Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ২ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৪১
প্রাথমিক দলে বঞ্চিতদের গল্প
মেজবাহ্-উল-হক
প্রাথমিক দলে বঞ্চিতদের গল্প

পারফরম্যান্স, বয়স, ভবিষ্যৎ সম্ভাবনা এবং চূড়ান্ত দলের জন্য বিবেচিত হওয়ার মতো যেসব ক্রিকেটার রয়েছেন তাদের নিয়েই গঠন করা হয় প্রাথমিক দল। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বহুল আলোচিত নির্বাচক প্যানেল ও নির্বাচক কমিটি মিলে যে ৩০ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছেন তাতে কি শতভাগ স্বচ্ছতা ছিল! নাকি কাউকে কাউকে বঞ্চিত করা হয়েছে। যদিও সবাইকে নেওয়া তো আর সম্ভব নয়। কিন্তু সদ্য সমাপ্ত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে দুর্দান্ত পারফর্ম করেও তো অনেকে বঞ্চিত হয়েছেন।

আল-আমিন! পেসার আল আমিন হোসেন নয়! অলরাউন্ডার আল-আমিন। বয়স মাত্র ২২। এখনো জাতীয় দলের খেলার সুযোগ পাননি। সদ্য সমাপ্ত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ব্যাট হাতে ৬৭২ রান। একটি সেঞ্চুরির সঙ্গে সাতটি হাফ সেঞ্চুরি। গড় ৪৮। স্টাইক রেটও দারুণ ৮৮.০৭।

বল হাতে ১৬ উইকেট নেওয়ার পর জাতীয় দলের স্বপ্ন দেখছিলেন। কিন্তু সে স্বপ্ন পূরণ হয়নি। ৩০ সদস্যের প্রাথমিক দলে জায়গা হয়নি আল-আমিনের।

প্রিমিয়ার লিগে তৃতীয় রান সংগ্রাহক ছিলেন আবদুল মজিদ। ২৫ বছর বয়সী ভিক্টোরিয়ার এই ওপেনার ৪৪.১২ গড়ে করেছিলেন ৭০৬ রান। দুটি সেঞ্চুরি ছাড়াও ৫টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে মজিদের। লিগে দুর্দান্ত খেলার পরও জাতীয় দলের প্রাথমিক দলে জায়গা হয়নি তার। সেপ্টেম্বরের ৩০ তারিখ বাংলাদেশ সফরে আসছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল। এই সফরে তারা বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে। যেহেতু ঘরের মাঠেই হবে খেলা, তাই মজিদ হতে পারতো জাতীয় দলের ট্রাম্পকার্ড। তা ছাড়া তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেনিংয়ে এখনো সেট হতে পারেননি কোনো ব্যাটসম্যান। শেষ কয়েকটি ওয়ানডেতে সৌম্য সরকার দুর্দান্ত ব্যাটিং করলেও এখন ফর্মহীনতায় ভুগছেন। টি-২০ এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপে সুবিধা করতে পারেননি তিনি। তা ছাড়া ঘরোয়া লিগেও ব্যর্থ সৌম্য। তাই হয়তো আশায় ছিল মজিদ। কিন্তু সে আশায় গুড়েবালি।

দুর্দান্ত ব্যাটিং করার পরও প্রাথমিক স্কোয়াডে জায়গা হয়নি ওপেনার শামসুর রহমান শুভর। লিগে শামসুর ৫৫.৮০ গড়ে করেছেন ৫৫৮ রান। একটি সেঞ্চুরির সঙ্গে চারটি হাফ সেঞ্চুরি। গাজী গ্রুপ সুপার লিগে উঠতে ব্যর্থ হওয়ায় ১১ ম্যাচের বেশি খেলতে পারেননি শামসুর। সুপার লিগে খেলার সুযোগ পেলে হয়তো লিগের সর্বোচ্চ স্কোরারও হতে পারতেন। তারপরও প্রাথমিক দলে উপেক্ষিত হয়েছেন তিনি।

চূড়ান্ত দলে জায়গা না পেলেও প্রাথমিক দলের জন্য যোগ্যই ছিলেন আল-আমিন, আবদুল মজিদ ও শামসুর রহমান শুভ। কিন্তু নির্বাচক কমিটি ও নির্বাচক প্যানেলের যেন মন ভরেনি তাদের পারফরম্যান্সে।

পারফরম্যান্স ও বয়সের কথা চিন্তা করলে প্রাথমিক দলে সুযোগ পেতেই পারতেন নাজমুল হোসেন শান্ত। বাঁ-হাতি এই ব্যাটসম্যান ৪১.৫০ গড়ে করেছেন ৫৩৭ রান। গত বছর ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপেও দাপট দেখিয়েছেন শান্ত। তারপরও প্রাথমিক তালিকায় তার নাম নেই।

শান্ত প্রাথমিক দলে থাকলে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে অনুশীলন করার সুযোগ পেতেন। চূড়ান্ত দলে সুযোগ না পেলেও তার অভিজ্ঞতার ঝুলি আবও সমৃদ্ধ হতো। কেননা শান্তর মতো উদীয়মান ক্রিকেটাররাই তো আগামী দিনে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেবেন।

জাতীয় দলের হয়ে টি-২০ বিশ্বকাপ খেলছেন পেসার আবু হায়দার রনি ও বাঁ-হাতি স্পিনার সাকলাইন সজীব। তারা দুজনই বাদ পড়েছেন প্রাথমিক দল থেকে। রনি এবারের লিগে আহামরি কোনো পারফর্ম করতে পারেননি। তবে সাকলাইন সজীব তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি বোলার । ১৬ ম্যাচে তিনি নিয়েছেন ২৬ উইকেট। তা ছাড়া এবার লিগে সেরা বোলিং ফিগারের মালিকও সাকলাইন। শেষ ম্যাচে আবাহনীর হয়ে খেলতে নেমে প্রাইম ব্যাংকের বিরুদ্ধে সাত উইকেট নিয়েছেন। তারপরও ৩০ জনের তালিকায় নাম নেই সজীবের।

এবার লিগে ৬২০ রান করেছেন আসিফ আহমেদ রাতুল। গড় ৬২। সেঞ্চুরি করতে না পারলেও সাতটি হাফ সেঞ্চুরি ছিল। ২৩ বছর বয়সী এই তারকাও প্রাথমিক দলে নির্বাচিত হতে পারতেন।

 

এই পাতার আরো খবর
up-arrow