Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১৫ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৪ জুন, ২০১৬ ২৩:১৬
কোয়ার্টারে আবাহনী, মোহামেডান আউট
আবাহনী ১ : ০ ফেনী সকার মোহামেডান ১ : ২ বিজেএমসি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
কোয়ার্টারে আবাহনী, মোহামেডান আউট
গোল করার পর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আবাহনীর ফুটবলারদের উল্লাস —বাংলাদেশ প্রতিদিন

স্বাধীনতা কাপের চ্যাম্পিয়ন চট্টগ্রাম আবাহনী। ওয়ালটন ফেডারেশন কাপের শিরোপার অন্যতম দাবিদার ছিল। কিন্তু গ্রুপ পর্বই পেরুতে পারেনি জাতীয় দলের তারকানির্ভর দলটি। একই অবস্থায় হাঁটতে শুরু করেছিল ঢাকা আবাহনী। আরামবাগের কাছে হেরে প্রায় বিদায়ের পথে এসে দাঁড়িয়েছিল ধানমন্ডি পাড়ার দলটি। কোয়ার্টার ফাইনালে খেলার আশা জিইয়ে রাখতে ফেনী সকারকে হারাতেই হতো। এমন সমীকরণের ম্যাচে আবাহনী ১-০ গোলে হারিয়েছে ফেনী সকারকে। খেলার একমাত্র গোলটি করেন আবাহনীর ইংলিশ ফুটবলার লি টাক। লি টাক গোলটি করেন মাত্র ৪৫ সেকেন্ডে। যা ঘরোয়া ফুটবলে সবচেয়ে দ্রুততম সময়ে গোলের রেকর্ড। এই জয়ে ২ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে আবাহনীর অবস্থান ‘এ’ গ্রুপে রানার্সআপ। আরামবাগের পয়েন্ট সমসংখ্যক ম্যাচে ৪। কঠিন সমীকরণের ম্যাচে জিততে আক্রমণাত্মক মেজাজে মাঠে নামে আবাহনী। রেফারির শুরুর বাঁশি বাজার সঙ্গে সঙ্গে আক্রমণে ঝাঁপিয়ে পড়ে আবাহনী। ৪৫ সেকেন্ডে গোল করে চমকে দেন লি টাক। রেফারির বাঁশিতে খেলা শুরুর সঙ্গে সঙ্গে স্ট্রাইকার নাবিব নেওয়াজ জীবন বল বাড়িয়ে দেন আগুয়ান সানডে চিজোবাকে। চিজোবা বল ধরতেই ডান প্রান্ত ধরে ছুটতে থাকেন ইংলিশ মিডফিল্ডার লি টাক। চিজোবা তখন বল বক্সের ডান প্রান্তে মাইনাস করেন। বলটি ধরে লি টাক কোনাকুনি শটে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেন (১-০)। ১৯ মিনিটে গোলসংখ্যা দ্বিগুণ করার সহজ সুযোগ হারায় আবাহনী। লি টাকের ক্রসে ব্যাক হিল করেন জীবন। বল যায় সানডের পায়ে। কিন্তু নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার সানডে তাড়াহুড়া করতে যেয়ে বাইরে মারেন। শুরুর ধাক্কা সামলে আক্রমণে আসে ফেনী সকার। ৩২ মিনিটে কাউন্টার অ্যাটাকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলে আবাহনীকে। প্রতিপক্ষের গোলরক্ষক শহিদুল আলম সোহেলকে ফাঁকা পেয়েও বাইরে মারেন ফেনীর স্ট্রাইকার আকবর হোসেন রিদন। প্রথমার্ধে আর কোনো গোল হয়নি। দ্বিতীয়ার্ধে খেলার গতি বাড়াতে আবাহনীর কোচ জর্জ কোটান একাদশে বদল আনেন। জীবনকে বদলে ওয়াহেদকে মাঠে নামান কোটান। কিন্তু তাতেও লাভ হয়নি। আবাহনী কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেও ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছে। গতকাল তারা ২-১ গোলে হেরে যায় টিম বিজেএমসির কাছে। বিজেএমসির তপু ২ ও মোহামেডানের এহসান গোলগুলো করেন। এ জয়ে বিজেএমসি গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। রানার্সআপ হয়েছে রহমতগঞ্জ।

up-arrow