Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:০২
টাইগারদের অনুশীলনে তিন কাণ্ডারি
ক্রীড়া প্রতিবেদক
টাইগারদের অনুশীলনে তিন কাণ্ডারি
ঈদের পর শুরু হয়েছে মাশরাফিদের অনুশীলন। ক্রিকেটারদের প্রস্তুতিতে সাফল্যের ছক আঁকছেন ওয়ালশ (বাঁমে) হাতুরাসিংহে (মাঝে) ও সামারাবীরা —বাংলাদেশ প্রতিদিন

আশ্বিনের বৃষ্টি ঝরছে কখনো থেমে থেমে, কখনো আবার অঝোর ধারায়। বৃষ্টি যদি কখনো না ঝরে, তাহলে সূর্যকে আড়ালে রেখে কালো করে রাখছে আকাশকে। গতকাল মিরপুরের আকাশ ছিল তেমনই। সকালে সূর্য জ্বলজ্বলে থাকলেও বিকালে পুরোটাই ছিল মেঘে ডাকা। তাই বলে ধারায় নেমে আসেনি। না নামলেও মিরপুরের আবহাওয়া একটু ঠাণ্ডাই ছিল। ছিল না সূর্যের তেজ। এমন দিনে ঈদের ছুটি কাটিয়ে মাশরাফি, সাকিব, মুশফিকরা যোগ দেন অনুশীলনে। মিশন আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ড। ঈদের ছুটি কাটিয়ে গতকাল অনুশীলনে উপস্থিত ছিলেন ক্রিকেটারদের সবাই। অনুশীলনের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য দিক, টাইগারদের অনুশীলনে কাল উপস্থিত ছিলেন কোচিংয়ের তিন কাণ্ডারী চন্ডিকা হাতুরাসিংহে, কোর্টনী ওয়ালশ ও দিলীপ সামারাবীরা এবং ছিলেন রিচার্ড হালসালও।

হাতুরাসিংহে ২০১৪ সাল থেকে মাশরাফিদের হেড কোচ। ওয়ালশ যোগ দিয়েছেন দিন কয় আগে। ক্যারিবীয় লিজেন্ডারি পেসার কাজ করবেন মাশরাফিদের বোলিং কোচ হিসেবে। গতকাল যোগ দিয়েছেন শ্রীলঙ্কান ‘ব্যাটিং ওয়াল’ সামারাবীরা। সাবেক লঙ্কান কাজ করবেন ব্যাটিং উপদেষ্টা হিসেবে। এই তিন কাণ্ডারীর কাঁধে ভর করেই টাইগাররা এখন নতুন পথে হাঁটার পরিকল্পনা আঁকছে। তিন কাণ্ডারির সহবস্থানে টাইগারদের দুই অ্যাসাইনমেন্ট আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ড সিরিজ।

কাল টাইগাররা অনুশীলন করে ফ্লাড লাইটের আলোয়। ক্যাম্প চলছে এক মাস। কালই প্রথম অনুশীলন করেছে রাতের আলোয়। যদিও অনুশীলন শুরু হয় বিকাল ৪টায়। অনুশীলনের শুরুতে হাতুরাসিংহে আসন্ন দুই সিরিজ নিয়ে কথা বলেন শিষ্যদের সঙ্গে। পাশে দাঁড়িয়ে দীর্ঘকায় ওয়ালশও ছিলেন মনযোগী শ্রোতা। পাশে দাঁড়িয়েছিলেন স্বদেশী সমারাবীরা।

