Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:০৩
এখনো বলার সময় আসেনি কে লিগ জিতবে
ক্রীড়া প্রতিবেদক
এখনো বলার সময় আসেনি কে লিগ জিতবে
আশরাফ উদ্দিন আহমেদ চুন্নু

পেশাদার ফুটবল লিগে টানা দুবার শিরোপা জয় করেছে শেখ জামাল। এবার তাদের হ্যাটট্রিক ট্রফি জেতার সম্ভাবনা রয়েছে। পেশাদার ছাড়াও প্রিমিয়ার লিগে হ্যাটট্রিক শিরোপা জিতে ঢাকা আবাহনী। আর ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান অপরাজিত হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিরল রেকর্ড গড়েছে। অর্থাৎ শেখ জামাল ট্রফি জিতলে ঘরোয়া ফুটবলে তৃতীয় দল হিসেবে হ্যাটট্রিকের কৃতিত্ব পাবে। চলতি লিগে ৯ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট সংগ্রহ করে গোল পার্থক্য দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। অথচ দলবদলের সময় তাদের অধিকাংশ তারকা ফুটবলার অন্য দলে যোগ দেন। যা নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। এমনকি শেখ জামাল মামলার আশ্রয়ও নিয়েছিল। যাক তারকাদের আর ফিরে পায়নি ধানমন্ডির এই দলটি।

যে মানের দল গড়া হয় তাতে অনেকে ধরেই নিয়েছিলেন শেখ জামালের পক্ষে চ্যাম্পিয়ন ফাইট দেওয়া সম্ভব হবে না। স্বাধীনতা ও ফেডারেশন কাপে সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেয়। কিন্তু লিগে ঠিকই দাপটের সঙ্গে খেলে যাচ্ছে। তাহলে কি শেখ জামাল হ্যাটট্রিক শিরোপার স্বপ্ন দেখছে? এ ব্যাপারে গতকাল আলাপ হয় দলের ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান সাবেক নন্দিত ফুটবলার আশরাফ উদ্দিন আহমেদ চুন্নুর সঙ্গে। তিনি বলেন, শেখ জামাল শিরোপার জন্যই দল গড়ে। এটা ঠিক বেশ কিছু খেলোয়াড় বের হয়ে যাওয়ায় আমরা কিছুটা হলেও চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু অনুশীলনে নতুনদের পারফরম্যান্স দেখে তা কেটে যায়। চুন্নু বলেন, সাফল্যের জন্য অবশ্যই ভালোমানের খেলোয়াড়ের প্রয়োজন পড়ে। তবে মূল বিষয়টা হচ্ছে শৃঙ্খলা। যা আমাদের দলে পুরোপুরি রয়েছে। খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় আমরা ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছি। ম্যানেজমেন্ট নিয়ে কেউ কোনো অভিযোগ করতে পারবে না। তাহলে কি হাটট্রিক শিরোপার স্বপ্ন দেখছেন? চুন্নু কিছুটা হাসলেন, এরপর বললেন,  ৯ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছি। তারপরও এখনো বলার সময় আসেনি চ্যাম্পিয়ন আমরাই হবো। লক্ষ্য করলে দেখবেন এবার লিগে দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে। রহমতগঞ্জের মতো দল গোল পার্থক্য শীর্ষে রয়েছে। চট্টগ্রাম আবাহনী ও ঢাকা আবাহনীও কাছাকাছি অবস্থান করছে। শেখ রাসেলও ছন্দে ফিরে এসেছে। এখনো লিগের অনেক ম্যাচ বাকি। সুতরাং কে  চ্যাম্পিয়ন বলা মুশকিল। তবে শেখ জামাল যে পারফরম্যান্স প্রদর্শন করছে তা ধরে রাখতে পারলে শিরোপা জেতাটা কষ্টকর হবে না। হ্যাটট্রিক শিরোপার স্বপ্ন দেখছি ঠিকই। কিন্তু স্বপ্ন দেখলেতো চলবে না, মাঠে যোগ্যতার পরিচয় দিতে হবে। খেলোয়াড়দের ওপর আমাদের আস্থা রয়েছে। ট্রফি উপহার দিতে তারা জান-প্রাণ দিয়ে লড়াই করে যাবে।

লিগে ভালো খেলছেন। অনেকে বলছেন, শেখ জামালের তিন বিদেশিই মূলত দলকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে? চুন্নু বললেন, কোনো সন্দেহ নেই ওয়েডসন, ডার্লিংটন ও ল্যান্ডিং খুবই উঁচুমানের খেলোয়াড়। তাদের ছন্দময় খেলা দল উপকৃত হচ্ছে। তাই বলে অন্যদের খাটো করে দেখার উপায় নেই। এগারজনের খেলায় তিনজন ভালো খেললেই কি সাফল্য আসে? পুরো দলে চমৎকার সমঝোতা রয়েছে। বিশেষ করে তিন তরুণ নিপু, লাকি ও সুইট চমৎকার খেলছে। আর গোলরক্ষক মোস্তাক তিন বছরে ইনজুরি কাটিয়ে মাঠে দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছে। তারপর আবার সুইডেনের কোচ যোগ দেওয়ার পর দলের গতি বেড়ে গেছে। এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারলে ইনশাল্লাহ শেখ জামালই বিজয়ের নিশানা উড়াবে।

up-arrow