Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : শনিবার, ২৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:০৫
আরও ৪৫ ডোপপাপী
ক্রীড়া ডেস্ক
আরও ৪৫ ডোপপাপী
অলিম্পিকের বর্ণিল সাজে সেজেছে রিও। পাশেই বিশ্বখ্যাত কোপাকাবানা সমুদ্রসৈকতও এর ব্যতিক্রম নয়। সারা বিশ্ব থেকে আগত অ্যাথলেট, সাংবাদিক ও পর্যটকদের স্বাগত জানাতে প্রস্তুত পুরো ব্রাজিল। ৫ আগস্ট শুরু হচ্ছে ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ —এএফপি

বেইজিং ও লন্ডন অলিম্পিকের স্যাম্পল থেকে আরও ৪৫ জনকে ডোপপাপী হিসেবে চিহ্নিত করেছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি। নতুন করে পুরনো স্যাম্পল পরীক্ষা শুরুর পর থেকে এ নিয়ে মোট ৯৮ জনের ডোপপাপ প্রমাণ হলো। আইওসি প্রথমবারের মতো এত বড় একটা হুমকির মুখে পড়েছে। ডোপপাপের কারণে রাশিয়াকে রিও অলিম্পিকে নিষিদ্ধ করা হতে পারে। পুরনো ১২০০ স্যাম্পল পরীক্ষার পর অনেক কিছুই সামনে এসেছে। একের পর এক থলের বেড়াল বের হতে শুরু করেছে। তবে কোনো অবস্থাতেই ডোপপাপকে ছাড় দিতে রাজি নয় আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি। নতুন করে পরীক্ষার পর প্রমাণ হয়েছে, বেইজিং অলিম্পিকে ২৩ জন পদকজয়ী অ্যাথলেটের স্যাম্পলে ডোপ ছিল। অথচ তাদের অলিম্পিকে অংশ নিতে দেওয়া হয়েছে। আটটি দেশের চারটি ক্রীড়া ডিসিপ্লিনের ৩০ জনের স্যাম্পলে ডোপ পাওয়া গেছে। দ্বিতীয়বারের মতো ডোপ পরীক্ষায় লন্ডন অলিম্পিকের ১৩৮টি স্যাম্পল পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে নয়টা দেশের দুটি ক্রীড়া ডিসিপ্লিনের মোট ১৫টা স্যাম্পলে ডোপ পাওয়া গেছে। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি এসব পরীক্ষার মাধ্যমে ডোপিংয়ের বিরুদ্ধে নিজেদের সুদৃঢ় অবস্থানই ব্যক্ত করছে। আইওসির প্রেসিডেন্ট থমাস বাখ এক বিজ্ঞপ্তিতে বলেছেন, ‘নতুন করে পরীক্ষা করার মাধ্যমে আইওসি ডোপিংয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করছে। ’ এসব পুনঃপরীক্ষা নাকি গোয়েন্দা রিপোর্টের ভিত্তিতে করা হচ্ছে। গত বছর থেকেই গোয়েন্দারা ডোপপাপীদের সম্পর্কে আইওসিকে তথ্য দিতে শুরু করে। এক বিজ্ঞপ্তিতে অলিম্পিক কমিটি জানিয়েছে, ডোপ পরীক্ষায় যাদের পজিটিভ পাওয়া গেছে, তাদের রিও অলিম্পিকে অংশ নিতে দেওয়া হবে না। তা ছাড়া দীর্ঘমেয়াদি নিষেধাজ্ঞাও থাকছে তাদের ওপর। তবে স্যাম্পলগুলোকে তৃতীয় ও চতুর্থ ধাপে পরীক্ষার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। অবশ্য সবকিছুই শেষ হবে রিও অলিম্পিক শুরুর আগে। এরই মধ্যে রিও অলিম্পিক থেকে নিষিদ্ধ হয়েছে রাশিয়ান অ্যাথলেটিকস এসোসিয়েশন। আপিল করেও তাদের কোনো ফল হয়নি। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে দাবি তোলা হয়েছে, ডোপিংয়ের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হতে হবে। যাতে ভবিষ্যতে কেউ ডোপপাপ করার আগে কঠিন শাস্তির কথা মনে করতে পারে।

up-arrow