Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২৯ জুলাই, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২৯ জুলাই, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৫ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৪ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৩১
বাংলাদেশের পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে অস্ট্রেলিয়া
ক্রীড়া ডেস্ক
বাংলাদেশের পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে অস্ট্রেলিয়া

গুলশানের হলি আর্টিজান এবং কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলা ভীষণ প্রভাব ফেলেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটের ওপর। শুধু ক্রিকেট নয়, জীবনযাত্রায়ও অস্বস্তির জন্ম দিয়েছে। জঙ্গি হামলায় ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফর এখন অনিশ্চয়তার গ্যাঁড়াকলে আটকে পড়েছে। যদিও সফর বাতিল করার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কিছুই বলেনি ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ড কিছু না বললেও অনিশ্চয়তার এই পালে হাওয়া দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। ২০১৭ সালে বাংলাদেশ সফরে টেস্ট সিরিজ খেলতে আসার কথা বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। কিন্তু দলটি জঙ্গি হামলার অজুহাতে সটকে যেতে চাচ্ছে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড তেমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন সে দেশের মিডিয়াকে। সিএ-এর সিইও বাংলাদেশের পরিস্থিতির ওপর তীক্ষ নজর রাখার কথা বলেছেন অস্ট্রেলিয়ার মিডিয়া ‘ওয়ান নিউজ নাও’কে।  

গত অক্টোবরে দুই টেস্ট ম্যাচের সিরিজ খেলার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ার। কিন্তু হঠাৎ নিরাপত্তার অজুহাতে সফরে আসতে অপারগতা জানায় বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। সফর স্থগিত করার আগে চারদিন বাংলাদেশ সফর করে অস্ট্রেলিয়া ও সে দেশের ক্রিকেট বোর্ডের নিরাপত্তা  কর্মকর্তারা। সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু তাতে স্বস্তি পায়নি অস্ট্রেলিয়া। সফর স্থগিত করে জানায় ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর কিংবা অক্টোবরে আসবে। এ পর্যন্ত সবই ঠিক ছিল। হঠাৎ গুলশান এবং শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার পর নড়েচড়ে বসেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ঘটনায় স্তম্ভিত গোটা বিশ্ব। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও এর বাইরে নয়। সিএ প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড জানিয়েছেন, বাংলাদেশের উদ্ভূত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রাখছেন তারা। এতে করে সিরিজটি আবার সন্দেহের দোলাচালে দুলতে শুরু করলো। সফর নিয়ে সাদারল্যান্ড বলেন, ‘আমরা এখনই বেশিদূর ভাবতে চাই না। কেননা এখনো অনেক সময় বাকি। তাই আরও কিছু দেখা বাকি আছে। ’ ইংল্যান্ড সফর নিয়ে সাদারল্যান্ড বলেন, ‘আমাদের আগে ইংল্যান্ডের বাংলাদেশ সফরে যাওয়ার কথা। আমরা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন। তবে এ নিয়ে এখনই আমাদের কিছু বলার নেই। আমরা পরিস্থিতি দেখবো এবং যাচাই-বাছাই করেই প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে হাঁটবো। ’ অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল না আসলেও একদিনের সফরে অস্ট্রেলিয়ান ফুটবল দল এসেছিল। সকারুরা ঢাকায় এসেছিল বিশ্বকাপ ফুটবলের বাছাইপর্ব খেলতে। ম্যাচের আগের রাত ঢাকায় পা রাখে অস্ট্রেলিয়া ফুটবল দল এবং ম্যাচ খেলেই রাতে ঢাকা ছাড়ে।

দুই টেস্ট ও তিন ওয়ানডে খেলতে ৩০ সেপ্টেম্বর ঢাকায় আসার কথা ইংল্যান্ডের। কিন্তু জঙ্গি হামলার পর থেমে গেছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। যদিও আসা, না আসার বিষযে কিছুই জানায়নি দেশটি। বাংলাদেশও সিরিজটি আয়োজনের আশায় রয়েছে। বিসিবির সিইও নিজামুদ্দিন সুজন জানিয়েছেন, নিরপেক্ষ ভেন্যুতে সিরিজ খেলবে না বাংলাদেশ। অনূর্ধ্ব-১৯ যুব বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ আয়োজন করেছে সফলভাবে। এজন্যই সিরিজটি আয়োজনে আশাবাদী।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow