Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:২৯
অবশেষে সালাউদ্দিন মুখ খুললেন
ক্রীড়া প্রতিবেদক

বার বার কোচের পরিবর্তন, নতুন নতুন বিষয়ের সংযোজন আর অবকাঠামো পরিবর্তনের মধ্য দিয়েও ফুটবলে উন্নয়নের সম্ভাবনা দিন দিন কমছে। এবার নতুন কিছু ভাবতে হচ্ছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনকে (বাফুফে)। ফুটবল কাঠামোকে ঢেলে সাজিয়ে ফুটবলের আধুনিকায়নের দিকে অগ্রসর হচ্ছে এবার বাফুফে। আগামী জানুয়ারিতেই সমন্বিত একটি উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে অগ্রসর হতে যাচ্ছে তারা। গতকাল বাফুফে ভবনে এ পরিকল্পনার সার্বিক বিষয় তুলে ধরেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন।

ভুটানের মতো দলের কাছে পরাজয়ের দুঃসহ স্মৃতি ভুলতেই পারছেন না বাফুফে সভাপতি। জাতীয় দলের এমন ব্যর্থতার জন্য দেশের মানুষের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন তিনি। তবে একই সঙ্গে প্রকাশ করেছেন আগামী তিন বছরের উন্নয়ন পরিকল্পনা। যার মধ্য দিয়েই হয়তো বাংলাদেশের ফুটবল অন্ধকার রাত পেরিয়ে আলোর মুখ দেখবে!

ফুটবলের এমন করুণ অবস্থায় ভক্তরা হতাশ, বিক্ষুব্ধ। বাফুফে ভবনের সামনে তারা জটলা জমিয়েছে। এমন বিক্ষুব্ধ পরিবেশের মধ্যেই বাফুফে সভাপতি নিজের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরেন সাংবাদিকদের সামনে। ভুটানের কাছে হারে বাংলাদেশের ফুটবল যে একটা দুঃসময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে তা স্বীকার করে কাজী সালাউদ্দিন বলেন, ‘আমি জাতীয় ফুটবল দলের এ অবস্থা আগেই আঁচ করতে পেরেছিলাম। আমরা চেষ্টা করেছি কোচ দিয়ে ফ্যাসিলিটিজি দিয়ে, কিন্তু কোনো লাভ হয়নি।’ এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য তিনি তৃণমূলকেই বেছে নিয়েছেন। টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পল স্মলির গাইডলাইনে নতুন বছরের প্রথম মাস থেকেই বাফুফে নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে মাঠে নেমে পড়বে বলে জানান সালাউদ্দিন। এ সময় তিনি আবারও ইয়ুথ ন্যাশনাল লিগ, স্কুল ফুটবল, সোহরাওয়ার্দী কাপ, শেরেবাংলা কাপ ফুটবল চালু করার অঙ্গীকার করেন। পরিকল্পনা অনেক হলেও সেগুলো নিয়ে আত্মবিশ্বাসী বাফুফে সভাপতি। তিনি বলেন, ‘প্রতিটি দেশেরই একটি দুঃসময় আসে এবং সেখান থেকে তারা উতরে যায়। আমার বিশ্বাস আগামী তিন বছরের মধ্যে আমরা আমাদের ফুটবলের এ সংকটময় মুহূর্ত থেকে পরিত্রাণ পাব।’

up-arrow