Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:০২
টেবিল টেনিসে উৎসবের আমেজ
শেখ রাসেল স্কুল টিটির বর্ণাঢ্য উদ্বোধন
রাশেদুর রহমান
টেবিল টেনিসে উৎসবের আমেজ
শেখ রাসেল স্কুল টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতার বর্ণাঢ্য উদ্বোধনের পর খেলোয়াড়দের সঙ্গে পরিচিত হচ্ছেন প্রধান অতিথি বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ —বাংলাদেশ প্রতিদিন

একপাশে ছোট্ট রাফসান রাফাত। চট্টগ্রামের কাফকো স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র।

তার প্রতিপক্ষ আকার-আকৃতিতে প্রায় তিন গুণ। তবে রাফসান দুরন্ত খেলে ঠিকই বিজয়ের গর্বে গর্বিত করে দলকে। টেবিল টেনিস খেলার সহজাত প্রতিভা নিয়েই যেন জন্ম নিয়েছে এই খুদে বালক। তার ভাবভঙ্গিতে প্রতি মুহূর্তেই ঠিকরে পড়ছিল একজন প্রফেশনালের সব গুণ। রাফসানের মতো প্রতিভাবান এমন আরও অনেকেই জমা হয়েছে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ ইনডোর স্টেডিয়ামে। সতীর্থের খেলা দেখে কেউ উৎসাহ দিচ্ছে, আবার কেউ তার সম্ভাব্য প্রতিপক্ষকে যাচাই করে নিচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে দেশের জনপ্রিয় ক্লাব শেখ রাসেল আয়োজিত শেখ রাসেল স্কুল টেবিল টেনিস টুর্নামেন্ট ঘিরে ইনডোর স্টেডিয়ামে এখন চলছে উৎসব-উন্মাদনা।

দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো কোনো ক্লাব এমন বিশাল পরিসরে স্কুল টেবিল টেনিস টুর্নামেন্টের আয়োজন করল। ঢাকা ছাড়াও এ টুর্নামেন্টে বান্দরবান, চট্টগ্রাম, নড়াইল, সাতক্ষীরা, হবিগঞ্জ, বগুড়া, ঠাকুরগাঁও, গাইবান্ধা, কুষ্টিয়া, পাবনা, রংপুর, রাজশাহী ও যশোর অঞ্চল থেকে অংশ নিচ্ছে ৪২টি স্কুল। গতকাল শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ ইনডোর স্টেডিয়ামে এ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। বক্তৃতাকালে তিনি ভারাক্রান্ত কণ্ঠে শহীদ শেখ রাসেলকে স্মরণ করে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর অতি আদরের সন্তান ছিলেন শেখ রাসেল। তার জন্মদিনে আমরা আবারও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলার দৃঢ়প্রত্যয় ব্যক্ত করছি। ’ শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের ব্যবস্থাপনায় এবং বসুন্ধরা গ্রুপ ও বসুন্ধরা সিমেন্টের পৃষ্ঠপোষকতায় আয়োজিত এ টুর্নামেন্ট থেকে ভবিষ্যতের টেবিল টেনিস তারকা বেরিয়ে আসবে বলে মনে করেন তিনি। তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘আমি বিশেষভাবে ধন্যবাদ দিতে চাই বসুন্ধরা গ্রুপ এবং এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহানকে। তার বিশেষ আগ্রহেই এ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ’ এ আয়োজন বাংলাদেশের টেবিল টেনিসকে অনেক দূর এগিয়ে নেবে বলে মনে করেন তিনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের বক্তব্যে টেবিল টেনিস ফেডারেশনের সভাপতি মো. আবদুল করিম বলেন, ‘বসুন্ধরা গ্রুপ এবং শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে ধন্যবাদ দিতে চাই এমন সুন্দর আয়োজনের জন্য। এর মধ্য দিয়ে আমাদের টেবিল টেনিস অনেক দূর এগিয়ে যাবে। ’ শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী তার বক্তব্যে শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে এ টুর্নামেন্ট আয়োজনে সার্বিক সহায়তা দেওয়ায় বসুন্ধরা গ্রুপকে ধন্যবাদ জানান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের উপদেষ্টা (আন্তর্জাতিকবিষয়ক) ড. সাজ্জাদ হায়দার, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের ডিরেক্টর ইন চার্জ ইসমত জামিল আখন্দ লাভলু, সহ-সভাপতি মীর সমির, ক্লাব পরিচালক মাকসুদুর রহমান, সালেহ জামান সেলিম, টুর্নামেন্ট সেক্রেটারি এনায়েত হোসেন আল মারূফ, টেবিল টেনিস ফেডারেশনের সহ-সভাপতি এ টি এম শামসুল আলম, সহ-সভাপতি সাইদুল হক সাদী, জাহাঙ্গীর আলম ও মুনিরা মোর্শেদসহ অন্যরা।

শেখ রাসেল স্কুল টেবিল টেনিস টুর্নামেন্টে মোট সাতটি ইভেন্টে লড়াই হচ্ছে। বালক ও বালিকা দলগত, বালক ও বালিকা একক সাব-জুনিয়র, বালক ও বালিকা একক জুনিয়র এবং প্রতিবন্ধী একক। ৪২টি স্কুলের ২৬০ প্রতিযোগী এ টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে। এ ছাড়াও চারটি প্রতিবন্ধী স্কুলের ২৫ জন প্রতিযোগীও অংশ নিচ্ছে। চার দিনব্যাপী এ টুর্নামেন্ট শেষ হবে ২১ অক্টোবর। টেবিল টেনিস ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক হাসান মনির সুমনের মতে, শেখ রাসেল স্কুল টেবিল টেনিস টুর্নামেন্টের মাধ্যমে তৃণমূল পর্যায় থেকে তারকা উঠে আসবে। হারিয়ে যাওয়া গৌরব পুনরুদ্ধার হবে বলেও মনে করেন তিনি।

up-arrow