Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৩৩
সাকিবের ব্যাটে জ্যামাইকার জয়
ক্রীড়া ডেস্ক
সাকিবের ব্যাটে জ্যামাইকার জয়

মাত্র ২ রানে পড়ে যায় জ্যামাইকা তালাওয়াশের ৪ উইকেট। টার্গেট যত ছোটই হোক না কেন এমন পরিস্থিতির পর ম্যাচে ফেরা কঠিন।

কিন্তু এমন মহা বিপর্যয়ে পড়ার পরও ৫ উইকেটে জয় পেয়েছে জ্যামাইকা তালাওয়াশ। আর এই জয়ের প্রধান কারিগর সাকিব আল হাসান।

৪৭ বলে ৫৪ রানের হার না মানা ইনিংস, সাতটি বাউন্ডারি —এই পরিসংখ্যান দিয়ে গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের বিরুদ্ধে খেলা সাকিবের দুর্দান্ত ইনিংসের সঠিক চিত্র তুলে ধরা কঠিন। টার্গেট খুব বড় ছিল না— মাত্র ১২৯। কিন্তু ইনিংসের প্রথম ৭ বলের মধ্যে ৪ উইকেট হারানোর জ্যামাইকার সামনে এই ‘ছোট’ টার্গেটই হয়ে যায় পাহাড়সম। কিন্তু সাকিব ছিল বলেই রক্ষা।

অবশ্য সাকিবকে দারুণভাবে সহযোগিতা করেছেন গায়ানার অধিনায়ক ক্রিস গেইল। ক্যারিবীয় মারকুটে ব্যাটসম্যান ২৯ বলে খেলেছেন ৪৫ রানের অপরাজিত ইনিংস। দুই বাউন্ডারির সঙ্গে চারটি বিশাল ছক্কা। ষষ্ঠ উইকেটে সাকিব-গেইল মিলে খেলেছেন ৮৭ রানের ইনিংস। এই জুটিই জ্যামাইকাকে নিরাপদে পৌঁছে দিয়েছে। অবদান রয়েছে অ্যান্ড্রু রাসেলও। মাত্র ১৫ বলে ২৪ রান করেছেন তিনিও। ওভারের দ্বিতীয় বলেই প্রথম উইকেট হারায় জ্যামাইকা। দুই রান করে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার চ্যাডউইক ওয়াল্টন। এর তিন ব্যাটসম্যান ম্যাকচারথি, সাকাঙ্গারা ও পাওয়েল রানের খাতা খোলার আগেই প্যাভিলিয়নে ফিরে গেলে রাসেলকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন সাকিব। শেষ পর্যন্ত তিনি সফল হন। তাই ম্যাচ সেরার পুরস্কারও উঠেছে তার হাতে।

তবে এই জয়ে ভূমিকা রয়েছে জ্যামাইকার বোলারদেরও। তারা প্রথমে ব্যাট করা গায়ানাকে আটকে দিয়েছিল মাত্র ১২৮ রানেই। গায়ানার হয়ে সর্বোচ্চ ৪৬ রান করেছেন জেসন মোহাম্মদ। এছাড়া ৩৩ রান করেছেন লিন। জ্যামাইকার হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন ডেল স্টেইন ও ইমাদ ওয়াসিম। একটি উইকেট নিয়েছেন সাকিব।

প্রথম তিন ম্যাচে সুবিধা করতে পারেননি সাকিব। চতুর্থ ম্যাচে তো বৃষ্টির কারণে খেলাই পণ্ড হয়ে গিয়েছিল। পঞ্চম ম্যাচে ছন্দে ফিরলেন। দলের জয়ে রাখলেন প্রধান ভূমিকা। এই জয়ে গায়ানার বিরুদ্ধে একটা প্রতিশোধও নেওয়া হয়ে গেল জ্যামাইকার। আগের ম্যাচে গায়ানার বিরুদ্ধে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরেছিল জ্যামাইকা। এই জয়ে পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থানে উঠল গেইলের দল। ৫ ম্যাচে জ্যামাইকার পয়েন্ট এখন ৭। দুই ম্যাচ বেশি খেলে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে গায়ানা অ্যামাজান ওয়ারিয়র্স।

up-arrow