Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৭ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৩৯
থিম্পুতে মামুনুলদের অগ্নিপরীক্ষা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
থিম্পুতে মামুনুলদের অগ্নিপরীক্ষা

কালের বিবর্তনে বাংলাদেশের ফুটবলে মানের এত অধঃপতন ঘটেছে যে ভুটানের বিপক্ষে জেতাটাও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ১০ অক্টোবর থিম্পুতে এএফসি এশিয়ান কাপ প্রাক-বাছাই পর্বে বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে ভুটানের বিপক্ষে।

ফুটবল ইতিহাসে ভুটানের বিপক্ষে বাংলাদেশ কখনো ম্যাচ হারেনি। গত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে গ্রুপ পর্ব লড়াইয়ে আফগানিস্তান ও মালদ্বীপের কাছে হারলেও ভুটানকে মামুনুলরা সহজভাবেই পরাজিত করে। এরপরও থিম্পু ম্যাচ ঘিরে আতঙ্ক কাটছে না। গত কয়েক বছর ধরে জাতীয় দলের বিপর্যয়। কোনো টুর্নামেন্টে ঘুরে দাঁড়াতে পারছে না। জয় যেন স্বপ্নে পরিণত হয়েছে। যে মালদ্বীপ এক সময় দাঁড়াতেই পারত না তারাই কিনা এখন জামাল ভুইয়াদের নিয়ে ছেলেখেলা খেলছে। ৬ সেপ্টেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিত প্রাক-বাছাই পর্বে ভুটানের সঙ্গে গোল শূন্য ড্র করেছে। আর এএফসি কাপ ক্লাব টুর্নামেন্টে তারকাভরা শেখ রাসেল হেরে এসেছে ভুটান চ্যাম্পিয়ন দলের কাছে। এতে করেই ভয়টা আরও বেড়ে গেছে। মানোন্নয়ন নিয়ে বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন অনেক প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন্তু লাভ হয়নি, জাতীয় দল ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বের হয়ে আসতে পারছে না। অন্য দল হলে এত ভাবনায় পড়তে হতো না। কিন্তু প্রতিপক্ষ ভুটান বলেই বাফুফের চিন্তাটা বেড়ে গেছে। মালদ্বীপের কাছে প্রীতিম্যাচে বিধ্বস্ত হওয়ার পর ক্রীড়ামোদীরা এত ক্ষুব্ধ যে জাতীয় দলের আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়াটাই এখন মানসম্মানের ব্যাপার মনে করছে। থিম্পুতে ম্যাচ হারলে তো বাফুফে কর্মকর্তাদের মুখ দেখানোটাই মুশকিল হয়ে পড়বে।

কোনোভাবেই ১০ অক্টোবর হারা যাবে না একথা কোচকে জানিয়ে দিয়েছেন ফুটবল বস্ সালাউদ্দিন। বাফুফে সভাপতি কতটা যে চিন্তিত তা বোঝা যায় দল গঠনে তার হস্তক্ষেপে। মামুনুল ও এমিলির ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দলে ঠাঁই পাওয়ার পেছনে তিনিই নাকি বড় ভূমিকা রাখেন। কোচ সেইন্টফিট বার বার বলেছেন ঢাকায় দুর্ভাগ্যক্রমে ম্যাচ জিততে পারেনি। অসংখ্য গোলের সুযোগ পেয়ে কাজে লাগাতে পারিনি। আশা করছি থিম্পুতে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ব। মামুনুল ইসলাম বলেছেন,  ভুটানের আবহাওয়ার সঙ্গে খাপ-খাওয়ানো কিছুটা মুশকিল হবে। কিন্তু আমরা জেতার জন্যই মাঠে নামব। না, আবহাওয়া বা পরিবেশ কোনো অজুহাতই মানবে না বাফুফে। সালাউদ্দিনের স্পষ্ট বক্তব্য ভুটান এমন কোনো আহামরি দল নয় যে তাদের হারানো যাবে না। ১ গোল হলেও জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হবে। সভাপতির এই কথাকে গুরুত্ব দিয়েই মাঠে নামবে ফুটবলাররা। ১০ অক্টোবর কী ঘটবে সেটাই এখন দেখার বিষয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow