Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৫ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ জুলাই, ২০১৬ ০০:৩৪
ইউরো নিয়ে দুই তারকার ভাবনা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ইউরো নিয়ে দুই তারকার ভাবনা

ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের উত্তেজনা তুঙ্গে। শেষ চার অর্থাৎ সেমিফাইনালে এসে ঠেকেছে— লড়াই। ৬ জুলাই প্রথম সেমিতে পর্তুগাল-ওয়েলস। ৭ জুলাই আরেক সেমিতে মুখোমুখি দুই বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি ও ফ্রান্স। ফাইনালে খেলবে কারা? বা কে হবে ইউরোপ সেরা, এর হিসাব-নিকাস শুরু হয়ে গেছে। এবার ইউরোতে অঘটনের শেষ নেই। নেদারল্যান্ডের মতো শক্তিশালী দেশ চূড়ান্ত পর্বে জায়গা করে নিতে পারেনি। গত দুইবারের চ্যাম্পিয়ন স্পেন শেষ ষোল থেকে বিদায় নিয়েছে। চূড়ান্ত পর্বে খেলতে এসে রীতিমতো চমক দেখিয়েছে ওয়েলস। দুর্দান্ত পারফরম্যান্স প্রদর্শন করে তারা শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছে। ওয়েলসকে চেনে মূলত বেলের কারণেই। রিয়াল মাদ্রিদে খেলেই তিনি বিশ্ব ফুটবলে পরিচিত লাভ করেছেন। ফেবারিটদের পেছনে ফেলে ওয়েলসের সেমিতে উঠা তা ছিল ধারণার বাইরে। ২০০৪ সালে গ্রিস ইউরো জিতে বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছিল। এবার প্রথমবার খেলতে এসেই ওয়েলস যে পারফরম্যান্স প্রদর্শন করছে তাতে শুধু ফাইনাল নয়, চ্যাম্পিয়ন হলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। চমক দেখিয়েছে ফুটবলে অপরিচিত দেশ আইসল্যান্ডও। অচেনা-অজানা খেলোয়াড় নিয়ে অভিষেক আসরেই কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে। যদিও ফ্রান্সের কাছে ৫-২ গোলে হেরে বেশি দূর আর যেতে পারেনি।

দুই সেমিফাইনালে কি হবে? বা শিরোপা জেতার সম্ভাবনা কার এ নিয়ে কথা হয় জাতীয় দলের সাবেক দুই ফুটবলার শফিকুল ইসলাম মানিক ও শেখ মো. আসলাম। মানিক বর্তমানে শেখ জামালের কোচ। তিনি বলেন, শুনলে হয়তো অনেকে অবাক হবেন, তারপরও বলছি এবারের ইউরোর সঙ্গে আমাদের ফেডারেশন কাপের মিল রয়েছে। ফেডারেশন কাপে ঢাকা আবাহনী যোগ্য দল হিসেবেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু তার আগে ফল দেখুন। প্রত্যাশার বাইরে ফল হয়েছে বেশি। ইউরোতে ঠিক তেমনি। তারপরও বলব যারা সেমিতে এসেছে যোগ্যতা দেখিয়েই এত দূর এসেছে। পর্তুগাল-ওয়েলস প্রথম সেমিতে লড়বে। বাংলাদেশে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর ভক্তের সংখ্যা একেবারে কম নয়। আমি নিজেও রোনালদের খেলা পছন্দ করি। কিন্তু পারফরম্যান্সের বিচারে সেমিতে আমি ওয়েলসকে এগিয়ে রাখতে চাই। বিশেষ করে বেলজিয়ামের বিরুদ্ধে ওয়েলস যে খেলাটা খেলেছে তা ধরে রাখতে পারলে তাদের জয় পাওয়াটা কষ্টের কিছু হবে না। অন্যদিকে রোনালদো আবার জ্বলে উঠতে পারলে ম্যাচে ভাগ্য বদলেও যেতে পারে। আরেক সেমিতে বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি ও সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। সেমি হলেও মূলত এটাকেই ফাইনাল বলা যায়। হাই ভোল্টেজ ম্যাচ। নিজেদের মাঠ ও সমর্থকের জন্য ফ্রান্স বাড়তি সুবিধা পাবে। তাই বলে ম্যাচ জিতবে বলা যাবে না। টেনশনের লড়াই। যারা গোলের সুযোগ কাজে লাগাতে পারবে তারাই জিতবে। শেখ মো. আসলাম বলেন, আমাদের ফেডারেশন কাপে নাটকীয়তায় কমতি ছিল না। এবার ইউরোতেও তাই দেখা যাচ্ছে। ঈদের ছুটি ভালোভাবেই উপভোগ করবে ফুটবলপ্রেমীরা। পর্তুগাল-ওয়েলস, অন্যদিকে ফ্রান্স-জার্মানি। ফাইনালে কারা খেলবে বলা মুশকিল। তবে পারফরম্যান্সের বিচারে আমি প্রথম সেমিতে ওয়েলসে এগিয়ে রাখতে চাই। বাকিটা দারুণ লড়াই হবে। সুযোগ কাজে লাগানোর ওপর নির্ভর করবে ফ্রান্স বা জার্মানির ফাইনাল খেলা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow