Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০১৭

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৮ জুন, ২০১৬ ০০:০৩
অভিমানে সরে দাঁড়ালেন মেসি
আমার পক্ষে সম্ভব এমন সবকিছুই করেছি। চারটা ফাইনালে ছিলাম আমি। এরপরও চ্যাম্পিয়ন হতে না পারাটা সত্যিই কষ্টের
ক্রীড়া ডেস্ক
অভিমানে সরে দাঁড়ালেন মেসি

লিওনেল মেসি এগিয়ে এলেন টাইব্রেকারে আর্জেন্টিনার পক্ষে প্রথম পেনাল্টি শট নিতে। নিউ জার্সির ইস্ট রাদারফোর্ডে মেটলাইফ স্টেডিয়ামের ৮২ হাজার দর্শক চরম উৎকণ্ঠা নিয়ে তাকিয়ে আছে গোলপোস্টের দিকে। গ্যালারির দর্শক ছাড়াও দুনিয়াজুড়ে ফুটবলভক্তরা দেখছিলেন চরম উদ্বেগের এই টাইব্রেকার। লিওনেল মেসি চিলিয়ান গোলরক্ষক ক্লাউডিও ব্রাভোকে ধোঁকা দিতে পারলেন ঠিকই। কিন্তু লক্ষ্যভ্রষ্ট হলো পেনাল্টি শটটি। ভিন্ন দিকে ঝাঁপিয়ে পড়েও ব্রাভো স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন লিওনেল মেসির ভুলে। আর এ ভুলের ক্ষমা মেসির কাছেও ছিল না। জার্সিতে মুখ লুকিয়ে মাঠ ছাড়ার সময়ই হয়তো সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। আর নয়, চারটা ফাইনালে ব্যর্থ হবার পর সময় এসেছে জাতীয় দলের জার্সি খুলে রাখার। পুরস্কার-পর্ব শেষ হওয়ার পর সাংবাদিকদের সামনে এসে ঠিক এই কথাটাই সোজা-সাপ্টা বলে দিলেন মেসি। আন্তর্জাতিক ফুটবলে আর দেখা যাবে না আর্জেন্টাইন জাদুকরকে।

‘আমার জন্য জাতীয় দলে খেলা এখানেই শেষ। আমার পক্ষে সম্ভব এমন সবকিছুই করেছি। চারটা ফাইনালে ছিলাম আমি। এরপরও চ্যাম্পিয়ন হতে না পারাটা সত্যিই কষ্টের। আমার এবং দলের জন্য সময়টা কঠিন। এ সময় বিদায় নেওয়াটা হয়ত ঠিক নয়, তবে আমি আর আর্জেন্টিনায় খেলছি না। ’ লিওনেল মেসি তার বিদায়ী বক্তব্যে এভাবেই ব্যাখ্যা করছিলেন সবকিছু। ১১৩ ম্যাচে আর্জেন্টিনার জার্সিতে ৫৫ গোল করেছেন মেসি। জাতীয় দলের হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতা। আরও কতসব দারুণ ম্যাচ উপহার দিয়েছেন ভক্তদের। কিন্তু একটা শিরোপাই কেবল জেতা হলো না তার। এই ক্ষোভ আর ধরে রাখতে পারলেন না মেসি। তার বিদায়ের কথা শুনে নাকি আর্জেন্টিনার আরও অনেকেই বিদায়ের কথা ভাবছেন। আগুয়েরো বলেছেন, ‘মেসি কেবল একাই বিদায় নিচ্ছেন না। আরও অনেকেই বিদায় নিতে যাচ্ছেন। ’ আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনা বলেছিলেন, ‘কোপা আমেরিকা জিততে না পারলে তোমরা আর দেশে এসো না। ’ ম্যারাডোনার কথাই হয়ত বাস্তবে রূপ দিচ্ছেন মেসি। এবার কেবল বার্সেলোনা নিয়েই ভাববেন তিনি। নাকি স্পেনের প্রস্তাবটা বিবেচনা করে দেখবেন! অনেক আগেই স্পেন তাকে নাগরিকত্ব দিয়েছে। এবার স্পেনের জার্সি গায়ে জড়ালে তাকে কে নিষেধ করবে! এসব ভবিষ্যতের বিতর্ক। বর্তমানটা হলো, আর্জেন্টিনা যদি লিওনেল মেসিকে জাতীয় দলে ফেরাতে ব্যর্থ হয় তবে আরও একটা অন্ধকার যুগ দেখতে হবে তাদেরকে। মেসিহীন আগুয়েরো, হিগুয়েন, ডি মারিয়া কিংবা লেভেজ্জিরা দুরন্ত আর্জেন্টিনার কঙ্কাল বৈ তো নন!

এই পাতার আরো খবর
up-arrow