Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • চাটাইয়ে মুড়িয়ে প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় সম্মান!
  • কেরানীগঞ্জে বাচ্চু হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি, ৭ জনের যাবজ্জীবন
  • ৩ মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে খালেদার আবেদন
  • হালদা নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা ভাঙার নির্দেশ
  • আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা
  • কাদেরের বক্তব্যে একতরফা নির্বাচনের ইঙ্গিত: রিজভী
  • কলারোয়া সীমান্তে স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ বাংলাদেশিকে ফেরত দিল বিএসএফ
  • বিএনপি নির্বাচনে না এলেও গণতন্ত্র অব্যাহত থাকবে: কাদের
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৬ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৫ জুন, ২০১৬ ২৩:৩০
মোহামেডানকে লজ্জায় ডোবালো আবাহনী
ক্রীড়া প্রতিবেদক
মোহামেডানকে লজ্জায় ডোবালো আবাহনী

জয়ের ব্যবধান ২৬০ রান! আবাহনীর স্কোর ৩৭১/৫। মোহামেডান ১১১/১০! ঘরোয়া লিগের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ম্যাচটা হয়ে গেল সবচেয়ে ম্যাড়মেড়ে। লজ্জার রেকর্ড গড়ে মোহামেডান হেরে গেল আবাহনীর কাছে।

লিটন কুমার দাস ও দিনেশ কার্তিকের সেঞ্চুরি আর সাকিব আল হাসানের অলরাউন্ড পারফরম্যান্স— যেন এক ফুৎকারে উড়ে গেল মোহামেডান! অথচ এই দলটাই লিগ পর্বে আবাহনীর বিরুদ্ধে জয় পেয়েছিল ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে। আর কাল লজ্জায় ডুবল। এর আগে আবাহনীর বিরুদ্ধে কখনো এতো বড় ব্যবধানে হারেনি মোহামেডান।

লিটন ১২৫ বলে করেছেন ১৩৯ রান, কার্তিক ৯৭ বলে ১০৯ —দুই সেঞ্চুরির সঙ্গে সাকিবের সাইক্লোন গতির ৫৭ রান। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার মাত্র ২৪ বলে করেছেন এই রান। ৫টি বিশাল ছক্কার সঙ্গে দুটি দৃষ্টিনন্দন বাউন্ডারি। গতকাল সাকিবের স্টাইকরেট ছিল ২৩৭.৫০। টি-২০ ক্রিকেটেও এমন স্টাইকরেট ঈর্ষণীয় যেকোনো ব্যাটসম্যানের জন্য। বল হাতে সাকিব তো আরও ভয়ঙ্কর। ৬.৩ ওভার বোলিং করে মাত্র ১৮ রান দিয়ে নিয়েছেন ৫ উইকেট। সাকিবের তাণ্ডবীয় বোলিংয়ে ২৪.৩ ওভারে মাত্র ১১১ রানেই অলআউট হয়ে যায় মোহামেডান। মতিঝিলের ঐতিহ্যবাহী দলটির পক্ষে সর্বোচ্চ ৩২ রান করেছেন নাঈম ইসলাম। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৬ রান এসেছে মুশফিকুর রহিমের ব্যাট থেকে। এছাড়া আরিফুল ১৭ ও ইমন করেছেন ১১ রান। বাকিদের কেউ দুই অঙ্কের কোটাতেই পৌঁছাতে পারেননি।

আবাহনীর ব্যাটসম্যানরা তো রীতিমতো রানের বন্যা বইয়ে দিয়েছেন। যদিও দুই সেরা ব্যাটসম্যান তামিম ও শান্ত দ্রুতই আউট হয়ে গিয়েছেন। কিন্তু তৃতীয় উইকেট জুটি থেকে শুরু হয় আবাহনীর তাণ্ডব। কার্তিকের সঙ্গে ২৫ ওভারের জুটিতে ১৬২ রান তোলে লিটন। চতুর্থ উইকেট জুটিতে সাকিবের সঙ্গে কার্তিকের জুটিতে রান এসেছে বিদ্যুৎ গতিতে। এই জুটিতে ১০১ রান এসেছে মাত্র ৫২ বলে।

রান খরায় ভুগতে থাকা লিটন দাসকে চার নম্বর থেকে ওপেনিংয়ে নিয়ে আসার পরই যেন বদলে গেলেন। খেললেন দারুণ এক ইনিংস। এবারের প্রিমিয়ার লিগে লিটনের এটি প্রথম সেঞ্চুরি। ঢাকা এসে প্রথম ম্যাচেই সেঞ্চুরি করলেন দিনেশ কার্তিকও। দুই তারকা ব্যাটসম্যানের দাপুটে সেঞ্চুরিতে জিতে শিরোপার আশা উজ্জ্বল করল আবাহনী। অন্যদিকে শিরোপা দৌঁড় থেকে অনেক ছিটকে গেল মোহামেডান।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow