Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ১০ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ জুলাই, ২০১৬ ০০:১৮
সাকিবের লড়াইয়ের পরও জ্যামাইকার হার
ক্রীড়া ডেস্ক

প্রথম দুই ম্যাচে উল্লেখ করার মতো পারফরম্যান্স ছিল না বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের। তারপরও ক্যারিবীয় প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) জিতেছে সাকিবের দল জ্যামাইকা তালওয়ার্স। তৃতীয় ম্যাচে সাকিব রান করলেন। উইকেট নিলেন। কিন্তু দল জিতল না। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের লড়াইকে বৃথা করে ৭ উইকেটের বড় জয় তুলে নেয় গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স। বৃহস্পতিবার রাতে গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে জ্যামাইকা। স্বাগতিক দলের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের মুখে অসহায় আত্মসমর্পণ করে ১৮ ওভারে ১০০ রানে গুটিয়ে যান সাকিবরা। আগের দুই ম্যাচের দুর্দান্ত পারফরমার অধিনায়ক গেইল প্রথম বলেই ফিরে যান রানের খাতা না খুলে। সেই ধাক্কা সামলাতে ব্যর্থ হয় জ্যামাইকা। প্রথম ২৪ রানে উপরের সারির তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে দল যখন পুরোপুরি কোণঠাসা, তখন চতুর্থ উইকেট জুটিতে রোভম্যান পাওয়েলকে নিয়ে ৫১ রান যোগ করেন সাকিব। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার ব্যক্তিগত ২৫ রানে সাজঘরে ফেরার আগে ২৩ বলের ইনিংসটিতে ১টি ছক্কা হাঁকান। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরার আগে পাওয়েল খেলেন ৩৮ রানের ইনিংস। পারমিউল, সোহেল তানভীর, এমরিক ও জাম্পার আক্রমণাত্মক বোলিংয়ে জ্যামাইকার শেষ ৭ উইকেটের পতন হয় মাত্র ২৫ রানে।   ২০ রানের খরচে ৩ উইকেট নিয়ে গায়ানার সফর বোলার ছিলেন পারমিউল। ১০১ রানের টার্গেটে ২ ওভার হাতে রেখেই জিতে নেয় গায়না। যদিও শুরুটা ভালো ছিল না স্বাগতিকদের। ১১ রানে হারিয়েছিল দুই ওপেনার যুইন স্মিথ ও মাইর্টন গাপটিলকে। এরপর অবশ্য লিন ৩৯ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। লিনের ৩৫ বলের ইনিংসটিতে ছিল ৩টি ছক্কা ও ১টি চার। শেষ দিকে বাম্বের ২৭ রানে অপরাজিত থাকেন। সাকিব ৪ ওভারের স্পেলে ২১ রানের খরচে তুলে নেন জেমস মোহাম্মদের উইকেট।

up-arrow