Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৯ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ জুলাই, ২০১৬ ২৩:০৫
কে হচ্ছেন বোলিং কোচ
দৌড়ে এগিয়ে চামিন্দা ভাস
ক্রীড়া প্রতিবেদক
কে হচ্ছেন বোলিং কোচ

আগামীকাল শুরু বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কন্ডিশনিং ক্যাম্প। কিন্তু ক্যাম্পের প্রথমদিন উপস্থিত থাকছেন না হেড কোচ চন্ডিকা হাতুরাসিংহে। সিডনিতে এখন তিনি ছুটি কাটাচ্ছেন পরিবারের সঙ্গে। আগের শিডিওল অনুযায়ী ক্যাম্পের প্রথমদিন উপস্থিত থাকার কথা ছিল হাতুরাসিংহের। কিন্তু গুলশান ট্রাজেডির পর শোনা যাচ্ছে বিসিবি তাকে আরও পরে আসতে বলেছে। হাতুরাসিংহে পরে আসলেও মাশরাফি, মুশফিকদের ট্রেনিং করাবেন ট্রেনার মারিও ভিলাভারায়ান। এখন কথা হচ্ছে, কন্ডিশনিং ক্যাম্পের আগে কি মাশরাফি, আল-আমিন, রুবেল হোসেনরা বোলিং কোচ পাবেন? বিসিবি পরিস্কার করে কিছুই বলছে না। শুধু জানাচ্ছে, কোচ ঠিক। এখন শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষনার অপেক্ষা। এখন কথা হচ্ছে, কে হচ্ছেন হিথ স্ট্রিকের উত্তরসূরী? রেসে অনেকেই রয়েছেন। গুঞ্জন, মাশরাফিদের বোলিং কোচের দায়িত্ব পাচ্ছেন শ্রীলঙ্কাণ ক্রিকেটের লিজেন্ড পেসার চামিন্দা ভাস।

অবশ্য ভাসের সঙ্গে রেসে রয়েছেন, ভারতের ভেঙ্কটেশ প্রসাদ, ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই গ্রেট ফাস্ট বোলার কার্টলি অ্যামব্রোস ও কোটর্নি ওয়ালশ। নিউজিল্যান্ডের শেন বন্ডের পাশাপাশি শোনা যাচ্ছে পাকিস্তানের আকিব জাভেদের নাম।

২০১৫ সালের বিশ্বকাপ থেকে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। অসাধারন বোলিং করছেন মাশরাফি, আল-আমিন, মুস্তাফিজুর রহমানরা। দুরন্ত বোলিং করে অপরপর দেশগুলোর সমীহ আদায় করে নিয়েছেন। টাইগার বোলারদের ঘষা মাঝা করেছেন স্ট্রিক। স্ট্রিক এখন নেই। তার জায়গায় নিয়োগ দিতে বেশ অনেক জনের সঙ্গে কথা বলেছে বিসিবি। সর্বশেষ যে সংক্ষিপ্ত তালিকা করেছে, তাতে রয়েছে পাঁচজনের নাম। তাদের মধ্যে থেকেই নিয়োগ দেওয়া হবে বোলিং কোচ। বিসিবির সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমরা বেশ কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে একজনকে বাছাই করেছি। তার সঙ্গে আমাদের কথাবার্তা প্রায় চুড়ান্ত। এখন শুধু ঘোষনা করবো। ’ তাহলে কি টাইগার ক্রিকেটাররা কন্ডিশনিং ক্যাম্পের আগেই পেয়ে যাচ্ছেন নতুন বোলিং কোচ? বিসিবি সিইও এর কোনো পরিস্কার উত্তর দেননি, ‘আমরা কাজ করছি বিষয়টি। নিয়ে দ্রুতই বোলিং কোচ পেয়ে যাবে ক্রিকেটাররা। ’

কে হচ্ছেন কোচ? অনেকের নাম রয়েছে তালিকায়। এদের মধ্যে রেসে এগিয়ে চামিন্দা ভাস। শ্রীলঙ্কাণ ক্রিকেট দলের বোলিং কোচ হিসেবে কাজ করার অভিজ্ঞতাও রয়েছে বাঁ হাতি ফাস্ট বোলারের। তাকে বলা হতো সুইং মাস্টার। ২০০৩ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ওভারেই টানা চার বলে ৪ উইকেট নেওয়ার বিরল কৃতিত্ব রয়েছে ভাসের। অবশ্য দুই বছর আগেই ভাসের নিয়োগ পাওয়ার কথা ছিল। স্ট্রিকের জায়গা বোলিং কোচ হওয়ার রেসে এগিয়ে ছিলেন সবার আগে। হাতুরাসিংহেও নাকি চেয়েছিলেন স্বদেশীকে। কিন্তু বিসিবির কতিপয় প্রভাবশালী পরিচালক চাননি বলে নিয়োগ দেওযা হয়নি ভাসকে। পরিচালকদের মত ছিল, কোচিং স্টাফে অধিক সংখ্যক শ্রীলঙ্কাণের নিয়োগ ক্রিকেটের জন্য ইতিবাচক হবে না। এবারও শেষ মুহুর্তে ভাসকে সটকে অন্য কাউকে নিয়োগ দিতে পারে বিসিবি। তাতে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। তবে বিসিবির প্রভাবশালী একজন পরিচালকের মতে, ভাসকে এবার চাইছেন স্বয়ং বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বিসিবি সভাপতি চাইছেন, কোচিং স্টাফ যেন একই সুতোয় গাঁথা থাকে।

ভাসকে নিলে বাংলাদেশের কোচিং স্টাফে যোগ হবে আরও এক শ্রীলঙ্কাণের। চন্ডিকা হাতুরাসিংহের সঙ্গে কোচিং স্টাফে রয়েছেন সহকারী কোচ রুয়ান কালপাগে ও ট্রেনার মারিও ভিলাভারায়ন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow