Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ২৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৬ জুন, ২০১৬ ২২:৩৪
আবাহনীর নবম না আরামবাগের প্রথম
ক্রীড়া প্রতিবেদক
আবাহনীর নবম না আরামবাগের প্রথম
ফেডারেশন কাপের ফাইনাল আজ। গতকাল ট্রফি হাতে আবাহনীর অধিনায়ক আরিফ ও আরামবাগের অধিনায়ক মিতু —বাংলাদেশ প্রতিদিন

রাত জেগে ফুটবলপ্রেমীরা উপভোগ করছেন ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের গতির ফুটবল। উপভোগ করেছেন কোপা আমেরিকা কাপে ল্যাটিনীয় দলগুলোর শৈল্পিক ও দৃষ্টিনন্দন ফুটবল।

আজ কোপা আমেরিকা কাপের শতবর্ষীয় আসরের ফাইনাল। ২৩ বছরের বন্ধ্যত্ব ঘুচাতে মাঠে নামবে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা এবং শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখতে লড়বে অ্যালেক্স স্যাঞ্জেজের চিলি। সংবাদটি যখন পাঠকের হাতে পৌঁছবে তখন জেনে যাবেন কোপা আমেরিকা কাপের ট্রফিটা কার হাতে? মেসি না স্যাঞ্জেজের। ফুটবলপ্রেমীরা ব্যস্ত ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ ও কোপা আমেরিকা কাপ নিয়ে। তখন বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হচ্ছে আবাহনী ও আরামবাগ ক্রীড়া চক্র। বিকাল সাড়ে ৩টায় ওয়ালটন ফেডারেশন কাপের ফাইনাল খেলবে দুদল। আবাহনী লড়বে নবম বারের মতো শিরোপা জিততে এবং মতিঝিল পাড়ার দলটির টার্গেট ইতিহাস গড়ে প্রথম শিরোপা জয়।  

শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র, শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব, মোহামেডান স্পোর্টিংয়ের মতো বড় বড় ক্লাবগুলোকে পেছনে ফেলে ফাইনালে জায়গা করে নেয় আরামবাগ। দুরন্ত ফুটবল খেলে দলটি লিগপর্বে হারিয়েছিল আবাহনীকে।

সেই আবাহনীর বিপক্ষে ফের মুখোমুখি হচ্ছে ফাইনালে। আবাহনী এবার চাইবে প্রতিশোধ। বিপরীতে আরামবাগ চাইবে লিগ পর্বের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে। শিরোপা ধরে রাখার জন্য মরিয়া হয়ে খেলবে আরামবাগ, বললেন দলের কোচ সাইফুল বারী টিটু, ‘শক্তির বিচারে আরামবাগের চেয়ে অনেক এগিয়ে আবাহনী। কিন্তু আমাদের ফুটবলাররা ক্ষুধার্ত চ্যাম্পিয়ন হতে। প্রথমবারের মতো শিরোপা জিততে মরিয়া হয়ে খেলবে। ’ আরামবাগ এর আগে ১৯৯৭ ও ২০০১ সালে ফাইনালে উঠেছিল। কিন্তু আবাহনীর কাছে ২-১ গোলে এবং মুক্তিযোদ্ধার কাছে ৩-০ গোলে হেরে রানার্স আপেই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল। এবার মরিয়া শিরোপা জিততে। দলটি চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মতোই খেলছে। গ্রুপ পর্বে আবাহনীকে হারানোর পর শেখ জামালকে হারায় কোয়ার্টার ফাইনালে। সেমিফাইনালে পিছিয়ে থেকেও ৩-১ গোলে হারায় টিম বিজেএমসিকে।

ফেডারেশন কাপের সবচেয়ে সফল দুটি দলের একটি আবাহনী। মোহামেডান সর্বোচ্চ ১০ বার শিরোপা জিতেছে। আবাহনীর ভাণ্ডারে শিরোপা ৮টি। আজ নবম শিরোপার সন্ধানে নামবে জর্জ কোটানের শিষ্যরা। ধানমন্ডি পাড়ার দলটি সর্বশেষ ফেডারেশন কাপ জিতেছিল ২০১০ সালে। পেশাদার লিগের শিরোপা জিতেছিল ২০১১-১২ মৌসুমে। এরপর আর কোনো শিরোপা জেতা হয়নি দলটির। যদিও চলতি মৌসুমের প্রথম টুর্নামেন্ট স্বাধীনতা কাপের ফাইনালে উঠেছিল দলটি। কিন্তু চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে ২-০ গোলে হেরে রানার্স আপ হতে হয় আকাশি-হলুদ শিবিরকে। এবার জর্জ কোটানের হাত ধরে শিরোপা বন্ধ্যত্ব ঘুচাতে বদ্ধপরিকর আবাহনী। চার সপ্তাহ আগে দায়িত্ব নেওয়া ২০০৩ সালের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের চ্যাম্পিয়ন কোচ কোটান জানিয়েছেন ফাইনালের জন্য আবাহনী পুরোপুরি প্রস্তুত,  ‘আমরা পুরোপুরি প্রস্তুত। গত তিন সপ্তাহ ধরে ফুটবলাররা কঠোর পরিশ্রম করেছেন। তপু ও লি টাক এখন সুস্থ। আজ জেতার জন্যই খেলব আমরা। আমি জেতার বিষয়ে আশাবাদীও। এজন্য আমরা আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলব। গ্রুপপর্বে আরামবাগের কাছে ১-০ গোলে হেরেছিল আবাহনী। ওই হারের কথা মাথায় রয়েছে আকাশি-হলুদ শিবিরের অধিনায়ক আরিফুল ইসলামের, ‘ম্যাচ জেতার বিষয়ে আমি শতভাগ আশাবাদী। স্বাধীনতা কাপে ভালো খেলিনি। তাই চ্যাম্পিয়ন হতে পারিনি। ’

ফেডারেশন কাপের ফাইনালে পুরস্কার দিবেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার। বিশেষ অতিথি হিসেবে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান জাহিদ আহসান রাসেল এমপি উপস্থিত থাকবেন। এর বাইরে বাফুফের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরাও থাকছেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow