Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৯ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৫৬
অবশেষে নাসিরের দেখা
ক্রীড়া প্রতিবেদক
অবশেষে নাসিরের দেখা
টপ অর্ডারদের ব্যাটিং বিপর্যয়ের পরও মাশরাফি-নাসিরের জুটি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশকে লড়াকু স্কোর এনে দেয় —বাংলাদেশ প্রতিদিন

পারফরম্যান্স না থাকলে খেলোয়াড় পরিবর্তন হবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু ক্রিকেটে জাতীয় দলের নির্বাচকদের ভূমিকা দেখে ক্রীড়ামোদীরা অসন্তুষ্ট হয়ে পড়েছিলেন। সৌম্য সরকার নিঃসন্দেহে ভালোমানের খেলোয়াড়। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে তার পারফরম্যান্স ভালো যাচ্ছে না। এরপরও তাকে কেন সেরা একাদশে রাখা হচ্ছিল এনিয়ে প্রশ্নের শেষ নেই। তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার পরিবর্তে নেওয়া হয় ইমরুল কায়েসকে। যদিও গতকাল দ্বিতীয় ওয়ানতে তিনি ১১ রানে আউট হন। কিন্তু প্রথম ম্যাচে তার ব্যাটিং দৃঢ়তা অনেকে মনে রাখবেন। অনবদ্য সেঞ্চুরি হাঁকালে ইংল্যান্ডের বিশাল স্কোরকে টপকিয়ে জয়ের সম্ভাবনা জেগে উঠেছিল। কিন্তু  শেষ পর্যন্ত ২১ রানে হেরে যায় বাংলাদেশ। এই হারের পেছনে একজন ভালো ফিনিশারের অভাব পরিষ্কার হয়ে উঠে। নাসির হোসেনের মতো ফিনিশার থাকার পরও তাকে সেরা একাদশে নেওয়া হচ্ছিল না। ২০১৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে শেষ ওয়ানডে খেলেন তিনি। এমনকি টি-২০ বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলানোর পর তাকে আর একাদশে সুযোগ দেওয়া হয়নি। দলে থাকছেন অথচ খেলানো হচ্ছে না বিষয়টি রহস্যই মনে হচ্ছিল। মিডিয়ায় এ নিয়ে অনেক লেখালেখি হয়েছে। কোনো লাভ হয়নি। নির্বাচক বা কোচ নীরব ভূমিকা পালন করছিলেন। নাসিরকে মাঠে না নামানোর পেছনে অনেক কথাই শোনা যাচ্ছিল। যাক শেষ পর্যন্ত গতকাল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে তাকে দেখা গেল সেরা একাদশে। ২৭ বলে ২৭ রান করে রান অপরাজিত ছিলেন। বোলিংয়েও দুর্দান্ত করেন নাসির। ১০ ওভারে ২৯ রানে ১ উইকেট পান। একটি চমৎকার ক্যাচও ধরেন।  মাশরাফির সঙ্গে চমৎকার জুটিও বাঁধেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নাসির বোলিং করেননি। বাংলাদেশের দেওয়া ২৩৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করছিল ইংল্যান্ড। মোশাররফ হোসেন রুবেলের বদলে নাসির সেরা একাদশে সুযোগ পান। দেখা যাক চট্টগ্রামে শেষ ওয়ানডেতে তাকে পুনরায় সেরা একাদশে রাখা হয় কিনা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow