Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১০ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৯ জুন, ২০১৬ ২২:৫২
ফেডারেশন কাপের পর্দা উঠছে
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ফেডারেশন কাপের পর্দা উঠছে

১৯৮০ সাল থেকে ফেডারেশন কাপের যাত্রা।   এরপর থেকেই ফুটবল মৌসুমের শুরুটা হতো ফেডারেশন কাপ দিয়েই।

এবারই তার ব্যতিক্রম ঘটল। মৌসুমের সূচনা ঘটে স্বাধীনতা কাপের মাধ্যমে। মৌসুমের দ্বিতীয় ট্রফি হিসেবে ২০১৬ ফেডারেশন কাপের পর্দা উঠছে আজ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বিকাল ৪টায় উদ্বোধনী ম্যাচে লড়বে ঢাকা মোহামেডান ও রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস ক্লাব। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মুখোমুখি হবে ঢাকা আবাহনী ও আরামবাগ। এবারে চার গ্রুপে বিভক্ত হয়ে ১২টি দল আসরে অংশ নিচ্ছে। ‘এ’ গ্রুপে খেলবে ঢাকা আবাহনী, ফেনী সকার, আরামবাগ। ‘বি’ গ্রুপে শেখ রাসেল, মুক্তিযোদ্ধা কেসি, চট্টগ্রাম আবাহনী। ‘সি’ গ্রুপে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন শেখ জামাল ধানমন্ডি, ব্রাদার্স ইউনিয়ন, উত্তর বারিধারা। ‘সি’ গ্রুপে ঢাকা মোহামেডান, টিম বিজেএমসি ও রহমতগঞ্জ। গ্রুপ পর্যালোচনা করে দেখা যায় ‘বি’ গ্রুপই কঠিন। শক্তির বিচারে শেখ রাসেল ও চট্টগ্রাম আবাহনীর শেষ আটে খেলা সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু মুক্তিযোদ্ধাকে ফেলে দেওয়া যাবে না। দলে তারকা খেলোয়াড় না থাকলেও স্বাধীনতা কাপে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স প্রদর্শন করেছে। আগামীকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শেখ রাসেল ও চট্টগ্রাম আবাহনী গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মুখোমুখি হবে। স্বাধীনতা কাপে চ্যাম্পিয়ন হয় চট্টগ্রাম আবাহনী। ফাইনালে তারা ঢাকা আবাহনীকে ২-০ গোলে পরাজিত করে। সেমিতে ঢাকা আবাহনী ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত করে শেখ জামালকে। অন্য সেমিতে প্রথম গোল করেও চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে দুর্ভাগ্যক্রমে টাইব্রেকারে হেরে যায় শেখ রাসেল। শক্তির বিচারে এই চার দলেরই শিরোপা জেতার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে অন্য দলগুলো জ্বলে উঠতে পারে। আইনি জটিলতার কারণে মামুনুল-জামাল ভূঞাসহ আট ফুটবলার স্বাধীনতা কাপ খেলতে পারেনি। ফেডারেশন কাপে খেলবেন তারা। তাদের উপস্থিতিতে নিঃসন্দেহে আসরের আকর্ষণ বাড়বে। ফেডারেশন কাপ শেষ হওয়ার পরই ১৫ জুলাই থেকে পেশাদার লিগ মাঠে গড়ানোর কথা। ভুলত্রুটি শুধরিয়ে নিতে এই টুর্নামেন্ট কাজে আসবে। স্বাধীনতা কাপ শেষ হওয়ার পর লম্বা গ্যাপ গেলেও দলগুলো অনুশীলন চালিয়ে গেছে ঠিকই। বিশেষ করে শেখ রাসেল ও চট্টগ্রাম আবাহনীতে তারকার ছড়াছড়ি। দুটি দলই চাইবে ট্রফি জিততে। চট্টগ্রাম লিগ ছাড়া চট্টগ্রাম আবাহনীর ঘরোয়া আসরে ছিল ট্রফিহীন। গত বছর শেখ কামাল আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট জেতার পর এবার স্বাধীনতা কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়। মামুনুলরা ফেরাতে দলের শক্তি আরও বৃদ্ধি পাবে। জামাল ভূঞা ও এস কে রানা ফেরায় শেখ রাসেলও নতুন শক্তি নিয়ে মাঠে নামবে। ঢাকা আবাহনী ও শেখ জামালও নিশ্চয় ছেড়ে কথা বলবে না।

ফেডারেশন কাপে সবচেয়ে সফল দল ঢাকা মোহামেডান। টানা চারবারসহ সর্বোচ্চ দশবার শিরোপা জেতার রেকর্ড রয়েছে তাদের। ২০১০ সালের পর থেকে তারা সুবিধা করতে পারছে না। সহজ গ্রুপে পড়লেও দলের যে শক্তি তাতে মোহামেডান কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে পারবে কিনা এ নিয়ে সংশয় রয়েছে। ১৫ জুন গ্রুপ পর্বের খেলা শেষ হবে। ১৭, ১৮, ১৯, ২০ জুন চার কোয়ার্টার ফাইনাল, ২২, ২৩ জুন দুই সেমি ও ২৬ জুন ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে।

up-arrow