেলেছেন অপরাজিত ৫৩ রানের ইনিংস। এই জয়ে সুপার লিগ নিশ্চিত হয়ে গেল আবাহনীর।

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে প্রাইম ব্যাংকের বিরুদ্ধে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১৮৮ রানেই অলআউট হয়ে যায় দোলেশ্বর। পরে বৃষ্টির কারণে খেলা দেরিতে শুরু হওয়ায় প্রাইম ব্যাংকের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৬ ওভারে ১৬৫ রান। মাত্র তিন উইকেট হারিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় তারা। ৫৭ বলে ৬২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হয়েছেন সাব্বির রহমান। ভারতীয় ব্যাটসম্যান উন্মুখ চাঁদ ৭৪ বলে খেলেছেন ৫৭ রানের অপরাজিত ইনিংস। এই জয়ের পরও সুপার লিগ নিশ্চিত নয় প্রাইম ব্যাংকের।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow