Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৯ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ৮ জুন, ২০১৬ ২৩:০১
মুশফিকের ব্যাটে মোহামেডানের হাসি
মেজবাহ্-উল-হক
মুশফিকের ব্যাটে মোহামেডানের হাসি

ছোট ভায়রার কাছে হেরে গেল বড় ভায়রা! ক্যাপ্টেন মুশফিকুর রহিম নিজেই অপরাজিত ৬৬ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে মোহামেডানকে জিতিয়ে দিলেন। এই পরাজয়ে সুপার লিগে খেলার আশা শেষ হয়ে গেল মাহদুল্লাহ রিয়াদের শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের। দলীয় জয়ের পাশাপাশি ব্যক্তিগত লড়াইয়েও ‘ছোট ভায়রা’ মুশফিকের কাছে হেরে গেছেন ‘বড় ভায়রা’ মাহমুদুল্লাহ। গতকাল মিরপুরে মুশফিক তার ইনিংসে যে দুটি ছক্কা হাঁকিয়েছেন দুটি-ই মাহমুদুল্লাহর বলে।

৬ উইকেটে পাওয়া এই জয়ে সুপার লিগ নিশ্চিত করে ফেলল মোহামেডান— সেই সঙ্গে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষেও উঠে গেছে। মাঠ ভেজা থাকায় কাল খেলা দেরিতে শুরু হওয়ায় ৫০ ওভারে ম্যাচ হয় ৪২ ওভারে। উইকেট থেকে বাড়তি সুবিধা পেতে টস জিতে প্রথম ফিল্ডিং নেন মোহামেডানের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। বিদেশি রিক্রুট বিপুল শর্মার ঘূর্ণিতে শেখ জামালকে ১৮৭ রানে আটকে দেয় মোহামেডান। শর্মা ৯ ওভারে ২৪ রান দিয়ে নেন ৪ উইকেট।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মুশফিক ও নাঈমের হাফ সেঞ্চুরিতে ৩২.২ ওভারেই জিতে যায় মোহামেডান। মুশফিক ৮২ বলে খেলেন হার না মানা ৬৬ রানের ইনিংস। দুই ছক্কার সঙ্গে সাতটি বাউন্ডারি। নাঈম ৫২ বলে করেন ৫১ রান। ৮টি বাউন্ডারি।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে গতকাল লিস্ট-এ ক্রিকেটে ৬ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন মুশফিকুর রহিম। মুশফিক যখন ব্যাট হাতে নামেন তখন ১৮ রান দূরে ছিলেন। ১৩ ওভারে মুক্তার আলীর বলে সিঙ্গেল নিয়েই ৬ হাজার রান পূরণ করেন। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে মোহামেডানের জয় নিশ্চিত করেই কাল মাঠ ছেড়েছেন জাতীয় টেস্ট দলের এই অধিনায়ক। এর আগে ব্যাটসম্যান হিসেবে ৬ হাজার রান পূরণ করেছেন তামিম ইকবাল। মোহামেডানের জয়ে লিগের জটিল সমীকরণ সহজ হয়ে গেছে। যদিও বৃষ্টির কারণে মাঠ ভেজা থাকায় বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠে রূপগঞ্জ ও ব্রাদার্সের ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়নি। আজ রিজার্ভ ডে-তে খেলা অনুষ্ঠিত হবে। এই ম্যাচে জিতলে মোহামেডানকে টপকে শীর্ষে উঠে যাবে রূপগঞ্জ। আর ব্রাদার্স জিতে গেলে রেলিগেশন লিগ খেলা থেকে বেঁচে যাবে তারা।

গতকাল ভিক্টোরিয়া-গাজী গ্রুপের ম্যাচও হওয়ার কথা ছিল! কিন্তু আগের দিন রাতে হঠাৎ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হয়, ম্যাচটি অনিবার্য কারণে একদিন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। এতে অবশ্য বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। কেননা মোহামেডান-শেখ জামালের ম্যাচের ফলের ওপর গাজী গ্রুপের সমীকরণ নির্ভর করছিল। গতকাল যদি শেখ জামাল জিতে যেত তাহলে জয়ের পাশাপাশি নেট রানরেটও বাড়াতে হতো। কিন্তু মোহামেডান জিতে যাওয়ায় এখন ভিক্টোরিয়ার বিরুদ্ধে জয় পেলেই সুপার লিগে চলে যাবে গাজী। এখন তাদের পয়েন্ট ১০। কলাবাগান ক্রীড়া চক্র ও প্রাইম ব্যাংকের পয়েন্ট ১২ করে। জিতলে গাজীর পয়েন্টও হবে ১২, কিন্তু তাদের নেট রানরেট বেশি থাকায় বাড়তি সুবিধা পেয়ে যাবে।

আম্পায়ারিং নিয়ে বিতর্ক ছিল প্রথম থেকেই। একটি বিশেষ দলকে বাড়তি সুবিধা দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এবার অভিযোগ উঠেছে গাজী গ্রুপকে বাড়তি সুবিধা দিতেই কিনা ম্যাচটি একদিন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে! অবশ্য আজ যদি ভিক্টোরিয়া জিতে যায় তাহলে সব গুঞ্জনই মাটি চাপা পড়ে যাবে— বাদ পড়ে যাবে গাজী গ্রুপ। তখন পঞ্চম দল হিসেবে প্রাইম ব্যাংকই চলে যাবে সুপার লিগে।




up-arrow