Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৫০
‘এখনো কি বিশ্বকাপের স্বপ্ন দেখেন সালাউদ্দিন’
ক্রীড়া প্রতিবেদক
‘এখনো কি বিশ্বকাপের স্বপ্ন দেখেন সালাউদ্দিন’
গোলাম সারোয়ার টিপু

ভুটানের কাছে হারের পর ক্রীড়ামোদীরা ক্ষুব্ধ। এমন ব্যর্থতায় অনেকে বাফুফের কর্মকর্তাদের পদত্যাগ দাবি করেছেন।

সাবেক ফুটবলাররা বলছেন, লজ্জায় এখন মুখ দেখানো মুশকিল হয়ে পড়েছে। তাদের কথা ভুটানের কাছে হারের পর বর্তমান কমিটি থাকা অবস্থায় ফুটবলে উন্নয়ন ঘটবে তা কোনো পাগলই আশা করবে না। গতকাল আলাপ হয় সাবেক নন্দিত ফুটবলার ও কোচ গোলাম সারোয়ার টিপুর সঙ্গে। তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে বললেন, ‘দেশের ফুটবল নিয়ে কথা বলতে ইচ্ছাই করে না। নিজে যে ফুটবলার ছিলাম তা পরিচয় দিতেই লজ্জা হয়’। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ১৮৫তম অবস্থান, এরপর ফুটবল নিয়ে আর কি বলব। দুই বছর আগে বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন এক অনুষ্ঠানে জোর গলায় বলেছিলেন, তার লক্ষ্য ২০২২ সালে বিশ্বকাপ চূড়ান্ত পর্বে খেলা। ব্যানারে বড় করে লেখা হয়েছিল ‘ভিশন ২০২২। ’ এমন ভিশনের কথা শুনে অনেকেই হেসেছিল। কারণ যে বাংলাদেশ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে সুবিধা করতে পারছে না সেখানে ২০২২ সালে বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্ন দেখে কীভাবে? এ নিয়ে আমি বিভিন্ন পত্রিকায় মন্তব্য করেছিলাম। যা সালাউদ্দিন সাহেবের পছন্দ হয়নি। এখন প্রশ্ন হচ্ছে থিম্পুতে এশিয়ান কাপ প্রাক-বাছাইপর্বে ভুটানের কাছে নাস্তানাবুদ হওয়ার পর এখনো কি সালাউদ্দিন বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্ন  দেখছেন।

টিপু বলেন, ভুটানের কাছে হারের পর মিডিয়াতে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। কেউ কেউ বলছেন, ফুটবল ঘিরে সব আশা শেষ হয়ে গেল। আমি কিন্তু এই হারে মোটেই অবাক হইনি। ঢাকায় যখন জিততে পারেনি তখন থিম্পুতে এমন পরিণতি হবে তা ধরেই নিয়েছিলাম। কি আছে বাংলাদেশের ফুটবলে?

প্রায় ৯ বছর ধরে একই লোক নিয়ে বাংলাদেশের ফুটবল পরিচালিত হচ্ছে। কি দিতে পেরেছে তারা। দেশের অধিকাংশ জেলাতেই দীর্ঘদিন ধরে লিগ হচ্ছে না। শুধু নামমাত্র পেশাদার লিগ করেই দায়িত্ব শেষ। আসলে বার বার এক কথা বলতে ভালো লাগে না। তবে আমি কিন্তু এখনো আশাবাদী। যোগ্য ও সৎ সংগঠকরা ফুটবলের দায়িত্ব নিক। দেখবেন ফুটবলে অচলাবস্থা কেটে যাচ্ছে। তা নাহলে দুর্দশাতেই বন্দি থাকবে দেশের ফুটবল।

up-arrow