Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:০৫
মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ
ক্রীড়া ডেস্ক
মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ

আর্জেন্টাইন জাদুকর লিওনেল মেসি উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলতে শুরু করেন ২০০৫ সালে। এরও দুই বছর আগে ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলে এলিটদের টুর্নামেন্টে অভিষেক হয় পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর। তিনি তখন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। আলেক্স ফার্গুসন সে সময় দলটাকে দুরন্তপনার শীর্ষে তুলে নিয়ে গিয়েছিলেন। দীর্ঘ ছয় বছর ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে কাটিয়ে রোনালদো আসেন রিয়াল মাদ্রিদে। এখনো এখানেই আছেন। লিওনেল মেসি শুরু থেকেই বার্সেলোনার। বর্তমান ফুটবলের সেরা দুই খেলোয়াড় চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলতে শুরু করার পর কোনো বছরই এর বাইরে ছিলেন না। তবে দুজনের দ্বৈরথটা দারুণ জমে উঠেছে। একসময় লিওনেল মেসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গোলের তালিকায় ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন সর্বোচ্চ গোলদাতা রাউল গঞ্জালেসকে। মেসিকে ছাড়িয়ে বর্তমানে শীর্ষে অবস্থান করছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তবে শেষটায় যে কে শীর্ষে থাকবেন বলা মুশকিল। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মোট ১২৮টি ম্যাচ খেলেছেন। গোল করেছেন ০.৭৩ গড়ে ৯৪টি। লিওনেল মেসি এক বার্সেলোনার জার্সিতেই খেলেছেন ১০৭টি ম্যাচ। ০.৮ গড়ে গোল করেছেন ৮৬টি। রোনালদোর চেয়ে এখনো ৮টি গোল পিছিয়ে আছেন লিওনেল মেসি। অবশ্য এ ব্যবধান ঘুচে যেতে পারে চলতি মৌসুমেই! গত সপ্তাহেই উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে যাত্রা করেছেন দুজন। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ১ গোল করেছেন রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে। আর মেসি বার্সেলোনার জার্সিতে করেছেন ৩ গোল। প্রথম সপ্তাহে এগিয়ে থাকলেন লিওনেল মেসিই। তবে বলা যায় না, রোনালদোর মতো গোলমেশিন এ ব্যবধান দূর করে দিতে পারেন একটি ম্যাচেই! উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গোলদাতার তালিকায় মেসি-রোনালদোর পরই অবস্থান করছেন স্পেনের রাউল গঞ্জালেস (৭১ গোল)। এরপর নেদারল্যান্ডসের রুড ফন নিস্তলরয় (৫৬ গোল) আর ফ্রান্সের থিয়েরি অঁরি (৫০ গোল)। বর্তমানের ফুটবলারদের মধ্যে মেসি-রোনালদোর সবচেয়ে কাছে অবস্থান করছেন সুইডিশ তারকা ফুটবলার জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ (১১৯ ম্যাচে ৪৮ গোল) ও ফ্রান্সের করিম বেনজেমা (৮১ ম্যাচে ৪৬ গোল)। বর্তমানের কেউ মেসি-রোনালদোকে স্পর্শ করতে পারছেন না, এটা মোটামুটি নিশ্চিত। তবে ভবিষ্যতে এ রেকর্ডও হয়তো কেউ ভেঙে দেবেন। রেকর্ড তো গড়াই হয় ভাঙার জন্য! অবশ্য কাজটা এত সহজ হবে না। মেসি-রোনালদোর মতোই কোনো একজন গোলমেশিনের প্রয়োজন হবে তাদের রেকর্ড ভাঙার জন্য। কে জানে, এমন গোলমেশিন আবার কবে আসবে ফুটবল আঙিনায়!

up-arrow