অনুশীলন শুরু হয় ভিলাভারায়ানের নির্দেশনায় দৌড়ে দৌড়ে। এরপর হালসাল ফিল্ডিং অনুশীলন করান। সবার শেষে ব্যাটিং অনুশীলন করেন মুশফিক, তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েশসহ সবাই। ব্যাটিং অনুশীলনের সবচেয়ে আলোচিত দিক ছিল তামিমের ব্যাটিং। ঈদের আগে ক্যাচ ধরার সময় আঙ্গুলে ব্যথা পেয়েছিলেন। এক সপ্তাহের বিশ্রাম শেষে সুস্থ হয়ে গতকাল ব্যাটিং করেন বাঁ হাতি ড্যাসিং ওপেনার। ব্যাটিং করার আগে নকিং করেন মিনিট ১৫। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক স্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ নকিং করান তাকে। এরপর ইনডোর স্টেডিয়ামে আধ ঘণ্টা ব্যাটিং করেন বোলিং মেশিনে। ব্যাটিংয়ে সমস্যা হয়নি বলেন তামিম, ‘খুব সমস্যা হয়নি ব্যাটিং করার সময়।’ বিসিবির ডাক্তার দেবাশীষ বলেন, ‘তামিমের আঙ্গুলের সমস্যা নেই। সিরিজ শুরুর আগে সুস্থ হয়ে যাবেন পুরোপুরি।’ ডাক্তার কিছু না বললেও আফগানিস্তান সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে বিশ্রামেই থাকতে পারেন তামিম। টিম ম্যানেজমেন্ট চাইছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শতভাগ সুস্থ তামিমকে।

কালই প্রথম যোগ দেন সামারাবীরা। এই লঙ্কানকে বিসিবি নিয়োগ দিয়েছে দুটি সিরিজে ব্যাটিং উপদেষ্টা হিসেবে। মূলত তিনি কাজ করবেন বরখাস্ত কোচ রুয়ান কালপাগের জায়গায়। সিরিজ দুটিতে হাতুরার সহকারী হিসেবে কাজ করবেন সামারাবীরা। বাংলাদেশে খেলে যাওয়া সামারাবীরা এবারই প্রথম কোচিংয়ে এসেছেন। বাংলাদেশে কোচিং করাতে এসে এক্সসাইটেড সামারাবীরা, ‘আন্তর্জাতিক ম্যাচে কোচিং করানোর উত্তেজনাই আলাদা। এছাড়া একদল প্রতিভাবান ক্রিকেটারের সঙ্গে কাজ করার আলাদা মজা রয়েছে।’ গতকাল প্রথম দিন বলে পাশে দাঁড়িয়ে মুশফিকদের দেখেছেন। প্রথম দিন বলে কিছু বলেননি, ‘প্রথম দিন বলে আমি চুপ ছিলাম। আমি ক্রিকেটারদের ব্যাটিং দেখেছি। ৪-৫ ক্রিকেটার ছাড়া অধিকাংশই আমার অপরিচিত। আমি সবার সম্পর্কে জানবো আগে। এরপর কাজ করবো। আমি মনে করি পরের দিন অনেক বেশি সহজ থাকবো ক্রিকেটারদের সঙ্গে। তারাও সহজ হবে।’ ২১ সেপ্টেম্বর তিন ওয়ানডে খেলতে ঢাকায় আসছে আফগানিস্তান। শক্তিমত্তায় দলটির চেয়ে অনেক এগিয়ে মাশরাফিরা। তারপরও ২০১৪ সালের এশিয়া কাপের কথা মাথায় রেখে চাপ একটু থাকছেই। সামারাবীরা সেই চাপের কথা না বলেই জানালেন, তার সব ফোকাস এখন আফগানিস্তান সিরিজ, ‘আমার মূল ফোকাস এখন আফগানিস্তান সিরিজ। এই সিরিজের সাফল্য আপনাকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আত্মবিশ্বাস যোগাবে।’

২০১৫ সালের বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা টাইগারদের সামনে এখন টানা ষষ্ট সিরিজ জয়ের পাশাপাশি নিজেদের ওয়ানডে ক্রিকেট ইতিহাসে শততম ম্যাচ জয়ের হাতছানি। তাই আফগানিস্তান সিরিজের বাড়তি গুরুত্ব থাকছেই। 

up-arrow