Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৩৪
ইতিহাসের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশ
অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকির ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভারত
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ইতিহাসের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশ
এ দৃশ্য ফ্রেমে বেঁধে টাঙিয়ে রাখার মতো। চাইনিজ তাইপেকে সেমিফাইনালে পরাজিত করে প্রথমবারের মতো অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকিতে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে বাংলাদেশ —বাংলাদেশ প্রতিদিন

ঢাকায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ চলছে। এ অবস্থায় ক্রীড়ামোদীরা ক্রিকেট নিয়ে মেতে থাকবে এটাই স্বাভাবিক।

না, ক্রিকেটের পাশাপাশি হকিকে ঘিরেও টেনশনে কাঁপছে ক্রীড়াঙ্গন। তাও আবার যুব দলকে নিয়ে। অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপ হকিতে ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। গতকাল চাইনিজ তাইপেকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে। মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে আজ বিকাল ৩টায় ফাইনাল খেলবে ভারতের বিপক্ষে। জিতলেই হকিতে নতুন ইতিহাস গড়ে ফেলবে বাংলাদেশের যুবারা।

গ্রুপের প্রথম ম্যাচে শক্তিশালী ভারতকে ৫-৪ গোলে হারানোর পরই বাংলাদেশের ফাইনাল অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায়। কেননা পরের ম্যাচে ওমানের বিপক্ষে ড্র করলেই বাংলাদেশ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। সেমিতে তখন লড়বে চীন বা চাইনিজ তাইপের বিপক্ষে। গোল ব্যবধানে গ্রুপ রানার্স আপ হয়ে সেমিতে উঠে তাইপে। এতে করে বাংলাদেশের ফাইনাল খেলাটা সময় ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। গতকাল সেমিফাইনালে তাদের দাঁড়াতে দেয়নি স্বাগতিকরা। ৬-১ গোলে বিধ্বস্ত করে প্রতিপক্ষকে। জাতীয় দলের একবার চাইনিজ তাইপের কাছে হারের রেকর্ড রয়েছে। তাই দুর্বল প্রতিপক্ষ হলেও ম্যাচটিকে হাল্কা চোখে দেখেনি। শুরু থেকেই সতর্ক হয়ে খেলেছে আশরাফুলরা। পুরো সময় ধরে ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে রাখে বাংলাদেশ।

ভারতকে হারানোর পর ওমানের জালে ১০ গোল। এরপর সেমিতে প্রতিপক্ষ চাইনিজ তাইপে। এ অবস্থায় ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ কে হবে সেই হিসাব-নিকাশ কষতে থাকে ক্রীড়ামোদীরা। কারণ ভারত-পাকিস্তান চির প্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের সেমিফাইনালে কে জিতবে তা বলা যাচ্ছিল না। কিন্তু ম্যাচে যতটা উত্তাপ ছড়ানোর কথা ছিল তা কিন্তু দেখা যায়নি। ৩-১ গোলে জয় পেয়েছে ভারত। অর্থাৎ আজ শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে ভারতকে পাচ্ছে বাংলাদেশ। বিশ্ব হকিতে না হলেও এশিয়া অঞ্চলে এখনো ভারত পরাশক্তি। সুতরাং ফাইনালে তারা যদি জিতেও যায় অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। কিন্তু গ্রুপ পর্বে যে নৈপুণ্য প্রদর্শন করেছিল তাতে শিরোপার আশা করতেই পারে বাংলাদেশ। হকিতে নতুন ইতিহাস গড়া হবে কিনা তা এখন অপেক্ষা করতে হবে।

আগের দুই ম্যাচে সাত গোল দিয়ে নায়ক আশরাফুল। গতকালও ম্যাচে প্রথম গোল আসে তার স্ট্রিক থেকে। ১১ মিনিটে সেই পেনাল্টি কর্নার থেকে বাংলাদেশকে এগিয়ে রাখেন তিনি। পাঁচ মিনিট পর পেনাল্টি স্ট্রোক পেলেও সমতায় ফিরতে পারেনি চাইনিজ তাইপে। চুয়ানের দুর্বল হিট আটকে দেন গোলরক্ষক ইয়াসিন আরাফাত। এ বছর স্বাগতিকদের আর পেছনে তাকাতে হয়নি। একের পর এক আক্রমণ করে তাইপেকে দাবিয়ে রাখে। ২৮ মিনিটে রাজুর হিট জাল স্পর্শ করলে প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে থাকে বাংলাদেশ। দ্বিতীয়ার্ধে পাঁচ মিনিটে অবশ্য ব্যবধান কমায় চাইনিজ তাইপে। ৪৫ মিনিটে পেনাল্টি স্ট্রোক থেকে আশরাফুল গোল করে স্বস্তি এনে দেন দর্শকদের। ৫৫ মিনিটে পেনাল্টি কর্নার থেকে ফের আশরাফুল গোল করলে বাংলাদেশের জয় নিশ্চিত হয়ে যায়। ৫৯ সজীব ও ৬৩ মিনিটে রাব্বি জালে বল পাঠালে ৬-১ বড় ব্যবধানে জয় নিয়েই ফাইনালে ওঠে।

হ্যাটট্রিকসহ তিন ম্যাচে ১০ গোল তরুণ আশরাফুলের। বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হলে টুর্নামেন্টে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার তার হাতে উঠবে এ নিয়ে সংশয় নেই। তবে এনিয়ে কিছুই ভাবছেন না আশরাফুল। তিনি বলেন, দেশকে ট্রফি এনে দিতে পারলে আমার চাওয়া-পাওয়ার কিছুই থাকবে না। প্রথমবারের মতো অনূর্ধ্ব-১৮ এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলছে বাংলাদেশ। ২০০১ সালে এ আসরে একবারই অংশ নিয়ে বাংলাদেশ পঞ্চম হয়েছিল। ২০১১ সালে টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ কোরিয়া ও রানার্স আপ মালয়েশিয়া এবারের আসরে অংশ নেয়নি। তারপরও যে টুর্নামেন্টে ভারত, পাকিস্তান ছিল সেখানে বাংলাদেশ আজ চ্যাম্পিয়ন হলে হকিতে বড় অর্জনই বলতে হবে। ফাইনাল ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে এটিএন বাংলা।

up-arrow