Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ১০ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ জুলাই, ২০১৬ ০০:১১
‘স্বপ্নের নায়ক’ রোনালদো
ক্রীড়া ডেস্ক
‘স্বপ্নের নায়ক’ রোনালদো

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো এরই মধ্যে চারটি ভিন্ন উয়েফা ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে গোল করে নতুন রেকর্ড গড়েছেন। ২০০৪ সাল থেকে প্রতিটা ইউরো কাপেই গোল করেছেন রোনালদো। তবে আরও একটা রেকর্ড তাকে হাতছানি দিচ্ছিল। ইউরো ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা মিশেল প্লাতিনিকে ছাড়িয়ে যাওয়ার হাতছানি। ইউরো কাপের সেমিফাইনালে ওয়েলসের বিপক্ষে ম্যাচের ৫০ মিনিটে গোল করেই ফরাসি কিংবদন্তি মিশেল প্লাতিনির পাশে স্থান করে নেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। রোনালদো ছাড়াও সে ম্যাচে গোল করেন ন্যানি। পর্তুগাল জয় পায় ২-০ গোলের। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সামনে এবার প্লাতিনিকে ছাড়িয়ে যাওয়ার হাতছানি। ফাইনালে স্বাগতিক ফ্রান্সের বিপক্ষে গোল করতে পারলে তিনি কেবল প্লাতিনিকে ছাড়িয়ে যাওয়ার রেকর্ডই গড়বেন না বরং প্রথমবারের মতো পর্তুগালকে উপহার দিতে পারবেন ইউরো কাপের শিরোপাও।

কোপা আমেরিকায় ফাইনাল খেলেছেন বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি। ব্যর্থ হয়েছেন তিনি। ফাইনালে চিলির কাছে হেরে গেছে আর্জেন্টিনা টাইব্রেকারে। কিন্তু লিওনেল মেসি ব্যর্থ হয়েছেন বলে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরও ব্যর্থ হতে হবে নাকি! প্রথমবারের মতো পর্তুগালকে ইউরো কাপের শিরোপা উপহার দিতে বদ্ধ পরিকর রিয়াল মাদ্রিদের এ পর্তুগিজ তারকা। বর্তমান ফুটবল দুনিয়ায় মেসি-রোনালদোর দ্বৈতরথটা সবখানেই। এমনকি দুজন দুজনের প্রতিপক্ষ থাকেন সাত-সমুদ্র আর তের-নদী দূরে থাকলেও। কোপা আমেরিকা আর ইউরো কাপ দুইটা সম্পূর্ণ ভিন্ন স্থানের ভিন্ন টুর্নামেন্ট হলেও দুজনের মধ্যে চলছে অঘোষিত লড়াই। মেসি যা পারেননি, রোনালদো তা পারবেন বলে বাজি ধরছে তার ভক্তরা। কিন্তু সত্যিই কি তাই! লিওনেল মেসির সামনে ছিল অনেকটা সহজ প্রতিপক্ষ চিলি। আর রোনালদোর সামনে আছে দুরন্ত ফরাসিরা। যাদের এর আগেও দুইটা ইউরো কাপ আর একটা বিশ্বকাপ জেতার অভিজ্ঞতা রয়েছে। আর নিজেদের মাটিতে খেলা হলে ফরাসিদের শক্তি যেন বহুগুণ বেড়ে যায়। যেমনটা দেখা গিয়েছিল ১৯৯৮ সালে বিশ্বকাপে। ফাইনালে দুর্দান্ত ব্রাজিলকে নিয়ে কি ছেলেখেলাই না খেলেছিল ফরাসিরা। এবারেও কী পর্তুগালকে নিয়ে তাই করতে যাচ্ছেন জিদানের উত্তরসূরিরা! অবশ্য এবার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো বড় বাধা হয়ে আছেন ফরাসিদের শিরোপা উৎসবের পথে। ৩১ বছরের রোনালদো ভালো করেই জানেন, এমন সুযোগ আর কখনোই আসবে না।

up-arrow