Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:০২
যাদের ঘিরে আলোচনা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
যাদের ঘিরে আলোচনা

স্বপ্ন ছিল অনূর্ধ্ব-১৯ যুব বিশ্বকাপে খেলবেন। ইংল্যান্ড যুব দলের হয়ে খেলতে আসবেন ঢাকায় এবং মাঠ মাতাবেন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে দলে সুযোগ পাননি হাসিব হামিদ। ইংল্যান্ড খেলতে আসলেও আসা হয়নি তার। স্বপ্ন ভঙ্গের বেদনায় কষ্ট পেয়েছিলেন। কিন্তু ভেঙে পড়েননি। বরং বাদ পড়ার বেদনাকে শক্তিতে পরিণত করে শাণিত করেছেন নিজেকে। যুব বিশ্বকাপে খেলতে না পারার কষ্ট হয়তো আজীবন বয়ে বেড়াবেন হাসিব। তবে কয়েক মাসের ব্যবধানে স্বপ্ন পূরণ হবে ভাবতে না পারলেও সেই ঢাকাতেই আসছেন তিনি। এবার যুব দলের হয়ে নয়, আসছেন মূল ইংল্যান্ড দলের হয়ে। টেস্ট অভিষেক হয়েও যেতে পারে এই তরুণ ক্রিকেটারের। শুধু হাসিব একাই আসছেন না, অ্যালিয়েস্টার কুক, স্টুয়ার্ট ব্রড, জেমস অ্যান্ডারসনদের সঙ্গে আসছে আরও দুই তরুণ ব্যাটসম্যান বেন ডাকেট ও স্পিনিং অলরাউন্ডার জাফর আনসারি। অনেক অপেক্ষার ইংল্যান্ড সিরিজে এই তিন ক্রিকেটার এখন সবাইকে ছাড়িয়ে আলোচনার শীর্ষে। 

যুব দলে সুযোগ না পাওয়ায় পরিশ্রমের মাত্রা বাড়িয়ে দেন হাসিব। ফলও পান পরিশ্রমের। কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপের ১৫ ম্যাচে ৫২.৪৫ গড়ে রান করেছেন ১১৫৪। যুব বিশ্বকাপে খেলতে না পাওয়ার বেদনা বেজে উঠেছে তার কণ্ঠে, ‘আমার জীবনের সবচেয়ে খারাপ সময় ছিল যুব বিশ্বকাপ দলে সুযোগ না পাওয়াটা। ইংল্যান্ডের সব বয়সভিত্তিক দলে খেলেছি। শুধু বাকি ছিল অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলা। তাই শেষ ধাপটি পেরুতে না পারার একটি কষ্ট আছে আমার। এটা ঠিক এই বাদ পড়াটা আমাকে পরিশ্রম করতে প্রেরণা যুগিয়েছে অনেক।’ ওপেনার হাসিব আসছেন দলের সবচেয়ে বয়োকনিষ্ঠ ক্রিকেটার। ব্যাটিং ধরনের জন্য তার মধ্যে অনেকেই ভবিষ্যতের জিওফ বয়কটকে দেখছেন। নিরাপত্তার অজুহাতে বাংলাদেশ সফরে আসছেন না অ্যালেক্স হেলস। তার জায়গায় নেওয়া হয়েছে স্পিনিং অলরাউন্ডার ১৯ বছর বয়সী হাসিব হামিদের। 

২২ বছর বয়সী বেন ডাকেট অসাধারণ মৌসুম পার করেছেন। ১৫ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সেঞ্চুরি করেছেন ৪টি। ওয়ানডে ক্রিকেটে রান করেছেন ৯৯। বাংলাদেশ সফর নিয়ে ভীষণ উচ্ছ্বসিত ডাকেট। নিজেকে প্রমাণের মঞ্চ হিসেবে বেছে নিতে চান সফরটিকে, ‘সুযোগ পাওয়ায় অবশ্যই ভালো লাগছে। আমি সুযোগটাকে কাজে লাগাতে চাই। আমি জানি সফর অনেক কঠিন হবে। তারপরও সুযোগ পেলেই নিজেকে প্রমাণ করতে চাই।’ সদ্য সমাপ্ত পাকিস্তান সিরিজে ডাক পেয়েছিলেন বাঁ হাতি স্পিনিং অলরাউন্ডার জাফর আনসারি। কিন্তু আঙ্গুলে চোট পাওয়ায় খেলা হয়নি। চলতি মৌসুমে ৩১ ম্যাচে ৩৯ উইকেট পাওয়া আনসারির অভিষেকের সম্ভাবনা উজ্জ্বল।

সব শঙ্কা দূর করে ইংল্যান্ড আসছে। ক্রিকেটপ্রেমীদের নজর এখন সিরিজের দিকে। সবাই অপেক্ষায় অসাধারণ একটি সিরিজ দেখার। সবাই অপেক্ষায় তিন তরুণের পারফরম্যান্সের।

up-arrow