Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৪৭
বাংলাদেশে না গেলে শাস্তি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
বাংলাদেশে না গেলে শাস্তি
অনুশীলনের ফাঁকে আলোচনায় ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের সদস্যরা —ইন্টারনেট

ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) প্রথম নমনীয়ই ছিল। কিন্তু ধীরে ধীরে কঠোর হয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের নিরাপত্তা নিয়ে বিশ্বস্ত নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক রেগ ডিকাসনের প্রতিবেদনের পর ইসিবি চাচ্ছে তাদের সেরা দলটাই বাংলাদেশে আসুক। যদি আগে বলা হয়েছিল, এই সফরের জন্য কাউকে জোরাজুরি করবে না বোর্ড। কিন্তু ইংল্যান্ডের কোচ ট্রেভর বেলিস সরাসরি বলে দিয়েছেন, এই সফর না করলে তাদের কপাল পুড়বে।

বাংলাদেশ থেকে সরাসরি ভারতে যাবে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল। ইসিবি চাচ্ছে বাংলাদেশে যে দলটি যাবে সেই দলকেই ভারতে খেলাতে। কেননা বাংলাদেশ ও ভারতের কন্ডিশন অনেকটা একই। বাংলাদেশের শক্তিমত্তা সম্পর্কেও কোচ জানেন। ঘরের মাঠে যে কোনো দলকে রুখে দেওয়ার সামর্থ্য রয়েছে টাইগারদের। তা ছাড়া ইংলিশ কোচ চাচ্ছেন, বাংলাদেশ সিরিজে পারফরম্যান্সের কথা চিন্তা করেই ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজের জন্য দল করতে। বেলিস বলেন, ‘দুটি সফরের মধ্যে কোনো ফাঁক নেই। বাংলাদেশ সফরের জন্য একটা দল গঠন করার পর ভারতের বিরুদ্ধে আরেকটি দল গঠন করা কঠিনই হয়ে যাবে। এখন এটা নির্ভর করছে কে এই দলে যাচ্ছে আর কে না যাচ্ছে। আমি চাই, দুই সফরেই জন্য একটা দল হোক। বাংলাদেশে যে দলটি যাবে তারাই খেলুক ভারতেও।’

ইতিমধ্যেই বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে সবুজ সংকেত দিয়েছেন টেস্ট অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক, মইন আলী, জনি বেয়ারস্টো ও ক্রিস জর্দানও আসার ব্যাপারে সম্মতি জানিয়েছেন। আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু না বললেও বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে রাজি ওয়ানডে অধিনায়ক ইয়ন মর্গানও।’ তবে ইসিবির ক্রিকেট পরিচালক অ্যান্ড্রু স্ট্রস ক্রিকেটারদের সিদ্ধান্ত জানাতে আগামীকাল পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছেন। পাশাপাশি অনিশ্চয়তার কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন তিনি। স্ট্রস বলেছেন, ‘কেউ ইনজুরিতে পড়লে একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য দলে জায়গা হারায়। এই সফরে না গেলেও একই অবস্থার সম্মুখীন হতে হবে। যদি এই সফরে কেউ অনেক ভালো করে ফেলে তাকে ভারত সফরে বাদ দেওয়ার কোনো অবকাশ নেই।’ তাই কোনো ক্রিকেটারই চাইবে না দলে নিজের জায়গাটা হারাতে। সে কারণে বাংলাদেশে পূর্ণ শক্তির ইংল্যান্ড দলই আসছে। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর ঢাকায় পৌঁছাবে ইংলিশ ক্রিকেটাররা। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ও দুই ম্যাচের একটি টেস্ট সিরিজ খেলবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। 

up-arrow