Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৩২
চার দলের চোখ ওপরের দিকে
পেশাদার লিগের প্রস্তুতি
ক্রীড়া প্রতিবেদক

স্বাধীনতা কাপ, ফেডারেশন কাপ শেষ। টুর্নামেন্ট দুটি খেলে দলগুলো গুছিয়ে নিয়েছে নিজেদের। স্বাধীনতা কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনী। ফেডারেশন কাপের শিরোপাজয়ী ঢাকা আবাহনী। দুই আবাহনী শিরোপা জিতলেও শেখ রাসেল, শেখ জামাল, মোহামেডান, মুক্তিযোদ্ধা, আরামবাগ, ফেনী সকার, টিম বিজেএমসি, রহমতগঞ্জ, ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও উত্তর বারিধারা কিন্তু নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী সেরা দলই গড়েছে। দলগুলো আসন্ন  বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ভালো করতে মরিয়া। বিপিএলে কোন দল কোন ধরনের পারফরম্যান্স করতে চাচ্ছে, সেটা মিডিয়ার মুখোমুখিতে জানাচ্ছে। প্রথমদিন নিজেদের টার্গেটের কথা জানায় চার ক্লাব। গতকাল মিডিয়ার মুখোমুখিতে বিপিএলে নিজের টার্গেটের কথা জানায় দুই শিরোপা প্রত্যাশী চট্টগ্রাম আবাহনী ও মোহামেডান এবং ফেনী সকার ও টিম বিজেএমসি। আজ পরিচিতি পর্বে নিজেদের অবস্থানের কথা জানাবে শেখ রাসেল. আবাহনী, উত্তর বারিধারা ও রহমতগঞ্জ। ২৪ জুলাই বিপিএল মাঠে গড়াবে চট্টগ্রামে। বিপিএলের ম্যাচগুলো এই প্রথম দেশের সাত ভেন্যুতে খেলা হবে। গতকাল পর্যন্ত এমনই ছিল। কিন্তু টুর্নামেন্ট কমিটির অসমাপ্ত মিটিংয়ে জানা গেছে, দলগুলো নিরাপত্তার অজুহাতে ঢাকার বাইরে খেলতে রাজি হচ্ছে না।

পরিচিত সভায় স্বাধীনতা কাপ জয়ী চট্টগ্রাম আবাহনীর ম্যানেজার শাকিল মাহমুদ চৌধুরী ও অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম দলের টার্গেটের কথা জানান। অনুষ্ঠানে হেড কোচ জোসেফ পাভলিক উপস্থিত ছিলেন না। তার অনুপস্থিতিতে অধিনায়ক মামুনুল বলেন, ‘ফেডারেশন কাপে আমাদের পারফরম্যান্স ভালো ছিল না। ফেডারেশন কাপের ভুলগুলো শুধরে লিগে খেলতে হবে। আবাহনী, মোহামেডান, শেখ রাসেল এবং শেখ জামালের মতো বড় দল থাকায় চ্যাম্পিয়ন হওয়া সহজ হবে না। শিরোপা জিততে হলে এদের চেয়ে ভালো খেলতে হবে। ’ অবশ্য ম্যানেজার শাকিল জানিয়েছেন দলের টার্গেট শিরোপা, ‘আমরা চ্যাম্পিয়ন হতেই খেলবো। ’ ঢাকার বাইরের ভেন্যুগুলোতে খেলতে রাজি মামুনুল বলেন, ‘ঢাকার বাইরে খেলতে যাওয়াটা কষ্টসাধ্য। তারপরও আমি মনে করি বিমানযোগে খেলতে গেলে খুব কষ্ট হবে না। আর কষ্ট হলেও আমি ব্যক্তিগতভাবে খেলতে রাজি। ’ গত বছর লিগে চট্টগ্রাম আবাহনীর অবস্থান ছিল নবম।

গত বছর মোহামেডান লিগ শেষ করেছিল তৃতীয় হয়ে। একই অবস্থান ধরে রাখার কথা বলেন কোচ কাজী জসিমউদ্দিন আহমেদ জোসী ও ইসমাইল বাঙ্গুরা। কোচ জোসী বলেন দলের টার্গেট তিনে থাকা, ‘চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মতো দল গড়তে পারিনি। তারপরও চেষ্টা থাকবে গতবারের স্থানটি ধরে রাখতে। টিম বিজেএমসি গতবার লিগ শেষ করেছিল সাতে থেকে। এবার টার্গেট পাঁচ। দলটির কোচ সাইদুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের প্রস্তুতি বেশ ভালো হচ্ছে। আশা করি এবার লিগে ভালো করবো। গতবার সপ্তম স্থানে ছিলাম। এবার টার্গেট পাঁচ। ’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow