Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:১১
নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তুষ্ট স্ট্রাউস
ক্রীড়া ডেস্ক

কোনো ক্রিকেট দলকে এর আগে বোধহয় এতটা নিরাপত্তা দেয়নি বাংলাদেশ। যতটা দেওয়া হয়েছে ইংল্যান্ডকে। সফরকারী ক্রিকেটারদের দেওয়া নিরাপত্তা শুধু প্রধানমন্ত্রীই পেয়ে থাকেন! তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে শুক্রবার রাতে ঢাকায় পা রাখে জস বাটলারের নেতৃত্বে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল। ইংলিশ ক্রিকেটারদের নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলায় ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের চিফ এক্সিকিউটিভ (সিইও) অ্যান্ড্রু স্ট্রাউসের মন্তব্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে প্রভাবশালী পত্রিকা ‘দ্য টেলিগ্রাফ’। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ও ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের সিইও স্ট্রাউস ক্রিকেটারদের দেওয়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। 

নিরাপত্তার অজুহাতে ঢাকায় আসেননি নিয়মিত অধিনায়ক ইউয়ান মর্গান। তিনি না আসলেও এসেছেন অন্য ক্রিকেটাররা। তবে ইনজুরির জন্য শেষ মুহূর্তে নাম সরিয়ে নিয়েছেন জেমস অ্যান্ডারসন ও মার্ক ওড। এরা না আসলেও শক্তিশালী দল নিয়েই নিরাপত্তাহীনতাকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে ঢাকায় পা রাখে ইংল্যান্ড। ঢাকায় পা রাখার পর পুলিশ বাহিনী বুলেট প্রুফ জ্যাকেট পরে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলে পুরো বিমানবন্দর। ডগ স্কোয়াড বাহিনী আগে থেকেই তল্লাশি চালায় এবং ক্র্যাক স্পেশাল ফোর্স সদা প্রস্তুত ছিল বিমানবন্দর এলাকায়।

ইংলিশ ক্রিকেট দল আবুধাবী থেকে ঢাকায় আসে কোচ ট্রেভর বেইলিসকে ছাড়া। বেইলিস  অস্ট্রেলিয়া থেকে ঢাকায় আসবেন। কোচ না আসলেও দলের সঙ্গে এসেছেন বোর্ড সিইও অ্যান্ড্রু স্ট্রাউস। ঢাকায় পা দিয়ে ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখে উচ্ছ্বসিত সিইও, ‘ঢাকায় আসতে পেরে আমরা ভীষণ খুশি। নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখে আমাদের দল অনেক স্বস্তিতে এবং সন্তুষ্ট।’ ঢাকায় রাখার পর ক্রিকেটাররা অস্বস্তিতে নেই বলেন স্ট্রাউস, ‘বিমান থেকে নামার পর ক্রিকেটারদের মাঝে কোনো জড়তা দেখা যায়নি। এটা ইতিবাচক দিক।’ নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখতে মাস খানেক আগে তিন সদস্যের ইংলিশ নিরাপত্তা পরিদর্শনকারী দল ঢাকায় এসেছিলেন। চারদিনের সফর শেষে ইংল্যান্ড ফিরে রিপোর্ট জমা দেন এবং এরপর ক্রিকেটারদের সঙ্গে বসে ঢাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে জানান। পরিদর্শক দলের রিপোর্টের উপর ভিত্তি করেই ঢাকায় আসতে রাজি হয় ইংল্যান্ড। তবে বাংলাদেশ সরকার ১৮ ধাপের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডকে। 

সফরে প্রথমে তিনটি ওয়ানডে খেলবে ইংল্যান্ড। ৭ ও ৯ অক্টোবর প্রথম দুই ওয়ানডে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। ১২ অক্টোবর তৃতীয় ওয়ানডে চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে। ফ্লাড লাইটের আলোয় হবে ওয়ানডে তিনটি। ২০-২৪ অক্টোবর প্রথম টেস্ট চট্টগ্রামে এবং ২৮ অক্টোবর থেকে ১ নভেম্বর দ্বিতীয় টেস্ট মিরপুর স্টেডিয়ামে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow